খেলাধুলা | The Daily Ittefaq

মেসির খেলা দেখতে মস্কোর মাঠে

মেসির খেলা দেখতে মস্কোর মাঠে
বারেক কায়সার, রাশিয়া থেকে১৩ নভেম্বর, ২০১৭ ইং ০৯:২০ মিঃ
মেসির খেলা দেখতে মস্কোর মাঠে
আগামী বছর রাশিয়ার মাঠে বিশ্বকাপ, তাই প্রচণ্ড শীতার্ত পরিবেশের সঙ্গে মানিয়ে আর্জেন্টিনা দুটি প্রস্তুতি ম্যাচ খেলতে এসেছে দেশটিতে। যদিও লিওনেল মেসির দল এর প্রথমটিতে স্বাগতিক রাশিয়ার সঙ্গে খুব একটা সুবিধা করতে পারেনি। মেসির দল রাশিয়ার জালে মাত্র একটি গোল দিতে পেরেছে। এতে মন ভরেনি মেসি ভক্তদের।
 
তারপরও প্রিয় খেলোয়াড়ের খেলা মাঠে বসে দেখতে পেরে খুশি ফুটবলপ্রেমীরা। ৮১ হাজার দর্শক ধারণ ক্ষমতার মস্কোর লুঝনিয়েস্কাইয়া নাভেরিয়েজনাইয়া স্টেডিয়ামটি ছিল কানায় কানায় পরিপূর্ণ। রাশিয়া স্বাগতিক হওয়ায় দর্শকদের বেশিরভাগই তাদের পক্ষে থাকবে এটাই স্বাভাবিক। তবে বিদেশি দর্শকদের উপস্থিতি ছিল চোখে পড়ার মতো। এদের অনেকেই ছিল আর্জেন্টিনার সমর্থক।
 
মাঠে বসে খেলা দেখেছে রাশিয়া প্রবাসী শতাধিক বাংলাদেশিও। রাশিয়া এবং আর্জেন্টিনার পতাকা ছাড়াও তাদের হাতে ছিল বাংলাদেশের লাল-সবুজ পতাকা। মস্কোর এ স্টেডিয়ামে উড়েছে বাংলাদেশের পতাকা! এটি আনন্দের এবং গর্বের বলে মনে করছেন প্রবাসী বাংলাদেশিরা।
 
খেলা দেখতে আসা মস্কোর গণমৈত্রী বিশ্ববিদ্যালয়ের গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের ছাত্র শেখ মিজানুর রহমান বলেন, অন্যরকম এক ভালোলাগা কাজ করেছে। অসাধারণ পরিবেশে সবাই মিলে মেসির জাদুকরি খেলা দেখে দারুণ লাগছে।
 
একই বিশ্ববিদ্যালয়ের পিএইচডি গবেষক মুরারী সরকার বলেন, মাঠে বসে খেলা দেখার মজাই আলাদা। আমার পছন্দের দল ব্রাজিল। তবে মেসির খেলা দেখতেই মাঠে এসেছি। আমার মন ভরেনি। খুব একটা নৈপুণ্য দেখাতে পারেননি মেসি। আমরা স্বপ্ন দেখি একদিন বাংলাদেশও এমন ফুটবল খেলবে।
 
পিএইচডি গবেষক আব্দুল্লাহ আল মামুন রাজীব বলেন, মেসির জাদুকরী খেলা দেখতেই মাঠে এসেছি। বিশ্বকাপ সামনে রেখে এমন আরো প্রীতি ম্যাচ হবে। বেশিরভাগই আমি দেখব। আর আসন্ন বিশ্বকাপ ফুটবলের ফাইনাল ম্যাচ হবে এই স্টেডিয়ামে। এই মাঠে বসে খেলা দেখতে পারা ইতিহাসের অংশ হওয়া বলে মনে করছি।
 
আরেক পিএইচডি গবেষক কাজী শিবলী শুভ বলেন, রাশিয়ার প্রচণ্ড শীতের কথা সবাই জানে। এই শীতে গ্যালারিতে বসে খেলা দেখতেই কষ্ট হচ্ছিল। আর যারা মাঠে খেলছেন তাদের অবস্থা সহজেই অনুমেয়! তবে ম্যাচটি একপেশে হয়নি-এটার জন্য ভালো লাগছে। আর্জেন্টিনা ম্যাচ জিতলেও ভালো খেলেছে স্বাগতিক রাশিয়া।
 
মস্কোর ন্যাশনাল রিসার্চ ইউনিভার্সিটির ছাত্র আকিকুল ইসলাম লিয়ন ও গণমৈত্রী বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র স্বরুপ বসু দেব বলেন, রাশিয়ার মাঠে তীব্র শীত মোকাবিলা করে প্রথম খেলেছেন মেসি। এই ম্যাচ দেখতে পেরে আমরা আনন্দিত।
 
ইত্তেফাক/কেআই
এই পাতার আরো খবর -
সর্বশেষ
সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
২২ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং
ফজর৪:৩২
যোহর১১:৫২
আসর৪:১৪
মাগরিব৫:৫৮
এশা৭:১১
সূর্যোদয় - ৫:৪৭সূর্যাস্ত - ০৫:৫৩