নিউজিল্যান্ডে বিপক্ষে বুধবার মাঠে নামছে বাংলাদেশ

প্রকাশ : ১২ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ০৮:০৭ | অনলাইন সংস্করণ

  স্পোর্টস রিপোর্টার

বাংলাদেশ দলের খেলোয়াড়রা। ফাইল ছবি

উপমহাদেশীয় দলগুলোর জন্য নিউজিল্যান্ড সফর সব সময়ই চ্যালেঞ্জিং। এবার সেই চ্যালেঞ্জের সামনে দাঁড়িয়ে আছে বাংলাদেশ। আগামীকাল বুধবার থেকে এই নিউজিল্যান্ডেই তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ খেলতে মাঠে নামবে মাশরাফি বিন মুর্তজার দল।

 

আগামীকাল প্রথম ওয়ানডে ম্যাচটি অনুষ্ঠিত হবে নেপিয়ারের ম্যাকলিন পার্কে। ম্যাচটি শুরু হবে বাংলাদেশ সময় সকাল সাতটায়। সিরিজটা যে বাংলাদেশের জন্য মোটেই সহজ হবে না, তারই আগাম সতর্ক বার্তা দিলেন নিউজিল্যান্ডের সাবেক পেসার ও ধারাভাষ্যকার ড্যানি মরিসন।

 

ক্রিকেট বিষয়ক গণমাধ্যম ক্রিকবাজকে ড্যানি মরিসন বলেন, ‘নিউজিল্যান্ড খেলতে গেলে সব সময়ই ধৈর্য্য ধরতে পারাটা খুব জরুরি। নিউজিল্যান্ডের কন্ডিশন বাকিদের চেয়ে একদমই আলাদা। এমনকি বড় বড় দলগুলোও ওখানে চাপের মুখে পড়ে।’

 

ড্যানি মরিসন অবশ্য ভরসা পাচ্ছেন বাংলাদেশের পেস বোলিং বিভাগে। তিনি বলেন, ‘নিউজিল্যান্ডে বোলারদের লাইন লেংথ ঠিক রেখে বোলিং করার কোনো বিকল্প নেই। ওখানকার ব্যাটনস্যানদের বিপক্ষে ধৈর্য্য ধরে বোলিং করতে পারলে সাফল্য সম্ভব। আমার মনে হয় নিউজিল্যান্ডে বাংলাদেশের পেসাররা উপভোগ করবে। মুস্তাফিজ, রুবেলদের সুযোগটা কাজে লাগানো উচিত।’

আরো পড়ুন : সুইডিশ ফুটবল অধিনায়কের ইসলাম গ্রহণ

ওয়ানডে সিরিজ শেষে আগামী ২৮ ফেব্রুয়ারি থেকে দু’দলের মধ্যে শুরু হবে তিন ম্যাচের টেস্ট সিরিজ। এর মধ্য দিয়ে ২০১৪ সালের পর আবারো কোনো দলের বিরুদ্ধে তিন ম্যাচের টেস্ট সিরিজ খেলবে বাংলাদেশ। আগেরটি ছিল জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে দেশের মাটিতে।

 

বাংলাদেশ নিজেদের ১৮ বছরের টেস্ট ক্রিকেট জমানায় মাত্র তিন বার তিন ম্যাচের টেস্ট সিরিজ খেলতে পেরেছেন। এর মধ্যে ভিনদেশের মাটিতে তিন ম্যাচের টেস্ট সিরিজ খেলেছে দু’বার। প্রথমটি ২০০৩ সালে পাকিস্তানের বিপক্ষে। দ্বিতীয়টি ২০০৭ সালে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে। এর অর্থ হল প্রায় এক যুগ পর বিদেশের মাটিতে তিন ম্যাচের টেস্ট সিরিজ খেলতে যাচ্ছে বাংলাদেশ দল।

 

ইত্তেফাক/ইউবি