ঢাকা মঙ্গলবার, ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ৭ ফাল্গুন ১৪২৫
২৪ °সে

ঠাকুরগাঁওয়ে বিজিবি'র গুলিতে হতাহতের ঘটনায়

এলাকায় শোক, সুষ্ঠু বিচারের দাবি

এলাকায় শোক, সুষ্ঠু বিচারের দাবি
গুলিতে হতাহতের খবর পেয়ে জেলা প্রশাসক কে, এম কামরুজ্জামান সেলিম দুপুরে বহরমপুর গ্রাম পরিদর্শন করেন। ছবি: ইত্তেফাক

ঠাকুরগাঁওয়ের হরিপুরে গরু জব্দ করা নিয়ে সংঘর্ষে বিজিবির গুলিতে তিনজন নিহত হওয়ার ঘটনায় বহরমপুর গ্রামে চলছে শোকের মাতম। নিহতদের পরিবারের কান্নায় শোকে স্তব্ধ এলাকাটি।

নিহতদের পরিবার ও এলাকাবাসী এই ঘটনায় বিজিবি সদস্যদের শাস্তি দাবি করেছেন। জেলা প্রশাসন জানায়, তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। তদন্ত শেষে প্রতিবেদন পেলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

স্থানীয়রা জানান যায়, বহরমপুর গ্রামের এক ব্যক্তি মঙ্গলবার সকালে গরু নিয়ে যাদুরানী বাজারের উদ্দেশে বের হন বিক্রি করার জন্য। ওই গরু পাচার করে আনা হয়েছে সন্দেহে বেতনা ক্যাম্পের বিজিবি সদস্যরা তা জব্দ করতে গেলে এলাকাবাসীর সঙ্গে সংঘর্ষ বাঁধে।

অন্যদিকে বিজিবি কর্মকর্তারা বলছেন, ভারতীয় গরু আটক করায় সশস্ত্র চোরাকারবারিরা হামলা করলে তারা গুলি চালাতে বাধ্য হন। গুলিতে নিহত হয় ৩ জন, আহত হয় ১৬ জন।

এ ব্যাপারে মুঠো ফোনে ঠাকুরগাঁও ৫০ বিজিবি ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট কর্নেল তুহিন মো. মাসুদ বলেন, ‘ও গুলো ভারতীয় গরু। সংঘবদ্ধ চোরাকারবারিরা কোনো এক সময় গরু গুলো নিয়ে এসেছিল। বাজারে নিয়ে যাওয়ার সময় সীমান্তের দুই কিলোমিটার ভেতরে আমাদের টহল দল তাদের ধরে। গরুগুলো বিওপিতে নেওয়ার সময় দুই থেকে তিনশ লোক ধারালো অস্ত্র নিয়ে হামলা চালায়। আমরা প্রথমে ঠেকানোর চেষ্টা করেছি। তাতে আমাদের অস্ত্র ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে, কয়েকজন আহত হয়েছেন। আমরা স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের দিয়ে বোঝানোর চেষ্টা করেছি। কিন্তু পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে না আসায় আমরা গুলি করতে বাধ্য হই।’

আরো পড়ুন: দোষ স্বীকার করে রাষ্ট্রপতির কাছে ক্ষমা প্রার্থনা করুন

এদিকে গুলিতে হতাহতের খবর পেয়ে জেলা প্রশাসক কে, এম কামরুজ্জামান সেলিম দুপুরে বহরমপুর গ্রাম পরিদর্শনে যান। তিনি তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা গ্রহণ ও নিহতদের পরিবারে ক্ষতিপূরণে আশ্বাস দেন।

হরিপুর থানার অফিসার ইনচার্জ আমিরুজ্জামান জানান, হরিপুর থানায় পরবর্তী সহিংসতা এড়াতে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

ইত্তেফাক/অনি

এই পাতার আরো খবর -
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
prayer-time
১৯ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯
আর্কাইভ
বেটা
ভার্সন