সারাদেশ | The Daily Ittefaq

নাটোরে চার জেএমবি সদস্য আটক

নাটোরে চার জেএমবি সদস্য আটক
অনলাইন ডেস্ক১৩ মার্চ, ২০১৮ ইং ১৩:১৩ মিঃ
নাটোরে চার জেএমবি সদস্য আটক
 
সদর উপজেলার দিঘাপতিয়া এলাকায় একটি জঙ্গি আস্তানায় আজ ভোরে পুলিশ অভিযান চালিয়ে ৪ জেএমবি সদস্যকে আটক করেছে। এ সময় ওই আস্তানায় তল্লাশি চালিয়ে পাঁচটি হাত বোমা, দুই লিটার পেট্রোল, ৮টি সাংগঠনিক বই, কিছু সিডি, ল্যাপটপ, একটি মোটর সাইকেলসহ বেশ কিছু সরঞ্জামাদি উদ্ধার করা হয়।
 
ভোর চারটার দিকে জঙ্গি আস্তানা সন্দেহে উত্তরা গণভবন সংলগ্ন একটি বাড়ি পুলিশ সুপার বিপ্লব বিজয় তালুকদারের নেতৃত্বে জেলা পুলিশ ও জেলা গোয়েন্দা পুলিশের একটি বিশেষ দল ঘিরে ফেলে। ঐ বাড়িতে থাকা সন্দেহভাজন জঙ্গিদের আত্মসমর্পণের জন্য আহবান জানানো হয়। এতে সাড়া না পেয়ে ভোর সাড়ে ৫ টার দিকে ঐ আস্তানায় অভিযান শুরু করে পুলিশ। এসময় পুলিশ ৯ রাউন্ড ফাঁকা গুলি বর্ষণ করে। প্রায় ১ ঘন্টা পর জঙ্গিরা আত্মসমর্পণ করে।
 
আত্মসমর্পনকারীরা হচ্ছে, জেলার বাগাতিপাড়া উপজেলার চাপাপুকুর গ্রামের মৃত শুকুরের ছেলে শফিকুল ইসলাম (২৪), একই গ্রামের উত্তরপাড়া এলাকার মৃত ভিকু মণ্ডলের ছেলে ফজলুর রহমান ওরফে ফজলু (৩৮), সিংড়া উপজেলার আরকান্দি পশ্চিমপাড়া গ্রামের ইউনুস আলী মিয়ার ছেলে আনিসুর রহমান ওরফে আনিস (৪০) ও নলডাঙ্গা উপজেলার খোলাবাড়িয়া গ্রামের ফজলার রহমানের ছেলে জাকির হোসেন (৩৮)।
 
পুলিশ সুপার বিপ্লব বিজয় তালুকদার জানান, প্রায় মাস খানেক আগে আমির হামজা নামে দিঘাপতিয়া এমকে কলেজের এক ছাত্র ও স্কাউট সদস্য ওই বাড়িটি ভাড়া নেয়। আগে ওই বাড়িতে কেউ থাকতো না। স’ানীয় রফিকুল ইসলাম নামে এক ব্যক্তি বাড়িটি দেখাশুনা করতেন।তার কাছ থেকে বাড়িটি ভাড়া নিয়েছিলেন আমির হামজা। সেখান থেকে বিভিন্ন নাশকতার পরিকল্পনা করছিলেন তারা।
 
তিনি আরো বলেন বলেন, অভিযানকালে আমির হামজাকে পাওয়া যায়নি। ধারনা করা হচ্ছে পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে আমির হামজাসহ আরো জঙ্গি পালিয়ে গেছে। তবে আটক জঙ্গিদের কাছ থেকে তথ্য উদঘাটনে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।
 

ইত্তেফাক/এএম

এই পাতার আরো খবর -
সর্বশেষ
সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
২১ জুন, ২০১৮ ইং
ফজর৩:৪৩
যোহর১২:০০
আসর৪:৪০
মাগরিব৬:৫১
এশা৮:১৬
সূর্যোদয় - ৫:১১সূর্যাস্ত - ০৬:৪৬