সারাদেশ | The Daily Ittefaq

পীরগঞ্জে টিএন্ডটি সড়কের বেহাল দশা

পীরগঞ্জে টিএন্ডটি সড়কের বেহাল দশা
পীরগঞ্জ (ঠাকুরগাঁও) সংবাদদাতা১১ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং ১৭:১৩ মিঃ
পীরগঞ্জে টিএন্ডটি সড়কের বেহাল দশা
পীরগঞ্জ পৌরসভাধীন কাজী নজরুল ইসলাম (টিএন্ডটি) সড়কটির এখন বেহাল দশা। দীর্ঘ দিন যাবৎ সংস্কার না হওয়ায় পিচ ও খোয়া উঠে খানাখন্দে পরিণত হয়েছে রাস্তাটি। ড্রেন না থাকায় অল্প বৃষ্টিতেই পানি জমে থাকে রাস্তার খানাখন্দে। বিশেষ করে পীরগঞ্জ পশ্চিম চৌরাস্তা থেকে মহিলা কলেজ পর্যন্ত রাস্তাটি চলাচলের অযোগ্য হয়ে পড়লেও কর্তৃপক্ষ সংস্কারের উদ্যোগ নিচ্ছে না বলে এলাকাবাসীর অভিযোগ।
 
উল্লেখ্য, পীরগঞ্জ পৌর শহরের প্রাণকেন্দ্র পশ্চিম চৌরাস্তা হতে গোদাগাড়ি হাট হয়ে দানাজপুর বিওপিগামী এ সড়কটি ৮নং দৌলতপুর, ৯নং সেনগাঁও, ১০নং জাবরহাট ও ১১নং বৈরচুনা ইউনিয়নের উপজেলা সদরের সঙ্গে যোগাযোগের প্রধান মাধ্যম। এ সড়কের পৌর অংশে উপজেলা প্রাণিসম্পদ অফিস, পল্লী বিদ্যুতের জোনাল অফিস, টেলিফোন অফিস, বে-সরকারি সংস্থা ব্র্যাক, ইএসডিও ও টিএমএসএস অফিস, মহিলা ডিগ্রি কলেজ, আরএম বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়, রঘুনাথপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়, ইংলিশ মিডিয়াম স্কুল, ইকো পাঠশালাসহ বিভিন্ন জনগুরুত্বপূর্ণ সরকারী অফিস, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, এনজিও এবং ব্যবসা প্রতিষ্ঠান রয়েছে। ফলে এ সড়কটি সর্বদা অত্যন্ত ব্যস্ত থাকলেও পশ্চিম চৌরাস্তা থেকে মহিলা কলেজ পর্যন্ত সড়কাংশ খানা-খন্দে ভরে যাওয়ায় চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে জনসাধারণকে।
 
এদিকে রাস্তার পার্শ্বে ড্রেন না থাকায় সামান্য বৃষ্টিতেই রাস্তায় পানি জমে থাকে। পানি নিস্কাশনের ব্যবস্থা না থাকায় ভারি যানবাহন চলাচলের সময় কাদাযুক্ত পানি ছিটকে পথচারী ও সাইকেল, মোটরসাইকেল আরোহীদের কাপড় নষ্ট হয়। খানাখন্দের কারণে যানবাহন চলাচলে প্রায়শই দুর্ঘটনা ঘটে।
 
এলাকাবাসীর অভিযোগ, নিয়মিত পৌর কর পরিশোধ করা সত্বেও এ এলাকার মানুষ রাস্তাটির জন্য চরম ভোগান্তির শিকার হচ্ছে। দৌলতপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান কার্তিক চন্দ্র রায় জানান, তার ইউনিয়ন অংশে রাস্তাটি ভাল থাকলেও পৌরসভার অংশে অত্যন্ত বেহাল অবস্থা।
 
পৌরসভার উপ-প্রকৌশলী শাহজাহান আলী জানান, রাস্তাটি এলজিইডির। এ কারণে পৌরসভার পক্ষে কাজ করা সম্ভব হচ্ছে না। এলজিইডি রাস্তাটি পৌরসভাকে হস্তান্তর করলে সংস্কার কাজ করা যাবে।
 
পৌরসভার প্যানেল মেয়র হাসিনুর রহমান (লাল) বলেন, রাস্তাটির বেহাল দশা দেখে অনেক লোক মেয়রকে না জেনে গালমন্দ করে। এলজিইডি কর্তৃপক্ষকে দ্রুত রাস্তা সংস্কার করতে অথবা পৌরসভার নিকট হস্তান্তর করতে অনুরোধ করা হয়েছে। কিন্তু এলজিইডির পক্ষ থেকে কোন সাড়া পাওয়া যায়নি। এলজিইডির উপজেলা প্রকৌশলী ইসমাইল হোসেন বলেন, রাস্তাটি সংস্কারের প্রয়োজনীয়তার কথা উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষকে জানানো হয়েছে। সিদ্ধান্ত এলেই ব্যবস্থা হবে। 
 
ইত্তেফাক/নূহু
এই পাতার আরো খবর -
সর্বশেষ
সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
২৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং
ফজর৪:৩৩
যোহর১১:৫১
আসর৪:১২
মাগরিব৫:৫৫
এশা৭:০৮
সূর্যোদয় - ৫:৪৮সূর্যাস্ত - ০৫:৫০