খেলাধুলা | The Daily Ittefaq

ব্যাখ্যা খুঁজছে ভারত

ব্যাখ্যা খুঁজছে ভারত
স্পোর্টস রিপোর্টার১৪ আগষ্ট, ২০১৮ ইং ০৬:৪৫ মিঃ
ব্যাখ্যা খুঁজছে ভারত
দুই ইনিংস মিলিয়ে ১০৭ এবং ১৩০-বিদেশের মাঠে খেলা হলেও ভারতের এমন ব্যাটিং বিপর্যয়টা একেবারেই অপ্রত্যাশিত ছিল। প্রথম টেস্টে যেখানে লড়াইয়ের আভাস দিয়েছিল ভারত, সেখানে লর্ডসে অসহায় আত্মসমর্পণই করতে হলো খ্যাতনামা ব্যাটিং লাইনআপকে।
 
স্বাভাবিকভাবেই তাই, ব্যাটিংয়ের বেহাল দশা নিয়ে সমালোচনায় বিদ্ধ হতে হচ্ছে বিরাট কোহলির দলকে। হরভজন সিং মনে করছেন, সমস্যাটা মানসিক। তিনি বলেন, ‘আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে বোলারের সঙ্গে মনস্তাত্ত্বিক যুদ্ধটাও জিততে হবে। এত ঘাড়ে চাপ দিলে তো নিজেদের পরিস্থিতি আরও কঠিন হয়ে যাবে।’
 
দলে পরিবর্তনেরও দাবি উঠেছে। সঞ্জয় মাঞ্জেরেকার তো টুইটারে বলেই দিলেন, ‘সম্মান বাঁচাতে হলেও আগামী টেস্টে বাড়তি একজন ব্যাটসম্যান খেলাতেই হবে।’ বোঝাই যাচ্ছে, ট্রেন্ট ব্রিজে দিনেশ কার্তিকের জায়গায় হয়তো খেলে ফেলবেন ঋষভ প্যান্ট। তৃতীয় টেস্ট শুরু হবে আগামী ১৮ আগস্ট।
 
গেল রবিবার টেস্টের চতুর্থ দিন ইনিংস ও ১৫৯ রানে হারের কারণে সিরিজে ০-২ পিছিয়ে গিয়েছে ভারত। ম্যাচ শেষে বিরাট জানিয়ে গেলেন, ব্যাটিংয়ের এই দশা হলে এর চেয়ে ভালো পারফরম্যান্স আশা করা মুশকিল। তিনি বলেছেন, ‘শেষ পাঁচটি টেস্টের মধ্যে এই প্রথমবার দিশাহারা দেখিয়েছে আমাদের। এই টেস্টে যেভাবে আমরা খেলেছি তাতে হারই প্রাপ্য ছিল।’
 
কন্ডিশন নয়, নিজেদের পারফরম্যান্সকেই দুষলেন ভারতের অধিনায়ক। এমনকি দলগঠনেও ভুল দেখছেন তিনি, ‘কন্ডিশনকে দোষারোপ করার কোনও প্রশ্নই নেই। পিচ বোলারদের সহায়তা করলেও সঠিক জায়গায় বলটা ফেলতে হয়।  ওদের বোলারদের বিরুদ্ধে প্রত্যেকটি রান করার জন্য আমাদের কষ্ট করতে হয়েছে। সত্যি, এখন মনে হচ্ছে, দল গঠনে কিছু ভুল ছিল। আসলে আমরা বুঝতে পারিনি পেসারদের এতটা সাহায্য করবে এই উইকেট।’
 
জয়ে সন্তুষ্ট ইংলিশ অধিনায়ক জো রুট। ২-০ ব্যবধানে এগিয়ে যাওয়ার পর তিনি বলেন, ‘জেতার জন্য বেশি কষ্ট করতে হয়নি। তার অন্যতম কারণ অবশ্যই আমাদের বোলারদের দুরন্ত পারফরম্যান্স। ম্যাচের পরিবেশ আমাদের সাহায্য করেছে। তবু এই পরিস্থিতিতেও বোলারদের ঠিক জায়গায় বলটা রাখতে হত। সেটা আমরা করে দেখিয়েছি। বিশেষ কৃতিত্ব দিতে চাইব জনি (বেয়ারস্টো) ও ওকস (ক্রিস)-কে। ওকসের জন্য আমি সত্যিই গর্বিত। নিজের প্রতিভা আরও একবার প্রমাণ করে দিয়েছে ও। প্রচণ্ড পরিশ্রম করতে পারে। ও যে দলের নিয়মিত সদস্য ছিল, সেটা প্রমাণ করে দিয়েছে।’
 
ভারতের হারের পাশাপাশি উদ্বেগের কারণ বিরাটের পিঠের ব্যথা। যদিও এই বিষয়ে নির্ভার বিরাট কোহলি। তিনি বলেন, ‘কোমরের কাছে ব্যথা রয়েছে ঠিকই। কিন্তু তৃতীয় টেস্টে আগে পাঁচদিন সময় পাচ্ছি। আশা করছি, এর মধ্যে সেরে উঠব।’ বোঝা গেল, ইনজুরি বিষয়ক ভাবনা নয়, বরং হারের ব্যাখ্যা খুঁজতেই বেশি সময় ব্যয় করছেন কোহলি!
 
ইত্তেফাক/কেআই 
এই পাতার আরো খবর -
সর্বশেষ
সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
১৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং
ফজর৪:৩০
যোহর১১:৫৩
আসর৪:১৭
মাগরিব৬:০২
এশা৭:১৫
সূর্যোদয় - ৫:৪৬সূর্যাস্ত - ০৫:৫৭