সারাদেশ | The Daily Ittefaq

'রসিক নির্বাচনে সেনা মোতায়েনের প্রয়োজন নেই'

'রসিক নির্বাচনে সেনা মোতায়েনের প্রয়োজন নেই'
রংপুর প্রতিনিধি০৭ ডিসেম্বর, ২০১৭ ইং ১৫:৩৫ মিঃ
'রসিক নির্বাচনে সেনা মোতায়েনের প্রয়োজন নেই'
 
রংপুর সিটি কর্পোরেশন (রসিক) নির্বাচনে সেনাবাহিনী মোতায়েনের প্রয়োজন নেই বলে জানিয়েছেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার একেএম নূরুল হুদা। আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে রংপুর বিভাগীয় কমিশনার কাজী হাসান আহমেদের সভাপতিত্বে রংপুর সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন-২০১৭ উপলক্ষে আইন-শৃঙ্খলা ও নির্বাচন সংশ্লিষ্ট অন্যান্য বিষয়ে আলোচনা সভা শেষে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি এ কথা জানান।
 
তিনি বলেন, 'নির্বাচন সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ করতে প্রতিটি কেন্দ্রে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর ২২ থেকে ২৩ জন করে সদস্য নিয়োজিত থাকবেন। উৎসবমুখর পরিবেশে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। এজন্য সকল প্রস্তুতি প্রায় সম্পন্ন।'
 
রংপুর সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে কালো টাকার ব্যবহার হলে প্রশাসনিকভাবে তার বিরুদ্ধে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলে জানিয়ে প্রধান নির্বাচন কমিশনার বলেন, 'আমাদের গোয়েন্দা সংস্থা এ বিষয়ে নজরদারি করছে। নির্বাচনে কোনো প্রার্থীর পক্ষে কালো টাকা ব্যবহারের তথ্য পেলে প্রশাসনিকভাবে তাদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।'
 
তিনি বলেন, 'প্রার্থীদের আচরণবিধি পর্যবেক্ষণে ২২ জন ম্যাজিস্ট্রেট কাজ করলেও আগামীকাল শুক্রবার থেকে ৩৩ জন ম্যাজিস্ট্রেট মাঠ পর্যায়ে কাজ করবেন।' নির্বাচনের আগে এ সংখ্যা আরো বৃদ্ধি করা হবে বলেও তিনি জানান। সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচন নিয়ে বিএনপি প্রার্থীর আশঙ্কার বিষয়ে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে প্রধান নির্বাচন কমিশনার বলেন, 'বিএনপি প্রার্থীর এ অভিযোগ সঠিক না। অবশ্যই নির্বাচন সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ হবে। এজন্য আমরা বদ্ধপরিকর। নির্বাচনে ৪ স্তরের নিরাপত্তা ব্যবস্থা থাকবে।'
 
বিএনপি নেতাকর্মীদের বাড়িতে বাড়িতে পুলিশ তল্লাশি চালানো হচ্ছে এটা রাজনৈতিক উদ্দেশ্যে কি না সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে নির্বাচন কমিশনার বলেন, 'বিএনপি নেতাকর্মী নয়, কারো বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা থাকলে পুলিশ অবশ্যই তাদের গ্রেফতারে অভিযান চালাবে। এটা কোন রাজনৈতিক উদ্দেশ্যে নয়।' তিনি বলেন, 'ভোটাররা চাইলে একটি কেন্দ্রে ডিভিএম ব্যবহার করা হবে। এছাড়া কয়েকটি কেন্দ্রে সিসি ক্যামেরাও বসানো হবে।'
 
রংপুর বিভাগীয় কমিশনারের সভা কক্ষে আয়োজিত আলোচনা সভায় বিশেষ অতিথি ছিলেন নির্বাচন কমিশন সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ। সভায় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন- পুলিশের রংপুর রেঞ্জের ডিআইজি খন্দকার গোলাম ফারুক বিপিএম, পিপিএম, পুলিশ সপুার মিজানুর রহমান পিপিএম, রিটার্নিং ও রংপুর আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা সুভাষ চন্দ্র সরকার, জেলা ও বিভাগীয় প্রশাসনের বিভিন্ন কর্মকর্তাসহ অন্যান্য আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। বিকেলে রংপুর জিলা স্কুল অডিটোরিয়ামে রংপুর সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনের মেয়র, কাউন্সিলর ও সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর প্রার্থীদের সঙ্গে মতবিনিময় করবেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার একেএম নূরুল হুদা।
 
ইত্তেফাক/জামান
এই পাতার আরো খবর -
সর্বশেষ
সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
১৫ নভেম্বর, ২০১৭ ইং
ফজর৫:১২
যোহর১১:৫৪
আসর৩:৩৮
মাগরিব৫:১৭
এশা৬:৩৫
সূর্যোদয় - ৬:৩৩সূর্যাস্ত - ০৫:১২