বিশ্ব সংবাদ | The Daily Ittefaq

ট্রাম্পকে অভিশংসনের পরিকল্পনা করার অভিযোগ প্রত্যাখ্যান রড রজেন্সটাইনের

ট্রাম্পকে অভিশংসনের পরিকল্পনা করার অভিযোগ প্রত্যাখ্যান রড রজেন্সটাইনের
অনলাইন ডেস্ক২২ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং ১১:৪৪ মিঃ
ট্রাম্পকে অভিশংসনের পরিকল্পনা করার অভিযোগ প্রত্যাখ্যান রড রজেন্সটাইনের
মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পকে অভিশংসন করতে একটি সাংবিধানিক ধারা প্রয়োগের বিষয়ে আলোচনা করার অভিযোগ ওঠেছে দেশটির ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল রড রজেন্সটাইনের বিরুদ্ধে। সম্প্রতি নিউ ইয়র্ক টাইমসের এক প্রতিবেদনে এমনটা দাবি করা হয়েছে। তবে রজেন্সটাইন এই অভিযোগ অস্বীকার করেছেন। 
 
আমেরিকার দ্বিতীয় শীর্ষ আইন বিষয়ক কর্মকর্তা বলেছেন, এই অভিযোগ ভ্রমাত্মক ও তথ্যগত দিক দিয়ে অসত্য। আজ শনিবার নাম অপ্রকাশিত এক সূত্রের বরাত দিয়ে নিউ ইয়র্ক টাইমসের এক প্রতিবেদনে বলা হয়, হোয়াইট হাউজের বিশৃঙ্খলা ফাঁস করে দেওয়ার জন্য রজেন্সটাইন গোপনে ট্রাম্পের কর্মকাণ্ড রেকর্ড করার প্রস্তাব রেখেছিলেন। 
 
তবে বিবিসি অপর এক সূত্রের বরাত দিয়ে বলেছে, রজেন্সটাইন ‘কৌতুক’ করে এমনটা বলেছিলেন। নিউ ইয়র্ক টাইমস অনুসারে, গত বছর এফবিআই পরিচালক অ্যান্ড্রিও ম্যাকাবে’কে বরখাস্ত করার পর ট্রাম্পকে নিয়ে উল্লেখিত মন্তব্য করেন রজেন্সটাইন। 
 
নিউ ইয়র্ক টাইমস তাদের প্রতিবেদনে লিখেছে, রজেন্সটাইন মন্ত্রীপরিষদের সদস্যদের নিয়ে মার্কিন সংবিধানের ২৫তম সংশোধনী প্রয়োগের বিষয়ে কথা বলেছিলেন। উল্লেখ্য, ২৫তম সংশোধনী প্রয়োগের মাধ্যমে, ক্ষমতায় থাকার অযোগ্য কোন প্রেসিডেন্টকে বরখাস্ত করা যায়।
 
প্রতিবেদনে আরো বলা হয়, রজেন্সটাইন গোপনে ট্রাম্পের কর্মকাণ্ড রেকর্ড করে হোয়াইট হাউজের ভেতর চলমান টানাপোড়ন ও কর্মহীনতা ফাঁস করে দেওয়ার প্রস্তাব রেখেছিলেন। ২০১৭ সালের মে মাসে বিচার বিভাগ ও এফবিআই কর্মকর্তাদের মধ্যকার এক বৈঠকে এমন প্রস্তাব রাখেন রজেন্সটাইন। প্রতিবেদনে বেশ কয়েকটি নামহীন সূত্রের বরাত দিয়েছে নিউ ইয়র্ক টাইমস। 
 
রজেন্সটাইন টাইমসের প্রতিবেদনের প্রতিক্রিয়ায় বলেন, নিউ ইয়র্ক টাইমসের প্রতিবেদনটি ভ্রমাত্মক ও তথ্যগত দিকে দিয়ে ত্রুটিপূর্ণ। আমি বেনামী সূত্রের ওপর ভিত্তি করে লেখা একটি প্রতিবেদন নিয়ে আর কোন মন্তব্য করবো না। নিশ্চিতভাবেই ওই সূত্রগুলো বিচার বিভাগের বিরুদ্ধে পক্ষপাতদুষ্ট ও তারা নিজেদের ব্যক্তিগত স্বার্থ নিয়ে এগুচ্ছে। 
 
তিনি বলেন, তবে আমি একটা বিষয় নিশ্চিত করতে চাই: প্রেসিডেন্টের সঙ্গে আমার ব্যক্তিগত সম্পর্কের জেরে ২৫তম সংশোধনী প্রয়োগের কোন সুযোগই নেই। 
 
এদিকে বিচার বিভাগের এক নামহীন সূত্রের বরাত দিয়ে বিবিসি জানিয়েছে, ট্রাম্পকে রেকর্ড করার যে মন্তব্য রজেন্সটাইন করেছিলেন, সেটি স্রেফ কৌতুক ছিল। ওই সূত্র জানায়, মন্তব্যটি কৌতুকপূর্ণ ছিল আর প্রেসিডেন্টের আলাপ-আলোচনা রেকর্ড করার কোন উদ্দেশ্য নিয়ে কখনোই এই মন্তব্য ঘিরে আলোচনা হয়নি। -বিবিসি
 
ইত্তেফাক/ জেআর
এই পাতার আরো খবর -
সর্বশেষ
সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
২৪ অক্টোবর, ২০১৮ ইং
ফজর৪:৪৩
যোহর১১:৪৩
আসর৩:৪৮
মাগরিব৫:২৯
এশা৬:৪২
সূর্যোদয় - ৫:৫৯সূর্যাস্ত - ০৫:২৪