সাফের ফাইনালে মালদ্বীপ
১৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং
মালদ্বীপ ৩ * নেপাল ০

স্পোর্টস রিপোর্টার

এবার নিয়ে তিনবার ঢাকার মাঠে সাফের ফাইনালে উঠল মালদ্বীপ। ২০০৩, ২০০৯ সালে বঙ্গবন্ধু স্টেডিয়ামের মাঠে ফাইনাল খেলেছিল মালদ্বীপ। ঢাকার মাঠে এবার তৃতীয়বারের মতো ফাইনালে উঠল। ২০০৮ সালে মালদ্বীপ তাদের ঘরের মাঠে সাফে চ্যাম্পিয়ন হয়। গতকাল সাফের প্রথম সেমিফাইনালে মালদ্বীপ ৩-০ গোলে নেপালকে হারিয়ে ফাইনালে জায়গা করে নেয়। মালদ্বীপের অধিনায়ক আকরাম আব্দুল ঘানি ৯ মিনিটে ফ্রিকিক হতে সুন্তর গোল করেন দলকে এগিয়ে দেন ১-০। খেলার শেষ কয়েক মিনিটে মালদ্বীপ ২ গোল করে। ইব্রাহিম হাসান ওয়াহেদ ৮৩ ও ৮৫ মিনিটে পর পর দুই গোল করে নেপালের বিদায়টা নিশ্চত করেন ৩-০।

১ গোলে এগিয়ে থাকার পরও গোল শোধ করে খেলায় ফিরে আসার মতো অনেক  সুযোগ পেয়েছিল নেপাল। কিন্তু কোনো সুযোগই কাজে লাগাতে পারেনি বিমলরা। মালদ্বীপের গোলকিপার ফয়সাল দারুণ দারুন সব সেভ দিয়েছেন। নেপালের কাছে হেরে বাংলাদেশ ঘরের মাঠ থেকে বিদায় নেয়। আর সেই নেপালকে হারিয়ে মালদ্বীপ ফাইনালের টিকিট নিয়ে গেল। নেপাল এবার নিয়ে ষষ্ঠবারের মতো সাফের সেমিফাইনাল হতে বিদায় নিল।

ঢাকার এই মাঠেই সাফ গেমস ফুটবলে চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল নেপাল। বঙ্গবন্ধু কাপ ফুটবলেও নেপাল চ্যাম্পিয়ন হয় এই বঙ্গবন্ধু স্টেডিয়ামের মাঠেই। এবার সাফে নেপালের ভালো সম্ভাবনা ছিল। কোচ বালগোপাল মহারজনের স্বপ্ন দেখিয়েছিলেন তার হাতে সাফল্য আসে। কিন্তু কাল সেই স্বপ্ন অপুর্ণই থেকে গেল। অধরা থেকে গেল সাফের ট্রফি। অথচ সেমিফাইনালে জেতার মতো অনেক সুযোগই পয়েছিলেন নেপালের খেলোয়াড়রা। তার কোনোটাই কাজে লাগাতে পারেননি আক্রমনভাগের খেলোয়াড়রা।

 এবারের সাফে যতটা না ভালো খেলেছে তার চেয়ে ভাগ্যটা বেশি কাজে লেগেছে। ‘এ’ গ্রুপে মালদ্বীপ ১ পয়েন্ট পেয়েছিল। গ্রুপের অন্য দল ভারত এক খেলায় জিতে সেমিফাইনাল নিশ্চিত করে। আর মালদ্বীপ ও শ্রীলঙ্কা দুই খেলায় ১ পয়েন্ট করে পাওয়ায় টস ভাগ্যে সেমিফাইনালে উঠে মালদ্বীপ। সেমিফাইনালে গিয়ে আসল খেলাটা দেখাল মালদ্বীপ। ক্রোয়েশিয়ান কোচ পিটার সেগার্ট দেখিয়ে দিলেন ওস্তাদের মার শেষ রাতে। গ্রুপ পর্বে কোনো গোল করতে না পারা মালদ্বীপ নেপালের মতো দলের বিপক্ষে কাল বৃষ্টি ভেজা মাঠে ৩ গোল করে সেমিফাইনাল জিতেছে। সময় মত জ্বলে উঠেছে মালদ্বীপ। মালদ্বীপের কোচ পিটার সেগার্ট দারুণ একজন মানুষ। সব সময় হাসিখুশি। খেলা জিতে সংবাদ সম্মেলনে যাওয়ার পথে নেপালের দর্শকদের কাছে গেলেন। মাথা নিচু করে তাদের প্রতি শ্রদ্ধা জানালেন। বাংলাদেশের সমর্থকদের অভিনন্দনের জবাব দিলেন। পঞ্চমবারের মতো সাফের ফাইনাল খেলছে মালদ্বীপ। নেপালের কাঠমান্ডুতে ’৯৭ সালে সাফে ফাইনালে ভারতের কাছে হেরেছিল মালদ্বীপ। ২০০৩ সালে ঢাকায় সাফের ফাইনালে বাংলাদেশের কাছে হেরেছিল মালদ্বীপ,। ২০০৯ সালে ঢাকায় সাফের ফাইনালে ভারতের কাছে হেরেছিল মালদ্বীপ।

 

এই পাতার আরো খবর -
facebook-recent-activity
১৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং
ফজর৪:২৮
যোহর১১:৫৫
আসর৪:২১
মাগরিব৬:০৮
এশা৭:২১
সূর্যোদয় - ৫:৪৪সূর্যাস্ত - ০৬:০৩
পড়ুন