অর্থনীতি | The Daily Ittefaq

বাজেট আলোচনায় ব্যাংকিং খাতের কর কমানোর সমালোচনা

বাজেট আলোচনায় ব্যাংকিং খাতের কর কমানোর সমালোচনা
ইত্তেফাক রিপোর্ট১৩ জুন, ২০১৮ ইং ০৪:৪৫ মিঃ
বাজেট আলোচনায় ব্যাংকিং খাতের কর কমানোর সমালোচনা
২০১৮-১৯ অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেটের ওপর সংসদে গতকাল মঙ্গলবার থেকে আলোচনা শুরু হয়েছে। প্রথমদিনেই ব্যাংক খাতে লুটপাটের মধ্যে ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানের করপোরেট কর কমানোর প্রস্তাবের জন্য অর্থমন্ত্রীর সমালোচনা করেছেন তিনজন সংসদ সদস্য।
 
ব্যাংকের করপোরেট কর আড়াই শতাংশ না কমিয়ে ১ শতাংশ কমানোর প্রস্তাব করেন তাদের কেউ কেউ। এর আগে রবি ও সোমবার ২০১৭-১৮ অর্থবছরের সম্পূরক বাজেটের ওপর দুই দিনের আলোচনায়ও সমালোচনার মুখে পড়েছিলেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত। অবশ্য গতকাল একজন স্বতন্ত্র সংসদ সদস্য পয়েন্ট অব অর্ডারে অর্থমন্ত্রীর পক্ষে কথা বলেছেন।
 
অর্থমন্ত্রীর উপস্থিতিতে তার উদ্দেশে বাংলাদেশ জাসদের সাধারণ সম্পাদক নাজমুল হক প্রধান বলেন, ব্যবসায়ীরা লাখ লাখ টাকা লুট করে নিয়ে যাচ্ছেন। আবার ব্যাংককে টাকা দেয়া হচ্ছে। একবার ভর্তুকি দেয়া হচ্ছে, একবার করের ছাড় দেয়া হচ্ছে। একটা সিদ্ধান্ত নিতে হবে। এভাবে হয়তো ব্যাংক রক্ষা করা যাবে, কিন্তু অর্থনৈতিক উন্নয়নের লক্ষ্য পূরণ হবে না। বিরোধী দল জাতীয় পার্টির (জাপা) এমপি মোহাম্মদ নোমান বলেন, আমরা ছোটবেলায় ডাব খেতাম, রস খেতাম। তখন বলত চুরি করেছি। আর এখন হাজার হাজার কোটি টাকা লুট হচ্ছে, অথচ লুট বলা যাবে না।
 
ব্যাংকের করপোরেট কর কমানোর প্রস্তাবের সমালোচনা করে জাপার ব্যারিস্টার শামীম হায়দার পাটোয়ারি বলেন, ব্যাংক খাতে যে লুট হয়েছে, নাদির শাহের দিল্লি লুটের সময়ও এত টাকা লুট হয়নি। বাজেটের ওপর আলোচনা শুরু হওয়ার আগে স্বতন্ত্র সংসদ সদস্য তাহজীব আলম সিদ্দিকী পয়েন্ট অব অর্ডারে অর্থমন্ত্রীর পক্ষ নিয়ে বলেন, ব্যাংক খাত সত্যিকার অর্থে যতটা নাজুক পরিস্থিতির মধ্য দিয়ে যাচ্ছে, তার চেয়ে বেশি কিছু অযাচিত মন্তব্য এই খাতকে আরো অস্থিতিশীল করছে।
এই পাতার আরো খবর -
সর্বশেষ
সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
১৬ অক্টোবর, ২০১৮ ইং
ফজর৪:৪১
যোহর১১:৪৫
আসর৩:৫৪
মাগরিব৫:৩৫
এশা৬:৪৭
সূর্যোদয় - ৫:৫৭সূর্যাস্ত - ০৫:৩০