খেলাধুলা | The Daily Ittefaq

রাশিয়া বিশ্বকাপেই ‘ভিডিও অ্যাসিস্টেন্ট রেফারি’

রাশিয়া বিশ্বকাপেই ‘ভিডিও অ্যাসিস্টেন্ট রেফারি’
স্পোর্টস ডেস্ক১৮ মার্চ, ২০১৮ ইং ০১:১১ মিঃ
রাশিয়া বিশ্বকাপেই ‘ভিডিও অ্যাসিস্টেন্ট রেফারি’

ফিফা নিশ্চিত করেছে যে আগামী জুনে রাশিয়ায় শুরু হতে যাওয়া বিশ্বকাপে ভিডিও অ্যাসিস্টেন্ট রেফারি (ভিএআর) প্রযুক্তি ব্যবহূত হবে।

ফুটবলের বিশ্ব প্রধান জিয়ান্নি ইনফান্তিনো জানান, কলম্বিয়ায় গত শুক্রবার অনুষ্ঠিত ফিফার কাউন্সিলে এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। মূলত তার জোরালো সমর্থনেই রাশিয়া বিশ্বকাপ ও ফিফার সব ধরনের টুর্নামেন্টে ভিএআর প্রযুক্তি ব্যবহূত হতে যাচ্ছে।

বিশ্বকাপে ভিএআর চালুর বিষয়টি প্রত্যাশিতই ছিল। কেননা ফুটবলের আইন প্রণেতা প্রতিষ্ঠান ইন্টারন্যাশনাল ফুটবল অ্যাসোসিয়েশন বোর্ড (আইএফএবি) এ মাসের শুরুতে সর্বসম্মতভাবে এ প্রযুক্তি প্রচলনের সিদ্ধান্ত নেয়। দুই বছরের পরীক্ষা-নিরীক্ষার পর আইএফএবি জুরিখে অনুষ্ঠিত সভায় ভিএআর এর পক্ষে অবস্থান নেয়।

ইনফান্তিনো এ সিদ্ধান্তের পর বলেন, ‘আমরা ভিডিও অ্যাসিস্টেন্ট রেফারিং নিয়ে প্রথম বিশ্বকাপ আয়োজন করতে যাচ্ছি। এটি সিদ্ধান্ত আকারে অনুমোদিত হওয়ায় আমরা খুবই আনন্দিত। গত দুই বছরে এক হাজার খেলার ওপর চালানো পরীক্ষার ভিত্তিতে এ সিদ্ধান্ত। এ পরীক্ষা-নিরীক্ষা আমাদের নিশ্চয়তা দেয় যে ভিএআর সুনির্দিষ্টভাবে রেফারিদের সাহায্য করবে।’

তিনি আরো বলেন, ‘এটা আরো স্বচ্ছ ও ন্যায্যতাভিত্তিক খেলা পেতে সাহায্য করবে যা আমরা চাই। কেননা আর দশজন মানুষের মতো রেফারিরও ভুল হতে পারে। আমরা যদি এসব ভুলের কিছু শুধরে দিতে পারি, তবে তাই করা হোক।’

মূলত গোল, পেনাল্টির সিদ্ধান্ত, লাল কার্ড দেখানো ও খেলোয়াড়কে শনাক্ত করার মতো ক্ষেত্রে ভিএআর নামে অভিহিত এই প্রযুক্তির প্রচলন। ইতোমধ্যে প্রায় ১০০০ খেলায় এটি পরীক্ষামূলক ব্যবহার করা হয়েছে। ফিফা সভাপতির মতে এসব খেলায় ভিএআর ৯৩% থেকে ৯৯% ভাগ সফল।

এই প্রযুক্তি জার্মানি ও ইতালি এবং ইংল্যান্ডের ঘরোয়া কোন কোন লিগে ব্যবহার করা হচ্ছে। তারপরও দুনিয়াজুড়ে ফুটবল সমর্থক ও বিশেষজ্ঞরা এটির প্রচলন নিয়ে ব্যাপক বিতর্কের মধ্যে আছেন। তাদের শঙ্কা ভিএআর প্রযুক্তি খেলাকে মন্থর করে দেবে।

চলতি মৌসুমে ইংলিশ ফুটবলে এফএ কাপ ও কারাবাও কাপে ভিএআর প্রযুক্তি ব্যবহারের পর টটেনহ্যাম কোচ মরিচিও পচেত্তিনো এর সমালোচনা করেন। আর্জেন্টাইন এই কোচ মনে করেন প্রযুক্তিটি ফুটবল খেলাকে আবেগহীন করে দেবে।

উয়েফা সভাপতি আলেকজান্ডার সেফেরিন ইতিপূর্বে জানিয়েছিলেন আগামী মৌসুমের চ্যাম্পিয়ন্স লিগে এটি ব্যবহার করা হবে না। তার মতে-‘কেউ জানে না ভিএআর কতটা কাজ  করবে। এর মধ্যেই অনেক সংশয় বিরাজ করছে। আমি মোটেও এর বিরুদ্ধে নই। তবে আমাদের এর ব্যবহার নিয়ে আরো বিস্তারিত ব্যাখ্যা পেতে হবে। আমরা বিশ্বকাপেই ব্যাপারটা দেখবো।’ স্কাইস্পোর্টস

ইত্তেফাক/নূহু

এই পাতার আরো খবর -
সর্বশেষ
সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
২৩ এপ্রিল, ২০১৮ ইং
ফজর৪:১০
যোহর১১:৫৭
আসর৪:৩১
মাগরিব৬:২৬
এশা৭:৪৩
সূর্যোদয় - ৫:৩০সূর্যাস্ত - ০৬:২১