বাবর আজমের কীর্তি
স্পোর্টস রিপোর্টার১৮ অক্টোবর, ২০১৭ ইং
বাবর আজমের কীর্তি
বাবর আজমকে বলা হয় পাকিস্তান ক্রিকেটের নতুন দিনের তারকা। সীমিত ওভারের ক্রিকেটে আবারো নিজেকে সময়ের অন্যতম ধারাবাহিক ব্যাটসম্যান হিসেবে পরিণত করলেন তিনি। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে সোমবার রাতে তিনি ১৩৩ বলে করলেন ১০১ রান। ছয়টি চার দ্বারা সাজানো এই ইনিংসটিই তাকে জায়গা করে দিল ইতিহাসে।

ক্রিকেট ইতিহাসের প্রথম ব্যাটসম্যান হিসেবে কোনো একটি দেশে টানা পাঁচটি সেঞ্চুরি পূর্ণ করার রেকর্ড গড়লেন বাবর আজম। এই সিরিজের আগে সংযুক্ত আরব আমিরাতে গত বছর ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে তিন ম্যাচের তিনটিতেই সেঞ্চুরি করেছিলেন তিনি। লঙ্কানদের বিপক্ষে এবার পেলেন টানা দুই ম্যাচে সেঞ্চুরি।

তার আগে দক্ষিণ আফ্রিকার এবি ডি ভিলিয়ার্স কোনো একটি দেশের বিপক্ষে সর্বোচ্চ টানা চার সেঞ্চুরি করার রেকর্ড গড়েছিলেন। ভারতের বিপক্ষে। পাকিস্তানে জহির আব্বাসের রয়েছে টানা তিন সেঞ্চুরির রেকর্ড। সংযুক্ত আরব আমিরাতে ১৯৯৩ সালে সাঈদ আনোয়ার করেছিলেন টানা তিন সেঞ্চুরি। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে বাবর আজমের সেঞ্চুরিটি তার ক্যারিয়ারের সপ্তম। এদিক দিয়েও রেকর্ড গড়েছেন তিনি। ৩৩তম ইনিংসেই সপ্তম সেঞ্চুরি। দ্রুততম সাত শতরানের মালিকও এখন বাবর। তার আগে সাত সেঞ্চুরি করতে হাসিম আমলা খেলেছিলেন ৪১ ইনিংস। আর পাকিস্তানের হয়ে তার আগে দ্রুততম সপ্তম সেঞ্চুরি করতে জহির আব্বাস খেলেছিলেন ৪২ ইনিংস।

সোমবার শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে কঠিন ম্যাচটাও জিতেছে বাবর আজমের পাকিস্তান। এদিন তারা ৩২ রানে হারিয়েছে শ্রীলঙ্কাকে। আরব আমিরাতের আবুধাবী স্টেডিয়ামে টস জিতে প্রথমে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নেয় সরফরাজ আহমেদের দল। শুরুটা মোটেও ভালো করতে পারেনি। ৭৯ রান তুলতেই মূল্যবান পাঁচ উইকেট হারিয়ে ফেলে তারা। তবে বাবর আজমের সেঞ্চুরি ও শাদাব খানের অপরাজিত ৫২ রানের সৌজন্যে নয় উইকেটে ২১৯ রান তুলে পাকিস্তান। তবে জয়ের জন্য ৪৮ ওভারে শ্রীলঙ্কার টার্গেট দাঁড়ায় ২২০ রান। কিন্তু পাকিস্তানের দুর্দান্ত বোলিং নৈপুণ্যে মাত্র ১৮৭ রানেই গুটিয়ে যায় লঙ্কানদের ইনিংস। এর ফলে ৩২ রানের জয় নিয়েই মাঠ ছাড়ে পাকিস্তান। ম্যাচ সেরার পুরস্কার জেতেন শাদাব খান। এই জয়ের ফলে ৫ ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজে ২-০ ব্যবধানে এগিয়ে যায় পাকিস্তান।

 

 

এই পাতার আরো খবর -
facebook-recent-activity
১৮ অক্টোবর, ২০১৮ ইং
ফজর৪:৪১
যোহর১১:৪৪
আসর৩:৫২
মাগরিব৫:৩৪
এশা৬:৪৫
সূর্যোদয় - ৫:৫৭সূর্যাস্ত - ০৫:২৯
পড়ুন