সারাদেশ | The Daily Ittefaq

মান্দায় ঘুষ না দেওয়ায় বিদ্যুৎ সংযোগ বন্ধ

মান্দায় ঘুষ না দেওয়ায় বিদ্যুৎ সংযোগ বন্ধ
নওগাঁ প্রতিনিধি০৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং ১৬:৫৭ মিঃ
মান্দায় ঘুষ না দেওয়ায় বিদ্যুৎ সংযোগ বন্ধ
নওগাঁর মান্দায় পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির জুনিয়র প্রকৌশলী আব্দুল সালামের দাবিকৃত ২০ হাজার টাকা না দেওয়ায় মিটার সংযোগ বন্ধ রাখার অভিযোগ উঠেছে। মঙ্গলবার দুপুরে মান্দা প্রেসক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলনে উপজেলার পশ্চিম নুরুল্লবাদ গ্রামের ভুক্তভোগী ৬৫ জন গ্রাহক এই অভিযোগ করেন।
 
জানা গেছে, ৫ মাস আগে পশ্চিম নুরুল্লবাদ গ্রামে বিদ্যুতের খুঁটি, তারসহ গ্রাহকদের বাড়ি বাড়ি ড্রপতার টানা হয়। কিন্তু ৫ কেভি’র ৪টি ট্রান্সফর্মার না থাকার অজুহাত দেখিয়ে গ্রাহকদের বিদ্যুৎ সুবিধা থেকে বঞ্চিত রাখা হয়। ঈদের আগে সংযোগের জন্য সমিতির কার্যালয়ে একাধিকবার ধর্ণা দিয়েও তারা সংযোগ পাননি। পরবর্তীতে মান্দা পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির জুনিয়র প্রকৌশলী আব্দুস সালাম ৫ হাজার টাকার বিনিময়ে ৫ কেভি’র ৪টি ট্রান্সফর্মার সরবরাহ করেন।
 
পশ্চিম নুরুল্লবাদ গ্রামের গ্রাহক ভুক্তভোগী জসিম উদ্দিন অভিযোগ করে বলেন, মঙ্গলবার সকালে ট্রান্সফর্মার ও গ্রাহকদের বাড়ি বাড়ি মিটার সংযোগ দেয়ার জন্য পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির কার্যালয় থেকে লাইনম্যান পাঠানো হয়। লাইনম্যানরা ওই গ্রামে গিয়ে ট্রান্সফর্মার ও মিটার লাগানোর আগেই গ্রাহকদের নিকট ২০ হাজার টাকা দাবি করেন। এ সময় তারা ৫ হাজার টাকা লাইনম্যানদের হাতে তুলে দেন। কিন্তু জুনিয়র  প্রকৌশলী আব্দুস সালামের দাবিকৃত ২০ হাজার টাকা না দেয়ায় লাইনম্যানদের কাজ করতে না দিয়ে তাদের অফিসে ফিরিয়ে নেওয়া হয়েছেন। সাইদুর রহমান, আমজাদ হোসেন, আফজাল হোসেন জানান, ঘুষের দাবিকৃত টাকা না দেয়ায় তারা গ্রামবাসী ভোগান্তির শিকার হচ্ছেন।
 
আয়নাল হক, আজিজুল ইসলাম, আবুল কালাম, জাহাঙ্গীর আলম, টুটুল হোসেন, মোজাফফর হোসেন, আব্দুর রাজ্জাকসহ ভুক্তোভুগীরা অভিযোগ করে বলেন, জুনিয়র প্রকৌশলী আব্দুস সালামের বিরুদ্ধে বিভিন্ন অনিয়ম, দুর্নীতি ও গ্রাহকদের সঙ্গে দুর্ব্যবহারের নানান অভিযোগ রয়েছে। দ্রুত তার বিরুদ্ধে বিভাগীয় আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের দাবি জানানো হয়েছে।
 
মান্দা পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির জুনিয়র প্রকৌশলী আব্দুস সালাম এ অভিযোগ অস্বীকার করেন।
 
মান্দা পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির ডিজিএম মিলন কুমার কুন্ডু জানান, বিষয়টি খতিয়ে দেখে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।
 
নওগাঁর পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির জিএম এনামুল হক প্রামাণিক জানান, বিষয়টি তদন্তের জন্য মান্দা জোনাল অফিসের ডিজিএম মিলন কুমার কুণ্ডুকে দায়িত্ব দেয়া হয়েছে। প্রতিবেদন পেলেই প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।
 
ইত্তেফাক/বিএএফ
এই পাতার আরো খবর -
সর্বশেষ
সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
২১ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং
ফজর৪:৩১
যোহর১১:৫২
আসর৪:১৫
মাগরিব৫:৫৯
এশা৭:১২
সূর্যোদয় - ৫:৪৬সূর্যাস্ত - ০৫:৫৪