খেলাধুলা | The Daily Ittefaq

২০১১ বিশ্বকাপ ফাইনালে ম্যাচ পাতানোর দাবী অস্বীকার করলেন মুরালিধরন

২০১১ বিশ্বকাপ ফাইনালে ম্যাচ পাতানোর দাবী অস্বীকার করলেন মুরালিধরন
অনলাইন ডেস্ক১১ আগষ্ট, ২০১৭ ইং ১৮:৩২ মিঃ
২০১১ বিশ্বকাপ ফাইনালে ম্যাচ পাতানোর দাবী অস্বীকার করলেন মুরালিধরন
সাবেক অধিনায়ক অর্জুনা রানাতুঙ্গার করা ২০১১ সালে ভারতের বিপক্ষে বিশ্বকাপ ফাইনালে ম্যাচ পাতানোর অভিযোগের বিষয়টি সম্পূর্ণভাবে অস্বীকার করেছেন শ্রীলঙ্কার আরেক ক্রিকেট কিংবদন্তী মুত্তিয়া মুরালিধরন। বিশ্বকাপে এই ধরনের কোন ঘটনা ঘটার প্রশ্নই আসেনা বলে মুরালিধরন জোর দাবী জানিয়েছেন।
 
স্থানীয় একটি টেলিভিশন শো’তে ৪৫ বছর বয়সী মুরালিধরন বলেছেন, ‘ভারত সেই সময় সেরা দল ছিল এবং টুর্নামেন্টে আমরা ছিলাম দ্বিতীয় সেরা।’
 
মুম্বাইয়ের ওয়ানখেড়ে স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত ফাইনালে পরাজয়ের পিছনে নিজের এবং অল-রাউন্ডার এ্যাঞ্জেলো ম্যাথুসের ইনজুরির বিষয়টিকে তিনি মূল কারণ হিসেবে উল্লেখ করেছেন। তিনি বলেন, ‘ফাইনালে আমাদের জয়ের দারুণ সম্ভাবনা ছিল। কিন্তু এখানে দু’টি বিষয় ঘটেছে। সেমিফাইনালে আমি কুঁচকির ইনজুরিতে পড়ি। আর ধারাবাহিক রানে থাকা ম্যাথুস ইনজুরির কারণে ফাইনালে খেলতেই পারেননি। ব্যাটসম্যানরা ভালই রান করছিল। কিন্তু মিডল অর্ডারে ব্যাটসম্যানরা ভাল করতে না পারায় নির্বাচকরা ৩-৪টি পরিবর্তন করে দল সাজায় যা নিয়মিত দলের সাথে ঐ দলটির পার্থক্য গড়ে দেয়। টসে জয়ের পর সিনিয়র খেলোয়াড় ও নির্বাচকরা রান তাড়া করতে ভয় পেয়েছিল। সে কারণেই প্রথমে ব্যাটিংয়ের চিন্তা করেছিল। কিন্তু আমার মাথায় ছিল পরে ব্যাট করার। কারণ আমার মনে হয়েছে ভারত যেকোন রানা তাড়া করতে সক্ষম। আর এই সিদ্ধান্তই আমার সাথে তাদের মত পার্থক্য দেখা দেয়। আগের কয়েকটি সফরের অভিজ্ঞতা থেকেই আমি তাদের এই পরামর্শ দিয়েছিলাম। এখানে শিশিরের বিষয়টি বড় হয়ে দেখা দেয়। কিন্তু সাঙ্গাকারা আমাকে বলেছিল ম্যাচ রেফারী প্রতিশ্রুতি দিয়েছে কেমিক্যাল ব্যবহারের কারণে ফাইনালে কোন ধরনের শিশির ঘাসে থাকবে না।’
 
কিন্তু এই শিশিরই শ্রীলঙ্কান খেলোয়াড়দের জন্য সমস্যার কারণ হয়ে দাঁড়ায়। মাত্র ১৫ ওভারের মধ্যেই ঘাসে শিশির দেখা দেয় এবং ঐ সময় আর কিছুই করার ছিল না। এখানে ম্যাচ পাতানোর কোন বিষয় আসতেই পারেনা।বাসস।
 
ইত্তেফাক/রেজা
এই পাতার আরো খবর -
সর্বশেষ
সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
২১ আগষ্ট, ২০১৭ ইং
ফজর৪:১৭
যোহর১২:০২
আসর৪:৩৬
মাগরিব৬:৩০
এশা৭:৪৬
সূর্যোদয় - ৫:৩৬সূর্যাস্ত - ০৬:২৫