সিরিয়ায় রাসায়নিক হামলা মেনে নেবে না জার্মানি
১৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং
সিরিয়ায় রাসায়নিক হামলা মেনে নেবে না জার্মানি

রয়টার্স

 

সিরিয়ায় রাসায়নিক হামলা সংঘটিত হলে জার্মানি সম্পূর্ণভাবে তা এড়িয়ে যেতে পারে না বলে মন্তব্য করেছেন জার্মান চ্যান্সেলর এঞ্জেলা মার্কেল। যুদ্ধবিধ্বস্ত সিরিয়ায় সামরিক বাহিনী মোতায়েনে মিত্রদের সঙ্গে আলোচনার বিষয়টি সরকার কর্তৃক জানানোর দুই দিন পর গতকাল বুধবার তিনি এমন কথা বললেন।

জার্মান চ্যান্সেলর বলেন, সামরিক হস্তক্ষেপ প্রত্যাখ্যান করাটা জার্মানির উত্তর হতে পারে না। মার্কেলের এই কথাটি তার জোটের অংশীদার সোশ্যাল ডেমোক্র্যাটদের সরাসরি তিরস্কার করা, যারা সিরিয়ার বিরুদ্ধে সামরিক ব্যবস্থা গ্রহণে অংশ নেওয়া প্রত্যাখ্যান করেছেন। পার্লামেন্টের নিম্নকক্ষে দেওয়া বক্তব্যে তিনি বলেন, ‘‘পৃথিবীতে কী ঘটছে সেটা বিবেচনায় না নিয়ে, সহজভাবে ‘না’ বলাটা জার্মানির অবস্থান হতে পারে না।’’

ন্যাটোতে সামরিক ব্যয় বৃদ্ধি ও আরো বেশি দায়-দায়িত্ব নিতে যুক্তরাষ্ট্রের তরফ থেকে চাপের মুখে রয়েছে পৃথিবীর চতুর্থ বৃহত্তম অর্থনীতির দেশ জার্মানি। সিরিয়ায় রাসায়নিক হামলার পর গত এপ্রিলে সেখানে মার্কিন, ফরাসি ও ব্রিটিশ বাহিনীর চালানো সামরিক অভিযানে অংশ নেয়নি জার্মানি। এখন জার্মানি যদি সিরিয়ায় সামরিক অভিযানে অংশ নিতে চায়, তাহলে মার্কেল এবং তার রক্ষণশীল দলকে অবশ্যই তাদের ক্ষমতাসীন জোটের অংশীদার সোশ্যাল ডেমোক্র্যাটদের সমর্থন পেতে হবে এবং যুদ্ধবিরোধী ব্যাপক জনমতকে জয় করতে হবে। এদিকে এসপিডি নেতা আন্দ্রেয়া নাহলেস বুধবার আইন প্রণেতাদের বলেন, জাতিসংঘের অনুমোদন ছাড়া তার দল সিরিয়ায় কোনো হস্তক্ষেপ করতে রাজি হবে না।

 

এই পাতার আরো খবর -
facebook-recent-activity
১৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং
ফজর৪:২৮
যোহর১১:৫৫
আসর৪:২১
মাগরিব৬:০৮
এশা৭:২১
সূর্যোদয় - ৫:৪৪সূর্যাস্ত - ০৬:০৩
পড়ুন