সারাদেশ | The Daily Ittefaq

রাসিক নির্বাচনে জামায়াতের নিরবতায় বেকায়দায় বিএনপি

রাসিক নির্বাচনে জামায়াতের নিরবতায় বেকায়দায় বিএনপি
রাসিক নির্বাচনে জামায়াতের নিরবতায় বেকায়দায় বিএনপি
রাজশাহী সিটি করপোরেশন (রাসিক) নির্বাচনে বিএনপির মেয়র প্রার্থীর পাশে নেই প্রধান শরিক জামায়াতে ইসলামী। ২০ দলীয় জোটের সভায় রাজশাহীর মেয়র পদে বিএনপি নেতা মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুলকে প্রার্থী ঘোষণা করলেও স্থানীয় জামায়াত নেতারা বলছেন, বিএনপি তাদের ওয়ার্ড কাউন্সিলর প্রার্থীদের এখনো সমর্থন দেয়নি। তাই স্থানীয় জামায়াত নেতারাও বিএনপির মেয়র প্রার্থী বুলবুলকে সমর্থন দেয়নি। তবে বুলবুলের দাবি, পুলিশের ভয়ে তারা নির্বাচনী প্রচারে আসছে না।
 
প্রসঙ্গত, রাসিকের ১৪টি সাধারণ ও ২টি সংরক্ষিত ওয়ার্ডে কাউন্সিলর প্রার্থী দিয়েছে জামায়াতে ইসলামী। স্থানীয় জামায়াতের নেতাকর্মীরা তাদের কাউন্সিলর প্রার্থীদের মাঠে নামলেও কোনোভাবেই বিএনপির মেয়র প্রার্থী বুলবুলের হয়ে মাঠে নামতে চাইছেন না বলে জানিয়েছেন দলটির মহানগর নায়েবে আমির অ্যাডভোকেট আবু ইউসুফ সেলিম।
 
অন্যদিকে ১৪ দলীয় জোটের নেতাকর্মীদের স্বতস্ফুর্ত সমর্থন নিয়ে নির্বাচনী প্রচারণায় নগরীতে ব্যাপক সাড়া জাগিয়েছেন আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন। ইতোমধ্যে লিটনের পক্ষে বিভিন্ন মহল্লার বাসিন্দা, শ্রেণিপেশার মানুষের মধ্যে গণজোয়ার সৃষ্টি হয়েছে। রাজশাহীর উন্নয়নের স্বার্থে বিভিন্ন শ্রেণিপেশার মানুষের পাশাপাশি বিএনপিসহ ২০ দলীয় জোটের নেতাকর্মী গোপনে আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী লিটনের সাথে যোগাযোগ রাখছেন বলে একাধিক অসমর্থিত সূত্রে জানা গেছে। 
 
আওয়ামী লীগ ও বিএনপির পাল্টাপাল্টি অভিযোগ
এদিকে আওয়ামী লীগ ও বিএনপির মেয়র প্রার্থীদের বিরুদ্ধে রিটার্নিং অফিসারকে আচরণ বিধিভঙের পাল্টাপাল্টি অভিযোগ দেয়া হয়েছে। বিএনপির মেয়র প্রার্থী বুলবুলের কর্মী-সমর্থকদের বিরুদ্ধে অপপ্রচার ও সংখ্যালঘু ভোটারদের হুমকির অভিযোগে এবং আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী লিটনের কর্মী-সমর্থকদের বিরুদ্ধে শহরের সব জায়গায় ব্যাপক পোস্টার ও বিলবোর্ড লাগানো এবং বিএনপির মেয়র প্রার্থীর পোস্টার ও লিফলেট সরিয়ে ফেলার অভিযোগ করা হয়েছে।
 
দুই থানার ওসির প্রত্যাহার চায় বিএনপি
অন্যদিকে বিএনপির মেয়র প্রার্থী বুলবুল বৃহস্পতিবার দুপুরে দলীয় কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে নগরীর কাশিয়াডাঙ্গা ও বোয়ালিয়া মডেল থানার ওসিকে প্রত্যাহারের দাবি জানান। এর আগে বুলবুলের প্রধান নির্বাচনী এজেন্ট ও জেলা বিএনপির সভাপতি অ্যাডভোকেট তোফাজ্জল হোসেন তপুর লিখিতভাবে রিটার্নিং অফিসারের ওই দুই থানার ওসিকে প্রত্যাহারের দাবি জানান।
 
লিটনের লিফলেট বিতরণ ও  গণসংযোগ
বেলা ১১টা থেকে দুপুর পর্যন্ত মেয়র প্রার্থী এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন নগরীর আরডিএ মার্কেট, কাপড়পট্টি ও স্বর্ণপট্টিতে গণসংযোগ করেন। বিকেলে নগরীর শহীদ কামারুজ্জামান চত্বর সংলগ্ন মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্সের সামনে থেকে মুক্তিযোদ্ধাদের সঙ্গে নিয়ে প্রচার মিছিলে অংশ নেন। পরে নগরীর গণকপাড়া ও নিউমার্কেটসহ বিভিন্ন এলাকায় গণসংযোগ করেন। এসময় বিভিন্ন দোকানে গিয়ে লিফলেট বিতরণ করেন ও নৌকায় ভোট চান। তিনি বলেন, নৌকা স্বাধীনতার প্রতীক, নৌকা উন্নয়নের প্রতীক, নৌকা রাজশাহীর উন্নয়নের প্রতীক। আমাকে পুনরায় রাজশাহীর মেয়র নির্বাচিত করলে নগরীতে শিল্প-কারখানা গড়ে তুলে লক্ষাধিক ছেলে-মেয়ের কর্মসংস্থানসহ ব্যবসায়ীদের জন্য স্বল্প সুদে ঋণের ব্যবস্থাসহ নগরবাসীর কাঙ্খিত সব উন্নয়ন করবেন।
 
১৬নং ওয়ার্ডে বুলবুলের গণসংযোগ
বিএনপির মেয়র প্রার্থী মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুল বৃহস্পতিবার সকাল ৮টা থেকে ১৬নং ওয়ার্ডে গণসংযোগ করেন। অত্র ওয়ার্ডের বিভিন্ন গলি ও বউ বাজারসহ বাড়িতে যান এবং ধানের শীষের জন্য দোয়া ও ভোট প্রার্থনা করেন।
 
ইত্তেফাক/ইউবি
 

 

এই পাতার আরো খবর -
সর্বশেষ
সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
১৯ জুলাই, ২০১৮ ইং
ফজর৩:৫৭
যোহর১২:০৫
আসর৪:৪৪
মাগরিব৬:৫০
এশা৮:১২
সূর্যোদয় - ৫:২২সূর্যাস্ত - ০৬:৪৫