ঢাকা বৃহস্পতিবার, ২১ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ৯ ফাল্গুন ১৪২৫
২৭ °সে

‘এমবাপ্পে হবেন নতুন পেলে’

‘এমবাপ্পে হবেন নতুন পেলে’
কিলিয়ান এমবাপ্পে

বিশ্ব ফুটবলে সর্বকালের অন্যতম সেরা ফুটবলার হিসেবে সবসময়ই বিবেচনা করা হয় ‘কালোমানিক’ খ্যাত পেলেকে। স্বল্প সময়ের ক্যারিয়ার দিয়েই অনেকের বিবেচনাতেই ফরাসী তারকা কিলিয়ান এমবাপ্পে হলেন আগামী দিনের পেলে। ব্রাজিলিয়ান কিংবদন্তী পেলেও বলেছেন এই তরুণের মধ্যে যে ধরনের গুণাবলি আছে তাতে তার সমকক্ষ হতে খুব বেশিদিন লাগবে না।

ব্রাজিলের হয়ে তিনটি বিশ্বকাপ জয় পেলেকে নিয়ে গেছে এক অনন্য উচ্চতায়। একইসাথে তার নেতৃত্বে সান্তোস ছয়টি ব্রাজিলিয়ান লিগ শিরোপা ছাড়াও দুটি কোপা লিবারতোদোরেস শিরোপা জিতেছে। ১৯৭৭ সালে পেলের বর্ণাঢ্য ফুটবলীয় ক্যারিয়ার শেষ হয়। এমবাপ্পে টিন এজার হিসেবে বিশ্বকাপের নকআউট পর্বে একাধিক গোল করে ছুঁয়েছেন পেলেকে। এমনকি টিন এজার হিসেবে বিশ্বকাপের ফাইনালে গোল করার কীর্তিও পেলে আর এমবাপ্পে বাদে আর কারো নেই।

৭৮ বছর বয়সী এই ফুটবলীয় কিংবদন্তীর সমতুল্য হতে হলে ফরাসি তারকা এমবাপ্পেকে এখনো অনেক পথ পাড়ি দিতে হবে। কিন্তু রাশিয়া বিশ্বকাপে তার নেতৃত্বে যেভাবে ফ্রান্স বিশ্বকাপ জয় করেছে তাতে অনেকেই তার মধ্যে সাবেক তারকাদের ছায়া দেখতে পাচ্ছেন। ১৯৫৮ সালে টিনএজার হিসেবে পেলে ব্রাজিলের হয়ে প্রথম বিশ্বকাপ জয় করেছিলেন। সেই স্মৃতি স্মরণ করে পেলে বলেন, ‘এমবাপ্পে ১৯ বছর বয়সে বিশ্বকাপ জয় করেছে। আমি যখন প্রথম বিশ্বকাপ জিতেছি তখন আমার বয়স ছিল মাত্র ১৭। আমি বিশ্বাস করি সে নতুন পেলে হিসেবে আবির্ভূত হবে। অনেকেই হয়ত মনে করতে পারে আমি উপহাস করে একথা বলছি, মোটেই না। এটা কোনো কৌতুক নয়।’

ব্রাজিলিয়ান অধিনায়ক নেইমারকে ছাপিয়ে ইতোমধ্যেই এমবাপ্পে প্যারিস সেইন্ট জার্মেইনের (পিএসজি) অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ খেলোয়াড়ে পরিণত হয়েছেন। বিশ্বকাপের মঞ্চে চার গোল করা এই ফুটবলার চলতি মৌসুমে পিএসজির হয়ে ২৩ ম্যাচে করেন ১৭ গোল। এদিকে নেইমারকে ঘিরে গুঞ্জন প্রতিনিয়ত বাড়ছে। শোনা যাচ্ছে, তিনি হয়তো দ্রুতই বার্সেলোনায় ফিরবেন। এমনও দাবি আছে যে রিয়াল মাদ্রিদও হতে পারে নেইমারের আগামীর ঠিকানা। সে কারণেই হয়তবা কিছুটা হলেও নেইমারের থেকে দৃষ্টি সরে যাচ্ছে পিএসজি সমর্থকদের। পার্ক ডি প্রিন্সেসে বিশ্বের সবচেয়ে দামি খেলোয়াড় হিসেবে নেইমার আসার পর থেকে মাঝে মাঝেই ইনজুরির কারণে সমস্যায় পড়েছেন। তবে পেলে এসব বিষয় মোটেই আমলে না নিয়ে বললেন, ‘একজন বাবা কখনই সমালোচনা করতে পারে না, সে উপদেশ দিতে পারে। সে সান্তোসের ছেলে। আমি তার কাছ থেকে জাতীয় দলের জন্য সেরাটাই প্রত্যাশা করবো। এজন্য তাকে যেকোনো ধরনের সহযোগিতা করতে আমি প্রস্তুত আছি।’

এদিকে অসুস্থ আর্জেন্টাইন তারকা ডিয়েগো ম্যারাডোনার দ্রুত সুস্থতা কামনায় শুভকামনা জানিয়েছেন পেলে। টুইটারে পেলে লিখেছেন- ‘দিয়েগো, আমি কখনই ১০ নম্বর ক্লাবের কোনো সদস্যকে অসুস্থ দেখাটা পছন্দ করি না। বন্ধু, আশা করছি তুমি দ্রুতই সুস্থ হয়ে উঠবে।’

আরও পড়ুন: সমুদ্র সবচেয়ে উত্তপ্ত ছিল ২০১৮ সালে​

বুয়েন্স আয়ার্সে ৫৮ বছর বয়সী ম্যারাডোনার পেটে গত সপ্তাহে সফল অস্ত্রোপচার সম্পন্ন হয়েছে। পেটের সমস্যা নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন আর্জেন্টাইন সুপারস্টার। সাবেক এই নাপোলি তারকা পরবর্তীতে ইনস্টাগ্রামে সফল অস্ত্রোপচার সম্পন্ন হওয়ায় মেডিক্যাল স্টাফদের ধন্যবাদ জানিয়েছেন। বর্তমানে মেক্সিকান ক্লাব ডোরাডসের কোচের দায়িত্বে নিয়োজিত আছেন ম্যারাডোনা।

ইত্তেফাক/আরকেজি

এই পাতার আরো খবর -
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
prayer-time
২১ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯
আর্কাইভ
বেটা
ভার্সন