খেলাধুলা | The Daily Ittefaq

১৬২ রানেই গুটিয়ে গেল পাকিস্তান

১৬২ রানেই গুটিয়ে গেল পাকিস্তান
অনলাইন ডেস্ক১৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং ২০:৪০ মিঃ
১৬২ রানেই গুটিয়ে গেল পাকিস্তান
হংকং যেভাবে নাকানি-চুবানি দিল ভারতের বোলারদের, তার কিছুই পারল না পাকিস্তান। উল্টো ব্যাটিং ব্যর্থতায় দলটি অলআউট হয়ে গেল মাত্র ১৬২ রানে। এশিয়া কাপের সবচেয়ে হাইভোল্টেজ ম্যাচটিই কি না শুরুতেই ম্যারম্যারে হয়ে গেল। 
 
বুধবার বিকেলে পাকিস্তানের হোম ভেন্যু হিসেবে পরিচিত দুবাইতে টস জিতে শুরুতে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয় পাকিস্তান। ব্যাটিংয়ে নেমে মাত্র ৩ রানে দুই উইকেট হারিয়ে চাপে পড়ে তারা। দুই ওপেনার ইমাম-উল হক ও ফখর জামান ফিরে যান। 
 
বাবর আজম ও শোয়েব মালিক তৃতীয় উইকেট জুটিতে সেই চাপ খানিকটা কাটিয়ে ওঠতে সক্ষম হয়েছিলেন। তবে দলীয় ৮৫ রানে বাবর আউট হওয়ার পর চিত্র পাল্টে যায়। এরপর থেকে ব্যাটসম্যানরা একের পর এক ব্যর্থতার গল্পটা দীর্ঘ করতে থাকে। ১২১ রানের মধ্যে সাত উইকেট হারিয়ে ব্যাটিং বিপর্যয়ে পড়ে পাকিস্তান। দলীয় স্কোরে ৩৬ রান যোগ হতেই একে একে তাকে অনুসরণ করেন সরফরাজ আহমেদ, শোয়েব মালিক, আসিফ আলী ও শাদাব খান। এদের মধ্যে বাবর আজম (৪৭) ও শোয়েব মালিক (৪৩) ছাড়া কেউ দুই অঙ্ক ছূঁতে পারেননি। 
 
এরপর মোহাম্মদ আমির ফাহিম আশরাফ কিছুটা প্রতিরোধ গড়ার চেষ্টা করেন। অষ্টম উইকেটে ৩৭ রান করায় দেড়শ’ পার করতে সক্ষম হয় পাকিস্তান। দলীয় ১৫৮ রানে ফাহিম (২১) আউট হয়ে যান। এরপর আর ৪ রান যোগ হতেই ফিরে যান নতুন দুই ব্যাটসম্যান হাসান আলী ও ওসমান খান। হাসান ১ রান করলেও ওসমান রানের খাতা খুলতে পারেননি। আর আমির ১৮ রানে অপরাজিত থাকেন।  
এটি এশিয়া কাপের ‘এ’ গ্রুপের শেষ ম্যাচ। এই গ্রুপ থেকে ভারত ও পাকিস্তান উভয় দলই সুপার ফোর নিশ্চিত করেছে। দুই ম্যাচ হেরে বিদায় হয়ে গেছে হংকংয়ের। 
 
এশিয়া কাপে ভারত ও পাকিস্তান মোট ১২ বার মুখোমুখি হয়েছে। ছয়বার জিতেছে ভারত। হেরেছে পাঁচবার। অন্য দিকে পাকিস্তান চ্যাম্পিয়ন হয়েছে দুবার।
 
গ্রুপপর্বের শেষ ম্যাচে আগামীকাল বৃহস্পতিবার বাংলাদেশ মুখোমুখি হবে আফগানিস্তানের। ‘বি’ গ্রুপ থেকে বাংলাদেশ ও আফগানিস্তান উভয়েই সুপার ফোর নিশ্চিত করেছে। বিদায় নিয়েছে শ্রীলঙ্কা।  
 
ইত্তেফাক/কেআই 
 
এই পাতার আরো খবর -
সর্বশেষ
সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
১৯ অক্টোবর, ২০১৮ ইং
ফজর৪:৪২
যোহর১১:৪৪
আসর৩:৫২
মাগরিব৫:৩৩
এশা৬:৪৪
সূর্যোদয় - ৫:৫৭সূর্যাস্ত - ০৫:২৮