বিশ্ব সংবাদ | The Daily Ittefaq

সকল চীনা বন্দরে প্রবেশাধিকার পাবে নেপাল

সকল চীনা বন্দরে প্রবেশাধিকার পাবে নেপাল
অনলাইন ডেস্ক১০ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং ১২:৫৭ মিঃ
সকল চীনা বন্দরে প্রবেশাধিকার পাবে নেপাল
বাণিজ্য করতে চীনের সকল বন্দরে প্রবেশাধিকার পাবে নেপাল। সম্প্রতি দুই দেশের মধ্যে এ বিষয়ে একটি খসড়া চুক্তি চূড়ান্ত হয়েছে। এতে করে বাণিজ্যের জন্য ভারতীয় বন্দরগুলোতে নেপালের উচ্চ মাত্রার নির্ভরতা অনেকাংশে কমে গেল। একই সঙ্গে বেড়ে গেল চীনের সঙ্গে সখ্যতা। একদিন আগি ভারতের সঙ্গে মহড়ায় নামার প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করেছে নেপাল।
 
নেপাল ও চীনের সরকারি কর্মকর্তারা বৃহস্পতিবার রাতে এক বৈঠকের পর চুক্তিটি চূড়ান্ত করেন। দেশ দু’টির মধ্যে এই চুক্তির কাঠামো তৈরি হয় ২০১৬ সালে। ভারতের অর্থনৈতিক অবরোধের সময় চীনে সফর করেন নেপালী প্রধানমন্ত্রী কে পি অলি। তখনই এ বিষয়ে আলোচনা শুরু হয়। 
 
এক কর্মকর্তা জানিয়েছে, চুক্তিটি চূড়ান্ত হওয়ায় এখন থেকে অন্যান্য দেশ থেকে পণ্য আমদানি করতে চীনের তিয়ানজিন, শেনঝেন, লিয়ানিগাং, ঝানঝিয়াংসহ অন্যান্য বন্দর ব্যবহার করতে পারবে নেপাল। 
 
স্থলপথে অবশ্য এখনো নেপালে পণ্য আমদানি ও রপ্তানি করার একমাত্র পথ হচ্ছে কলকাতা দিয়ে। তবে নয়া দিল্লি নেপালী বাণিজ্যের জন্য সম্প্রতি বিশাখাপতনাম বন্দরটিও খুলে দিয়েছে। 
 
এদিকে, বাণিজ্যিকরা বলছে চীন হয়ে নেপালের সঙ্গে যোগাযোগের পরিকল্পনাটি তেমন একটা কার্যকর না-ও হতে পারে। কেননা, নেপাল থেকে চীনের বন্দরগুলোর দূরত্ব অনেক। সবচেয়ে কাছের বন্দরটিও ২৬০০ কিলোমিটার দূরে। 
 
উলের কার্পেট আমদানিকারক অনুপ মাল্লা বলেন, চীনা বন্দরে সুষ্ঠু যাতায়াতের জন্য নেপালকে অবশ্যই তাদের অবকাঠামো উন্নত করতে হবে। কেবলমাত্র বন্দর খুলে দেওয়া যথেষ্ট হবে না। 
 
নেপালে সহায়তা ও বিনিয়োগের মাধ্যমে প্রভাব বিস্তার করছে চীন। এতে করে বহুদিন ধরে মিত্রদেশ হিসেবে থাকা নেপালে প্রভাব হারাচ্ছে ভারত। 
 
বেইজিং ও কাঠমুন্ডু দুই দেশের মধ্যে রেল সংযোগ তৈরির বিষয়েও আলোচনা করছে। -ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস
 
ইত্তেফাক/ জেআর 
এই পাতার আরো খবর -
সর্বশেষ
সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
২৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং
ফজর৪:৩৩
যোহর১১:৫১
আসর৪:১২
মাগরিব৫:৫৫
এশা৭:০৮
সূর্যোদয় - ৫:৪৮সূর্যাস্ত - ০৫:৫০