সারাদেশ | The Daily Ittefaq

সাকিবকে রংপুরে এনে নির্বাচনী প্রচারণায় এমপি পুত্র রাশেক রহমান

সাকিবকে রংপুরে এনে নির্বাচনী প্রচারণায় এমপি পুত্র রাশেক রহমান
ওয়াদুদ আলী, রংপুর প্রতিনিধি১৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৭ ইং ২৩:৪৩ মিঃ
সাকিবকে রংপুরে এনে নির্বাচনী প্রচারণায় এমপি পুত্র রাশেক রহমান

যুব সমাজকে সন্ত্রাস ও মাদকমুক্ত রংপুর গঠনে উদ্বুদ্ধকরণ এবং তাদেরকে খেলাধুলা ও শরীরচর্চার প্রতি আকৃষ্টকরণের ঘোষণা দিয়ে ব্যাপক প্রচার-প্রচারণা চালিয়ে বিশ্ব সেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসানকে আনা হয়েছিল রংপুরে। কিন্তু একে সিটি করপোরেশনের মেয়র পদে মনোনয়ন পাওয়ার কৌশল হিসেবে ব্যবহার করেন আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় উপ-কমিটির সাবেক সহ-সম্পাদক ও মিঠাপুকুর উপজেলার আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক রাশেক রহমান। এর আগে তিনি বিশিষ্ট কণ্ঠশিল্পী মমতাজ এমপি, কণ্ঠশিল্পী আঁখি আলমগীরকে রংপুরে এনে তার পক্ষে প্রচারণা চালানোর জন্য ব্যবহার করেছিলেন।

গত ৩০ আগস্ট দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গের অভিযোগে রাশেক রহমানকে কারণ দর্শানোর নোটিশ দেওয়া হয়েছিল।

এদিকে রংপুর আওয়ামী লীগের কতিপয় নেতা, মহানগর ছাত্রলীগের একাংশ, কয়েকজন চিকিত্সকের নামে রাশেক রহমানকে মেয়র পদে দেখতে চাই লেখা বিলবোর্ড ও ব্যানার ফেস্টুন মহানগরীতে টাঙ্গানো হয়েছে। এ নিয়ে দলের অভ্যন্তরে চরম অসন্তোষ ও ক্ষোভ বিরাজ করছে। এ অবস্থায় গত মঙ্গলবার বিকালে হেলিকপ্টার করে জাতীয় দলের অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসানকে নিয়ে আসেন রাশেক রহমান। গতকাল বুধবার সকালে রংপুর বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ে এবং বিকালে রংপুর স্টেডিয়ামে কর্মশালা অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা থাকলেও শেষ পর্যন্ত কোনো কর্মশালা হয়নি। বরং সাকিব আল হাসান রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ে রাশেক রহমানের গুণকীর্তণ করে বলেন, তিনি কথা দিয়ে কথা রাখেন। আপনারা তার জন্য দোয়া করবেন। উনি রংপুর জেলাকে অনেক দূরে নিয়ে যেতে পারবেন। তিনি আরো বলেন, আমি আগে কখনো রংপুরে আসিনি। প্রথমবারে এসেই আপনাদের ভালোবাসায় অভিভুত। ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়তে হবে।

ওই সময় রাশেক রহমান বলেন, তাকে রংপুর সিটি কর্পোরেশনের মেয়র পদে মনোনয়ন দেওয়া হলে আধুনিক রংপুর গড়বেন। অনুষ্ঠানে বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি ড. নাকমুল আহসান কলিমউল্লাহ উপস্থিত ছিলেন।

বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ে ক্রিকেট কর্মশালা অনুষ্ঠিত হবে বলে গত প্রায় এক সপ্তাহ ধরে রংপুরে চলে জোর প্রচারণা। প্রিয় তারকাকে দেখতে মাঠে হাজির হয় কয়েক হাজার দর্শক।

এ ব্যাপারে রাশেক রহমান বলেন, রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের  ধারণ  ক্ষমতার চেয়ে বেশি তরুণ-তরুণী উপস্থিত  হওয়ায় কর্মশালা করা সম্ভব হয়নি। সাকিব আল হাসান, কণ্ঠশিল্পী  মমতাজ, কণ্ঠশিল্পী আখি আলমগীরকে রংপুরে এনে তার পক্ষে রাজনৈতিক প্রসঙ্গে তিনি বলেন, তারা আমার বন্ধু মানুষ, শুভাকাঙ্খী। তাই তারা আমার পক্ষে কথা বলতে পারেন। আমি রংপুরের তরুণ প্রজন্মকে উজ্জীবিত করতে এই জাতীয় কাজ করছি। রাজনৈতিক কারণে আমি তাদেরকে ব্যবহার করছি না। দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গের অভিযোগে শোকজ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, আমাকে ৩০ আগস্ট শোকজ করা হয়েছিল। কিন্তু সেখানে কোনো কারণ উল্লেখ করা হয়নি।

বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির সভাপতি তুহিন ওয়াদুদ বলেন, বিশ্ববিদ্যালয় একটি উচ্চ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। এই শিক্ষা প্রতিষ্ঠানকে কেউ যাতে ব্যক্তিগত স্বার্থে ব্যবহার করতে না পারে এবং মর্যাদা ক্ষুন্ন না হয় সেজন্য আমরা সংশ্লিষ্ট সকলকে সচেতন থাকার আহ্বান জানাই। উল্লেখ্য, রাশেক রংপুর-৫ আসনের সংসদ সদস্য এইচএন আশিকুর রহমানের ছেলে। তিনি আসন্ন রংপুর সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে আওয়ামীলীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী।

ইত্তেফাক নূহু

এই পাতার আরো খবর -
সর্বশেষ
সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
২৫ নভেম্বর, ২০১৭ ইং
ফজর৫:০১
যোহর১১:৪৬
আসর৩:৩৫
মাগরিব৫:১৪
এশা৬:৩০
সূর্যোদয় - ৬:২০সূর্যাস্ত - ০৫:০৯