নগর পরিকল্পনায় সমন্বিত উদ্যোগ জরুরি
১১ ফেব্রুয়ারী, ২০১৮ ইং
বিআইপির সংলাপে বিশেষজ্ঞদের বক্তব্য

g ইত্তেফাক রিপোর্ট

রাজধানী ঢাকাকে কেন্দ  করে যেসব পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে বা হচ্ছে সেগুলো বাস্তবায়নে সমন্বিত উদ্যোগ জরুরি বলে মনে করেন বিশেষজ্ঞরা। সাফল্য নিশ্চিত করতে প্রকল্পের মেয়াদকালে নিরীক্ষা প্রতিবেদনের ওপরও জোর দিয়েছেন তারা। গতকাল শনিবার রাজধানীর প্ল্যানার্স টাওয়ারে বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব প্ল্যানার্স (বিআইপি) আয়োজিত নগর উন্নয়ন পরিকল্পনায় সাংবাদিকতার ভূমিকা শীর্ষক সংলাপে এই পরামর্শ দেন বক্তারা।

বিআইপির সাধারণ সম্পাদক পরিকল্পনাবিদ ড. আদিল মোহাম্মদ খানের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন, প্রতিষ্ঠানের সাবেক সভাপতি প্রফেসর গোলাম রহমান, নগর পরিকল্পনাবিদ প্রফেসর ড. আখতার মাহমুদ, বিআইপির সহ-সভাপতি-২ নগর পরিকল্পনাবিদ মোহাম্মদ ফজলে রেজা সুমন। অনুষ্ঠানে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন সাংবাদিক তৌফিক আলী। ঢাকাকে বাসযোগ্য নগরী হিসেবে গড়ে তুলতে সকল প্রকল্প গণমুখী হওয়া জরুরি বলে মনে করেন বিশেষজ্ঞরা। এজন্য রাজনৈতিক সদিচ্ছার প্রয়োজনীয়তা রয়েছে। রাজধানীর উন্নয়নে অনেক কাজ হচ্ছে কিন্তু সেই কাজ কতটুক পরিকল্পনা মাফিক হচ্ছে তা নিয়ে সংশয় প্রকাশ করেন অনুষ্ঠানের বক্তারা।প্রফেসর ড. আখতার মাহমুদ বলেন, নগর উন্নয়নকে কেন্দ  করে আমাদের অনেক প্রকল্প রয়েছে। প্রকল্প গ্রহণে যতটুক না সমস্যা তার চাইতে বেশি সমস্যা বাস্তবায়নে। এজন্য প্রতিটি প্রকল্পের মেয়াদকালের মধ্যে একটি অডিট বা নিরীক্ষা প্রতিবেদন হওয়া উচিত।

নগর পরিকল্পনাবিদ মোহাম্মদ ফজলে রেজা সুমন বলেন, ডিটেইল এরিয়া প্ল্যান (ড্যাপ) কিসের ভিত্তিতে করা হয়েছে সেটাই আমাদের কাছে ধোঁয়াশা রয়ে গেছে। বিভিন্ন সময় রাজধানীকে কেন্দ  করে যেসব প্রকল্প নেওয়া হচ্ছে সেগুলোতে কতটুক অভিজ্ঞ ব্যক্তিদের পরামর্শ নিয়ে করা হচ্ছে তা নিয়েও প্রশ্ন রয়েছে।

মূল প্রবন্ধ উপস্থাপনকালে সাংবাদিক তৌফিক আলী বিশ্বব্যাংকের তথ্য দিয়ে বলেন, কোন কিছু ধ্বংস না করেই ঢাকা শহরে পৌনে ৩ কোটি মানুষের বাসস্থান হতে পারে, যদি ড্যাপ পূর্ণাঙ্গ বাস্তবায়ন করা যায়। সেটি করতে হলে রাজনৈতিক সদিচ্ছার প্রয়োজন রয়েছে।

 

এই পাতার আরো খবর -
facebook-recent-activity
১১ ফেব্রুয়ারী, ২০১৮ ইং
ফজর৫:১৭
যোহর১২:১৩
আসর৪:১৫
মাগরিব৫:৫৫
এশা৭:০৮
সূর্যোদয় - ৬:৩৪সূর্যাস্ত - ০৫:৫০
পড়ুন