সলিউশন কর্ণার
আসলেই কি উদ্যোক্তা হতে চান?
১১ ডিসেম্বর, ২০১৭ ইং
আসলেই কি উদ্যোক্তা হতে চান?
প্রজন্ম তার স্বভাবসুলভ ভঙ্গিতে দুর্বার গতিতে এগিয়ে চলে। স্বাভাবিকভাবেই এগিয়ে চলার পথে নানা সমস্যার মুখোমুখি হতে হয় তাকে। প্রজন্মের সেই সমস্যাগুলোরই সমাধান নিয়ে আমাদের এই নিয়মিত আয়োজনে হাজির হবেন বিভিন্ন খাতের সফল তরুণরা।

আমাদের এবারের আয়োজনে লিখেছেন ভ্রমণ বিষয়ক প্রতিষ্ঠান ট্রিপজিপ-এর

উদ্যোক্তা ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা কানিজ ফাতেমা

বর্তমান সময়ে সবচেয়ে আলোচিত শব্দ হলো উদ্যোক্তা। আমাদের তরুণ প্রজন্ম ঝুঁকছেন ব্যবসায় উদ্যোগের দিকে। দিন দিন আমাদের উদ্যোক্তার সংখ্যা বাড়ছে। তাঁরা নানাভাবে উদ্যোগ নিচ্ছেন নতুন কিছু করার। অনেকেই নতুন আইডিয়া নিয়ে শুরু করছেন নতুন ব্যবসা। আমাদের দেশের মতো উন্নয়নশীল দেশের জন্য এটা খুব গুরুত্বপূর্ণ। এটা আমাদের দেশের অর্থনীতিকে চাঙ্গা করবে। একজন উদ্যোক্তা বাড়লে কমপক্ষে ৪-৫ জন মানুষের কর্মসংস্থানের জায়গা তৈরি হয়। বর্তমানে চাকরির বাজারের বৈরিভাব উপলব্ধি করেও অনেকেই উদ্যোক্তা হওয়ার সিদ্ধান্ত নিচ্ছেন। তরুণ প্রজন্মের বড় একটা অংশ মনে করেন ‘চাকরি করব না, চাকরি দেব।’ কিন্তু আসলেই কি সবাই উদ্যোক্তা হতে চান নাকি শখের বসে, অন্য কে দেখে উদ্যোক্তা হওয়ার স্বপ্ন দেখেন? অনেক ক্ষেত্রে আমরা ব্যবসার জন্য নিজেরা প্রস্তুত না হয়েই নেমে পড়ি ব্যবসাতে। তখন গুণতে হয় লোকসান। সত্যিই যদি আপনি একজন সফল উদ্যোক্তা হতে চান তবে আপনাকে যে বিষয়গুলো গুরুত্ব দিতে হবে—

নিজেকে প্রস্তুত করুন

একজন সফল উদ্যোক্তা হওয়ার জন্য প্রথমেই আপনাকে ব্যাপক প্রস্তুতি নিতে হবে। শুরুতেই মানসিক প্রস্তুতিটা খুব গুরুত্বপূর্ণ। ব্যবসার জন্য নিজেকে তৈরি করতে হবে। একটা ব্যবসা শুরুর প্রথম ৩-৫ বছর প্রচুর পরিশ্রম করতে হবে। দিনে ১২-১৪ ঘণ্টা কাজ করার মানসিকতা থাকতে হবে। ধরাবাঁধা নিয়ম দিয়ে কাজকে বাঁধতে পারবেন না। এ সময়গুলোতে কাজের প্রচুর চাপ থাকবে। চাপ মাথায় নিয়েই পথ চলতে হবে। ব্যবসায়ীক একটা সুন্দর পরিকল্পনা করুন। পরিকল্পনা অনুযায়ী এগোতে থাকুন। বিশ্বাস রাখুন, কাজের প্রতি পূর্ণ মনোযোগ আপনার ব্যবসাকে এগিয়ে নিয়ে যাবে বহুদূর।

অর্থনৈতিক প্রস্তুতি

তরুণ উদ্যোক্তাদের জন্য সবচেয়ে বড় একটা বিষয় হলো অর্থনৈতিক জোগান। একটা ব্যবসার শুরুতেই লাভ নাও আসতে পারে। ব্যবসা পরিচালনার জন্য অফিস ভাড়া, কর্মচারীদের বেতনাদিসহ নানা খরচ থাকে। আমাদের দেশের প্রেক্ষাপটে একজন নবীন উদ্যোক্তাকে শুরুতেই কেউ সাহায্য করতে এগিয়ে আসেন না। গতানুগতিক ধারার ব্যাংকগুলো ব্যবসা শুরুর ২-৩ বছর পর থেকে ঋণ পাওয়ার সুযোগ দেন। তাই ব্যবসাটা ২-৩ বছর চালিয়ে নেওয়ার জন্য অর্থনৈতিক সামর্থ্য থাকা জরুরি। বর্তমানে অনেক ব্যাংক নবীন উদ্যোক্তাদের ব্যবসায় উত্সাহিত করার জন্য ঋণ প্রদান করছে। সে ক্ষেত্রে রয়েছে বন্ধকসহ নানা জটিল প্রক্রিয়া। অনেক সময় তরুণ উদ্যোক্তাদের বন্ধক রেখে ঋণ নেওয়ার সামর্থ্য থাকে না। তাই অনেকের উদ্যোক্তা হওয়ার স্বপ্ন পূরণ হয় না।

সংযমী হোন

একজন তরুণ উদ্যোক্তা হিসেবে আপনাকে সংযমী হতে হবে। ব্যবসার শুরুতেই সফলতা নাও আসতে পারে। সফলতার জন্য কিছুটা সময় লাগতে পারে। হতাশ হবেন না। কাজের হাল ছাড়া যাবে না। প্রচুর ধৈর্য ধারণ করতে হবে। এই সময়গুলোতে আপনার ছুটি থাকবে না। উত্সব, অনুষ্ঠান, আয়োজন, পরিবার, প্রিয়জনদের জন্য সময়গুলো কমে যাবে। এমন মেনে নিয়েই আপনাকে ব্যবসায় সময় দিতে হবে। মানসিকভাবে প্রস্তুত থাকতে হবে। ব্যবসার জন্য হাতে প্রচুর টাকা এলে তা ইচ্ছেমতো খরচ করা থেকে বিরত থাকুন। ব্যবসায়ীক পরিকল্পনা অনুযায়ী খরচ করুন। অপ্রয়োজনীয় বাড়তি খরচ কমিয়ে ফেলুন। এতে আপনার দক্ষতা বাড়বে।

নেটওয়ার্কিং/যোগাযোগ

স্বপ্ন পূরণের লক্ষ্যে শুরুতেই সফল উদ্যোক্তাদের কিছু পরামর্শ নেওয়া উচিত। আপনার ব্যবসা সম্পৃক্ত ব্যক্তি, প্রতিষ্ঠান বা সম্প্রদায়ের সঙ্গে যোগাযোগ বাড়াতে হবে। আপনি যে ব্যবসায় জড়িত এমন ব্যবসা দেশের বিভিন্ন স্থানে ও বিদেশে কীভাবে পরিচালিত হচ্ছে সে দিকে খেয়াল রাখুন। ইন্টারনেট ভিত্তিক বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমেও আপনার ব্যবসার প্রচার চালাতে পারেন। ব্যবসার অগ্রগতির জন্য সকল শ্রেণি-পেশার মানুষের সঙ্গে যোগাযোগ রাখুন। ব্যবসায়ীক গণ্ডি বাড়ান। আপনার সুন্দর আচরণ গ্রাহকদের আকৃষ্ট করতে সক্ষম হবে।

শরীরের যত্ন নিন

অনেক সময় লক্ষ করা যায়, তরুণ উদ্যোক্তারা কাজের চাপে নিজের শরীরের যত্ন নিতে ভুলে যান। মনে রাখবেন, আপনার ব্যবসা আপনার মতো অন্য কেউ দেখভাল করবে না। আপনি সুস্থ থাকলে আপনার ব্যবসা সুস্থ থাকবে। নিয়মিত শরীরের যত্ন নিতে হবে। অসুস্থ হয়ে পড়লে দ্রুত চিকত্সকের পরামর্শ নিন।

পড়াশোনা করুন

ব্যবসায়ীক কর্মকাণ্ডের পাশাপাশি আপনাকে কিছু পড়াশোনা করতে হবে। আপনার ব্যবসা সম্পৃক্ত বই পড়ুন। এক্ষেত্রে বিভিন্ন দেশি-বিদেশি লেখকের লেখা বই পড়তে পারেন। বই থেকে বিভিন্ন ব্যবস্যাকেন্দ্রিক কৌশল জানতে পারবেন। দৈনিক পত্রিকা পড়ুন। ব্যবসা সংশ্লিষ্ট ফিচার বা নিউজ আপনাকে সাম্প্রতিক তথ্য জানাতে সাহায্য করবে। কিছু সময় বের করুন, ইউটিউব বা অন্য কোনো মাধ্যমে আপনার ব্যবসা সম্পর্কিত ভিডিও দেখুন, যা আপনার জ্ঞানের পরিধি বাড়াবে।

সত্ থাকুন

সর্বোপরি একজন সফল উদ্যোক্তা হতে হলে আপনাকে সত্ হতে হবে। বর্তমানে অনেকের মধ্যেই কাজের পারদর্শিতার চেয়ে বাড়িয়ে বলার প্রবণতা লক্ষ করা যায়। এক্ষেত্রে ব্যবসাকে প্রতিষ্ঠা করা খুব কষ্টকর হয়ে ওঠে। অনেকাংশে কিছুদিন পরে স্বয়ংক্রিয়ভাবে ব্যবসা থেকে ঝরে পড়ার আশঙ্কা বেশি থাকে। কোনো অর্ডার পেলে তা দ্রুত ডেলিভারি দেওয়ার ব্যবস্থা নিন। এতে আপনার প্রতি গ্রাহকের আস্থা বাড়বে। সততা ছাড়া কোনো ব্যবসাতেই উন্নয়ন সম্ভব নয়।

 

 

এই পাতার আরো খবর -
facebook-recent-activity
১১ নভেম্বর, ২০১৮ ইং
ফজর৫:১০
যোহর১১:৫২
আসর৩:৩৭
মাগরিব৫:১৬
এশা৬:৩৩
সূর্যোদয় - ৬:৩০সূর্যাস্ত - ০৫:১১
পড়ুন