রোহিঙ্গাদের মাঝে আস্থা স্থাপন জরুরি
সিএনএনকে পররাষ্ট্র সচিব
১৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং

ইত্তেফাক রিপোর্ট

পররাষ্ট্র সচিব মোঃ শহীদুল হক বলেছেন, রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন প্রক্রিয়ার অংশ হিসেবে বেশকিছু রিসেপশন সেন্টার তৈরি করেছে মিয়ানমার। প্রত্যাবাসনের কাজ এগিয়ে চলছে। তবে এক্ষেত্রে সবচেয়ে বড় প্রশ্ন হলো রোহিঙ্গাদের মাঝে আস্থা তৈরি। প্রত্যাবাসনের পর তাদের সঙ্গে কেমন ধরনের আচরণ করা হবে তা কক্সবাজারের রোহিঙ্গাদের বোঝাতে হবে। মিয়ানমারকে অবশ্যই রোহিঙ্গাদের যথাযথ পরিবেশে ফেরত নিতে হবে। তবে সহায়ক পরিবেশ তৈরিতে মিয়ানমারের আরো অনেক কাজ করা জরুরি। ভিয়েতনামের হ্যানয়ে চলমান আসিয়ান ওয়ার্ল্ড ইকোনমিক ফোরামের সম্মেলনে অংশগ্রহণকালে মার্কিন গণমাধ্যম সিএনএন’কে দেওয়া এক সাক্ষাত্কারে পররাষ্ট্র সচিব এ কথা বলেন।

জাতিসংঘের ফ্যাক্ট ফাইন্ডিং মিশন প্রতিবেদনে গণহত্যার অভিযোগে মিয়ানমারের শীর্ষ সেনা কর্মকর্তাদের অভিযুক্ত করে বিচার দাবি করেছে। এক্ষেত্রে লাখ লাখ রোহিঙ্গা ফেরত যাওয়ার আগে নিরাপত্তা নিশ্চিত করা জরুরি কিনা সিএনএন’র সাংবাদিকের এমন প্রশ্নের জবাবে শহীদুল হক বলেন, রোহিঙ্গাদের নিরাপত্তা ও সুরক্ষা নিশ্চিত করার দায়িত্ব মিয়ানমার সরকারের। তাদেরই এক্ষেত্রে পদক্ষেপ নিতে হবে। খবরে বলা হয়, যাচাই বাছাইয়ের পর প্রথম পর্যায়ে তিন হাজার রোহিঙ্গাকে ফেরত নিতে রাজি হয়েছে মিয়ানমার। তবে এখনো প্রত্যাবাসনের কোনো দিনক্ষণ চূড়ান্ত হয়নি। লাখ লাখ রোহিঙ্গার ভাগ্য এখনো অনিশ্চিত।

 

এই পাতার আরো খবর -
facebook-recent-activity
১৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং
ফজর৪:২৮
যোহর১১:৫৫
আসর৪:২১
মাগরিব৬:০৮
এশা৭:২১
সূর্যোদয় - ৫:৪৪সূর্যাস্ত - ০৬:০৩
পড়ুন