ঈদ শপিং টিপস
২১ জুন, ২০১৭ ইং
ঈদ শপিং টিপস
মালিহা মরিয়াম তিতলী

রোজা শুরুর সপ্তাহ খানেক পর থেকেই শুরু হয়ে যায় তরুণদের শপিংয়ের তোড়জোড়। অনেকে খুব সহজেই পেয়ে যান তার পছন্দসই পণ্যটি। আবার অনেকে সারা রমজান মাসজুড়ে মার্কেটে মার্কেটে ঘুরেও তার পছন্দসই পোশাকটি সংগ্রহ করতে ব্যর্থ হয়। অনেক সময় ঝোঁকের বসে কেনা পোশাকটি বাসায় নিয়ে আসার পর পছন্দসই হয় না। কিংবা কারো জন্য কিনে আনা পোশাকটি যার জন্য কেনা হয়েছে তার পছন্দ হয় না। এ ধরনের অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা এড়ানোর জন্য কিছু বিষয় গুরুত্ব সহকারে বিবেচনা করা উচিত। আজকাল ঈদের শপিং মানেই ময়লা-কাদামুক্ত ঝকঝকে শপিংমল কিংবা দেশি ফ্যাশন হাউসগুলোতে কেনাকাটার পাট চুকিয়ে ফেলা। এখন সেই আগের মতো রোদে পুড়ে বা কাদা-পানি মাড়িয়ে, ভিড় ঠেলে কেনাটার দিন নেই। ইদানীং শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত শপিংমলে আইসক্রিম বা কোমল পানীয় হাতে করে শপিং করাটাই বরং বেশি সহজ এবং নির্ঝঞ্ঝাট। কিন্তু তারপরেও ঈদের শপিং বলে কথা! ছোটখাটো ঝামেলা থেকেই যায়। আমরা প্রায়ই বুঝতে পারি না নিজের জন্য কী কিনব আর উপহারের হিসেবে কী কিনব। আপনার এ সমস্যার সমাধান করতে কিছু টিপস।

শপিংয়ের জন্য পোশাক নির্বাচন

অযথা সাজগোজ না করে বরং স্বাভাবিক পোশাক পরুন। হালকা কাজের সুতির পোশাক এ সময় শপিংয়ের জন্য বেশি আরামদায়ক। সঙ্গে বাচ্চাদের না নেওয়াই ভালো, তবে প্রয়োজন হলে তাদেরও হালকা কটনের জামা পরিয়ে নিন। বাচ্চা জন্য পানি, পাখা ও হালকা খাবারও রাখতে পারেন সঙ্গে। প্রয়োজনে সঙ্গে নিতে পারেন বেবি কার্ট। হাই হিল পরবেন না একদমই। ফ্যাট জুতা-স্যান্ডেলই শপিংয়ের জন্য বেশি উপযোগী।

লক্ষ রাখুন

l শপিংয়ে যাওয়ার আগে প্রয়োজনীয় পণ্যের একটি তালিকা করে ফেলুন। এতে কম সময়েই অনেক প্রয়োজনীয় পণ্য কেনা সম্ভব হবে।

l ঠিক করে নিন কাকে কেমন দামের মধ্যে পোশাক ও আনুষঙ্গিক জিনিস কিনে দেবেন। এতে করে অযথা ঘোরাঘুরির পিছনে সময় নষ্ট হবে না।

l এ সময়ে মার্কেট এবং শপিংমলগুলোতে একটু বেশি ভিড় থাকে। তাই বেশি খুঁতখুঁত করা যাবে না। কম সময়ের মধ্যেই কিনে ফেলতে হবে পছন্দের জিনিসটি। আবার হুট করে ট্রেন্ডি মনে হলেই কোনো কিছু কিনে ফেলা ঠিক হবে না। কেনার আগে পরখ করে নিন তা আপনার বা প্রিয়জনের ব্যক্তিত্বের সঙ্গে যায় কি না।

l মোটামুটি বাজেট থাকলে ছোটখাটো দোকানে না গিয়ে ভালো এবং বড় কোনো শপিং মল বা মার্কেটে চলে যাওয়াই ভালো। এতে ভালো পণ্য পাওয়ার সম্ভাবনা বেশি থাকে। বিভিন্ন ব্র্যান্ডের জিনিস একসঙ্গে এক জায়গাতেই পাওয়া যায়। মাঝে মাঝে, বিশেষ করে উত্সবের সময় ডিসকাউন্টও পাওয়া যায়। ফলে পছন্দের জিনিস কমসময়ে এবং তুলনামূলক সুলভ দামে কেনা যায়।

l কেনার সময়ে ভালো করে জিনিসটি পরখ করে কিনুন। রঙ, সেলাই, মান এবং দাম ভালো করে দেখে নিন। কোনো সমস্যা থাকলে বদলে নিন। দাম কম হলেও কোনো অরুচিকর এবং বেশি পুরাতন জিনিস উপহারের জন্য কিনবেন না।

l কেনাকাটা শেষে বিল দেওয়ার পর, বিলের তালিকার সঙ্গে জিনিসের সংখ্যা মিলিয়ে নিন। এতে ভুল হওয়ার আশঙ্কা থাকে না।

l বিল রিসিট ফেলে না দিয়ে কিছুদিন রেখে দিন। হঠাত্ কোনো জিনিস বদলানোর সময় কাজে লাগবে। পণ্যের সঙ্গে ডিসকাউন্ট বা মেম্বারশিপ কার্ড পেলে যত্নসহকারে সংরক্ষণ করুন। এতে পরে ওই দোকানে কেনাকাটায় পেতে পারেন বিশেষ ছাড়।

 

 

 

 

 

 

এই পাতার আরো খবর -
facebook-recent-activity
২১ জুন, ২০১৮ ইং
ফজর৩:৪৩
যোহর১২:০০
আসর৪:৪০
মাগরিব৬:৫১
এশা৮:১৬
সূর্যোদয় - ৫:১১সূর্যাস্ত - ০৬:৪৬
পড়ুন