বিশ্ব সংবাদ | The Daily Ittefaq

যুদ্ধ বাঁধালে ট্রাম্পের করুণ পরিণতি হবে

যুদ্ধ বাঁধালে ট্রাম্পের করুণ পরিণতি হবে
‘যুদ্ধপ্রস্তুতির’ খবরে উ. কোরিয়ার হুমকি
ইত্তেফাক ডেস্ক১৩ অক্টোবর, ২০১৭ ইং ০০:০৪ মিঃ
যুদ্ধ বাঁধালে ট্রাম্পের করুণ পরিণতি হবে

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প উত্তর কোরিয়ার বিরুদ্ধে যুদ্ধের প্রস্তুতি শুরু করেছেন এমন খবর প্রকাশের পর কঠোর প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেছে পিয়ং ইয়ং। দেশটির পক্ষ থেকে বলা হয়েছে ট্রাম্প যদি সত্যি সত্যি যুদ্ধ শুরু করেন তবে তাকে চরম পরিণতি ভোগ করতে হবে।  গতকাল ট্রাম্পের উদ্দেশে সরাসরি হুমকি দিলেন উত্তর কোরিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী রি ইয়ং হো। উত্তর কোরিয়ার পর পর পারমাণবিক মিসাইল পরীক্ষার জেরে গত কয়েকমাস ধরে যুক্তরাষ্ট্রে সঙ্গে স্নায়ুযুদ্ধের পরিবেশ তৈরি হয়েছে। এমনকি, তাদের সেই কাজকে কড়া ভাষায় নিন্দা করায় মার্কিনপ্র্রশাসনকে ইতিমধ্যেই হুঁশিয়ারি দিয়েছেন উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং উন।

রাশিয়ার এক সংবাদ সংস্থায় কথা বলতে গিয়ে উত্তর কোরিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী রি ইয়ং হো বলেন, ‘’নিজেদের নিরাপত্তা বৃদ্ধি ও শান্তি স্থাপনের জন্য আমরা পরমাণু শক্তিধর হয়ে উঠেছি। এটা নিয়ে অকারণ আলোচনার কোনও অবকাশ নেই। তাই উত্তর কোরিয়ায় আক্রমণ করতে গেলে যুক্তরাষ্ট্র ধ্বংস হয়ে যাবে।’

হোয়াইট হাউস সূত্রে জানানো হয়েছে, প্রতিরক্ষামন্ত্রী জেমস ম্যাটিসসহ কয়েক জন শীর্ষ স্থানীয় সামরিক উপদেষ্টার সঙ্গে মঙ্গলবার বৈঠক করেন ট্রাম্প। উত্তর কোরিয়ার সামরিক শক্তিধর হয়ে ওঠা এবং মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ও তার বন্ধু দেশগুলোকে হুমকি দেয়া থেকে ঠেকাতে এই মুহূর্তে করণীয় ছিল বৈঠকের বিষয়বস্তু। এর আগে গত সপ্তাহেই ইঙ্গিতটা দিয়ে রেখেছিলেন ডোনাল্ড ট্রাম্প। টুইট করে বলেছিলেন, ‘একটা জিনিসেই এখন কাজ হবে’। উত্তর কোরিয়ার প্রতি বার্তাটা তখনই স্পষ্ট হয়ে গিয়েছিল। সরাসরি না বললেও তিনি যে ভেতরে ভেতরে যুদ্ধের প্রস্তুতিই নিচ্ছেন তা অনেকের কাছে পরিষ্কার হয়ে গিয়েছিল।

ম্যাটিস ছাড়াও ওই বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন মার্কিন জয়েন্ট চিফস অব স্টাফের চেয়ারম্যান জেনারেল জোসেফ ডানফোর্ড। পরিসংখ্যান বলছে, গত ফেব্রুয়ারি থেকে মোট ১৫টি পরীক্ষায় ২২ বার পরমাণু অস্ত্র বহনে সক্ষম ক্ষেপণাস্ত্র উেক্ষপণ করেছে কিম জং উনের দেশ। পিয়ং ইয়ং থেকে সরাসরি আমেরিকায় পরমাণু হামলার হুমকিও দিয়েছেন কিম। শাস্তি হিসেবে উত্তর কোরিয়ার উপর প্রতিবারই কোনও না কোনও কড়া নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে আমেরিকা। কিন্তু কিম তাতে দমেননি। খুব সমপ্রতি জাপান উপকূলের উপর দিয়ে দু’টি আন্তঃমহাদেশীয় ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র (আইসিবিএম) পরীক্ষা করেছে তারা।

মার্কিন প্রতিক্ষামন্ত্রী গত সপ্তাহ পর্যন্ত বলে এসেছেন তারা আন্তর্জাতিক নিষেধাজ্ঞা আর কূটনৈতিক আলোচনার পথেই হাঁটতে চেষ্টা করবেন। তবে সেই সঙ্গেই তিনি এও বলেছেন যে, আমাদের সামরিকভাবে এমন প্রস্তুত থাকতে হবে যে, প্রেসিডেন্ট চাইলেই তত্ক্ষণাত্ সেই পদক্ষেপও নেয়া যায়।

ইত্তেফাক/নূহু

এই পাতার আরো খবর -
সর্বশেষ
সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
১৭ অক্টোবর, ২০১৭ ইং
ফজর৪:৪২
যোহর১১:৪৪
আসর৩:৫৩
মাগরিব৫:৩৪
এশা৬:৪৬
সূর্যোদয় - ৫:৫৭সূর্যাস্ত - ০৫:২৯