খেলাধুলা | The Daily Ittefaq

বিদায় বলে দিলেন মিশেল জনসন

বিদায় বলে দিলেন মিশেল জনসন
স্পোর্টস রিপোর্টার২০ আগষ্ট, ২০১৮ ইং ১১:১৮ মিঃ
বিদায় বলে দিলেন মিশেল জনসন
২০১৫ সালেই আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে অবসর নিয়েছেন। তারপর থেকে বিশ্বজুড়ে বিভিন্ন ফ্রাঞ্চাইজি লিগে টি-টোয়েন্টি ক্রিকেট খেলে যাচ্ছিলেন। অবশেষে সব ধরনের ক্রিকেটকে বিদায় বলে দিলেন ৩৬ বছর বয়সী মিশেল জনসন।
 
আরো অন্তত একটা বছর এমন টি-টোয়েন্টি খেলে যাওয়ার ইচ্ছা ছিলো অস্ট্রেলিয়ার এক সময়ের ত্রাস সৃষ্টিকারী বাঁ-হাতি এই ফাস্ট বোলারের; কিন্তু তার শরীর আর অনুমোদন করছে না বলেই এই সিদ্ধান্ত নিলেন। পার্থ নাউ পত্রিকায় লেখা এক কলামে নিজের অবসরের সিদ্ধান্ত জানিয়ে জনসন লিখেছেন, ‘এখানেই সব শেষ। আমি আমার শেষ বলটা করে ফেলেছি। আমি আমার শেষ উইকেটটা নিয়ে ফেলেছি। আজ আমি সব ধরনের ক্রিকেট থেকে আমার অবসরের ঘোষণা দিচ্ছি। আমি আশা করেছিলাম বিশ্বজুড়ে বিভিন্ন টি-টোয়েন্টি প্রতিযোগিতায় আগামী বছরের মাঝামাঝি পর্যন্ত খেলবো; কিন্তু ঘটনা হচ্ছে, আমার শরীর আপত্তি করতে শুরু করেছে।’
 
জনসন এখানে জানিয়েছেন, গত আইপিএল থেকেই তিনি পিঠের ব্যথায় ভুগছেন। আর এটাই ছিলো অবসর নেওয়ার জন্য তার একটা সংকেত। গত মৌসুমে ২ কোটি ভারতীয় রূপীতে জনসন খেলেছেন কলকাতা নাইট রাইডার্সে। যদিও মৌসুমটা তার একেবারেই ভালো যায়নি। তিনি ৬ খেলায় ২১৬ রান খরচ করে মাত্র ২টি উইকেট নিতে পেরেছিলেন।
 
জনসন বলেছেন, শতভাগ দিতে না পারলে এভাবে জোর করে খেলে যাওয়া উচিত না। তিনি দলের কথা ভেবেই সরে দাঁড়ালেন বলে লিখেছেন, ‘আমি যদি শতভাগ দিতে না পারি, তাহলে আমি আমার দলের জন্য সেরাটা খেলতে পারবো না। আমার কাছে সবসময়ই দলের স্বার্থ আগে।’
 
গত মাসেই জনসন জানিয়ে দিয়েছেন বিগ ব্যাশে পার্থ স্কর্চার্সের হয়ে তিনি আর খেলবেন না। এ ছাড়া এই বছরের শুরুতে পাকিস্তান সুপার লিগে করাচি কিংসের হয়ে খেলা থেকে নিজেকে সরিয়ে দিয়েছিলেন তিনি। আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে অবসর নেওয়ার পর থেকে ৩৩টি টি-টোয়েন্টি ম্যাচে ৭.২৮ ইকোনমি রেটে ৩১টি উইকেট তুলে নিতে পেরেছেন এই ফাস্ট বোলার।
 
আইপিএলে গত মৌসুমে খারাপ করলেও বিপরীতে বিগ ব্যাশে ভালোই করেছেন মিশেল জনসন। ১৯ খেলায় ২২.৭৫ গড়ে ২০টা উইকেট নিয়েছেন তিনি গত মৌসুমে; ইকোনমি রেট ছিলো ৬.১৪। ২০১৬-১৭ মৌসুমে পার্থকে শিরোপা জেতানোর অন্যতম নায়ক ছিলেন এই জনসন। ফাইনালে সিডনির বিপক্ষে ১৩ রানে ১ উইকেট নিয়েছিলেন। শেষ পর্যন্ত টুর্নামেন্টে ১৩ উইকেট নিয়ে সর্বোচ্চ উইকেট শিকারী ছিলেন; ইকোনমি ছিলো ৫.৯১।
 
পার্থের হয়ে আর না খেলা সম্পর্কে মিশেল জনসন বলেছেন, ‘আমি পার্থের নতুন কোচ অ্যাডাম ভোজেসের সাথে বসেছিলাম। তিনি তখন আমাকে আগামী গ্রীষ্মেও খেলার জন্য অনুরোধ করেছিলেন। আমিও বিশ্বকাপ করেছিলাম, আমার অভিজ্ঞতা দিয়ে কিছু উপকার করতে পারবো; কিন্তু মানসিক ও শারীরিকভাবে আমি শেষ হয়ে গেছি।’
 
অবসরের পর কী করবেন, এই কথা বলতে গিয়ে জনসন ইঙ্গিত দিয়েছেন, তিনি হয়তো কোচিংই করাবেন। জনসন লিখেছেন, ‘আমার প্রতিযোগিতামূলক মানসিকতা আমাকে ছেড়ে যায়নি। আমি হয়তো কোচিং বা মেন্টরিংয়ের মতো কোনো একটা ব্যাপার দিয়ে ক্রিকেটের সাথে ভবিষ্যতে জড়িয়ে থাকতে চাইবো।’
 
ইত্তেফাক/কেআই 
এই পাতার আরো খবর -
সর্বশেষ
সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
২৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং
ফজর৪:৩৩
যোহর১১:৫২
আসর৪:১৩
মাগরিব৫:৫৭
এশা৭:১০
সূর্যোদয় - ৫:৪৭সূর্যাস্ত - ০৫:৫২