অর্থনীতি | The Daily Ittefaq

‘বাজেটে ব্যাংকিং খাতে বিশেষ নজরদারির কৌশল থাকতে হবে’

প্রাক-বাজেট আলোচনায় এমসিসিআই
‘বাজেটে ব্যাংকিং খাতে বিশেষ নজরদারির কৌশল থাকতে হবে’
ইত্তেফাক রিপোর্ট০৮ এপ্রিল, ২০১৮ ইং ১৯:৪৮ মিঃ
‘বাজেটে ব্যাংকিং খাতে বিশেষ নজরদারির কৌশল থাকতে হবে’
ফাইল ছবি
আসছে বাজেটে ব্যাংকিং খাতে বিশেষ নজরদারির কৌশল প্রণয়নসহ বড় করদাতাদের কাছ থেকে অগ্রিম কর আদায় বন্ধ, নতুন ভ্যাট আইনের বিধিমালা বাস্তবাায়নের তাগিদ দিয়েছে মেট্রোপলিটন চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রি (এমসিসিআই)। সংগঠনটির মতে গ্যাস-বিদ্যুতের স্বল্পতা শিল্পোন্নয়ন ও অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি অর্জনের পথে বড় বাধা হয়ে দাঁড়িয়েছে। এ চলমান সংকট মোকাবিলায় আগামী বছর ‘বিচক্ষণ’ বাজেট প্রণয়নের পরামর্শও দেওয়া হয়েছে। 
 
রবিবার জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) সম্মেলন কক্ষে প্রাক-বাজেট আলোচনায় অংশ নিয়ে এসব পরামর্শ দিয়েছে এমসিসিআই নেতৃবৃন্দ। এনবিআর চেয়ারম্যান মোশাররফ হোসেন ভূঁইয়ার সভাপতিত্বে এমসিসিআই’র পক্ষ থেকে বাজেট প্রস্তাব তুলে ধরেন সংগঠনটির সহ-সভাপতি গোলাম মাইনুদ্দিন।
 
সামষ্টিক অর্থনীতির চিত্র তুলে ধরে এমসিসিআই’র পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, অর্থনীতির ক্ষেত্রে বেশ কিছু সমস্যা আছে। এগুলো সমাধান করা না হলে আগামী অর্থবছরে ৮ ভাগ প্রবৃদ্ধি অর্জন ব্যাহত হবে। উচ্চ মূল্যস্ফীতির প্রবণতা একটি অন্যতম চ্যালেঞ্জ। এছাড়া সরাসরি বিদেশি বিনিয়োগ (এফডিআই) উল্লেখযোগ্য বাড়ছে না। ভৌত অবকাঠামোগত দুর্বলতা রয়েছে। গ্যাস-বিদ্যুতের স্বল্পতা শিল্পোন্নয়ন ও অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি অর্জনের পথে বড় বাধা হয়ে দাঁড়িয়েছে। 
 
এমসিসিআই’র মতে, ব্যাংক ব্যবস্থাপনার দিকে সরকারকে নজর দিতে হবে। বর্তমানে সব ব্যাংকই তারল্য সংকটে ভুগছে। এ অবস্থা থেকে ব্যাংকগুলোকে উত্তরণ না ঘটাতে পারলে বড় সমস্যায় পড়তে হবে। তাই এবাবের বাজেটে ব্যাংক খাতের প্রতি বিশেষ নজর দিতে হবে। ব্যক্তিশ্রেণীর করমুক্ত আয়ের সীমা বাড়িয়ে ৪ লাখ করার প্রস্তাব করা হয়। এমসিসিআইর মতে আগামী বাজেটে শিল্প ও কৃষি খাতের অবকাঠামো ও সামাজিক নিরাপত্তা বেষ্টনীর জন্য শক্ত নীতি প্যাকেজ থাকতে হবে। বিদ্যুৎ খাতের জন্য উদার বরাদ্দ রাখা উচিত।
 
আলোচনায় উপস্থিত ছিলেন এসিআই’র চেয়ারম্যান আনিস উদ দৌলা, এমসিসিআই’র ট্যারিফ, ট্যাক্সেশন কমিটির চেয়ারম্যান হাসান মাহমুদ, শুল্কনীতির সদস্য ফিরোজ শাহ আলম, ভ্যাট নীতির সদস্য রেজাউল হাসান, আয়কর নীতির সদস্য কানন কুমার রায় প্রমুখ। কর্পোরেট কর হার হ্রাস সহ বিভিন্ন প্রস্তাব দেওয়া হয় এমএসিসিআইর পক্ষ থেকে।
 
৩ বছর কর অবকাশ সুবিধা চায় নারী উদ্যোক্তারা: এর আগে সকালে ভারত-বাংলাদেশ চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রি (আইবিসিসিআই) ও বাংলাদেশ উইমেন চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির (বিডবি¬উসিসিআই) সঙ্গে প্রাক-বাজেট আলোচনা অনুষ্ঠিত হয়। এতে নারী উদ্যোক্তারা ব্যবসা শুরুর প্রথম ৩ বছর কর অবকাশ সুবিধা দেয়ার দাবি জানিয়ে নারী উদ্যোক্তারা বলেন, এ সুবিধা দেওয়া হলে সব শ্রেণীর নারী উদ্যোক্তারা সমানতালে এগিয়ে যেতে পারবেন। এছাড়া নারীদের করমুক্ত আয় সীমা চার লাখ টাকা করার প্রস্তব দিয়েছে বিডব্লিউসিসিআই। পাশাপাশি সরকার ঘোষিত থোক বরাদ্ধ ১০০ কোটি টাকা চলমান রাখা, নারী উদ্যোক্তাদের ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠানের বার্ষিক বিক্রয়ের পরিমাণ ৫০ লাখ টাকা পর্যন্ত ভ্যাট ও ট্যাক্স মওকুফ করা এবং নারী উদ্যোক্তা কর্তৃক ও নারী উদ্যোক্তাদের জন্য আমদানিকৃত মেশিনারির ওপর কর মওকুফের প্রস্তাব দেওয়া হয়।
 
ইত্তেফাক/এমআই
 
এই পাতার আরো খবর -
সর্বশেষ
সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
২৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং
ফজর৪:৩৩
যোহর১১:৫১
আসর৪:১২
মাগরিব৫:৫৫
এশা৭:০৮
সূর্যোদয় - ৫:৪৮সূর্যাস্ত - ০৫:৫০