বিশ্বকাপ ফুটবল | The Daily Ittefaq

‘কোটিনহোই ব্রাজিলের সেরা’

‘কোটিনহোই ব্রাজিলের সেরা’
স্পোর্টস রিপোর্টার০১ জুলাই, ২০১৮ ইং ১২:৫৮ মিঃ
‘কোটিনহোই ব্রাজিলের সেরা’
 
ক’দিন আগেই ব্রাজিলিয়ান কিংবদন্তি রবার্তো কার্লোস বলেছিলেন নেইমার ও কোটিনহো একই মানের খেলোয়াড়। এবার এর চেয়েও এক ধাপ ওপরে গিয়ে বললেন আরেক সাবেক ব্রাজিলিয়ান ফুটবলার হোসে রামিরেজ বারেতো। তিনি মনে করেন ফুটবল গোলের খেলা, আর সেদিক বিবেচনায় এই বিশ্বকাপে ব্রাজিলের সেরা খেলোয়াড় ফিলিপে কোটিনহো।
 
বারেতো মনে করেন, ব্রাজিলের মানসিকতা ও টেকনিক্যাল দিকগুলোর প্রতি আরো বেশি মনোযোগী হওয়া উচিত। কারণ, দ্বিতীয় পর্ব থেকেই পাঁচবারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়নদের আসল পরীক্ষা শুরু হবে।
 
টাইমস অব ইন্ডিয়ার এক কলামে বারেতি বলেছেন, ‘দ্বিতীয় পর্ব, মানে শেষ ১৬-র একটা পরাজয় মানেই হলো গেল দু’বছরের সব অর্জনে পানি ফেলে দেওয়া। আর নেইমারের প্রজন্মের জন্য আর একটা পরাজয় মানেই তার অনেক বড় প্রভাব পড়া। ২০০২ সালের পর থেকে ব্রাজিল টানা ব্যর্থ হয়ে চলেছে। বিশ্বকাপ শুরুর আগে গ্যাব্রিয়েল জেসাসকে নিয়ে অনেক আলোচনা হলেও এখনো তার ট্রেডমার্ক উদযাপন দেখেনি ফুটবল বিশ্ব।’
 
জেসাসকে গোল করতে হবে বলে মনে করে বারেতি লিখেছেন, ‘১০ গোল দিয়ে বিশ্বকাপের বাছাইপর্বে জেসাস ছিল সর্বোচ্চ গোলদাতা। ও নয় নম্বর জার্সি। এটা সেই জার্সি যেটা এক সময় শোভা পেত খোদ রোনালদো লুইস লুইস নাজারিও ডি লিমার শরীরে। ওকে ‘ফেনোমেনন’ বলা হয় কারণ এই জার্সি গায়ে ও ইতিহাস গড়েছে। এবার এই জার্সির মান রাখতে হবে জেসাসকে।’
 
বিশ্বকাপে এখন অবধি ব্রাজিল যে পাঁচটা গোল করেছে তার মধ্যে দুটোই করেছেন কোটিনহো। সেজন্য এই মিডফিল্ডারকে বাকিদের চেয়ে এগিয়ে রাখছেন বারেতি। তিনি লিখেছেন, ‘ফিফার পরিসংখ্যান বলছে, জেসাস গোলমুখে ছয়টা সুযোগ পেয়েছে। একটাও গোল পায়নি। ওর চেয়ে মাত্র একটা সুযোগ বেশি পেয়ে দু’টো গোল করে ফেলেছে কোটিনহো। অন্যদিকে নেইমার একাই ১৮টি সুযোগ পেয়েছে। গোল করেছে কেবল একটি। কোটিনহো সত্যিই অসাধারণ। অথচ, সবাই অপেক্ষা করছিল নেইমারের উজ্জ্বল পারফরম্যান্স দেখানোর জন্য। তবে, আমার মতে গোল আর অ্যাসিস্ট বিবেচনা করলে এই বিশ্বকাপে ব্রাজিলের বড় তারকা হলো কোটিনহো।’
 
এর আগে রবার্তো কার্লোস বলেছিলেন, ‘কোটিনহো আর নেইমার একই মানের খেলোয়াড়। যখন বিপক্ষ দলের সকল ডিফেন্ডাররা নেইমারের দিকে লক্ষ্য রাখে, তখন সে সুযোগটা কাজে লাগায় ও খেলার ভাগ্য বদলে দেয়। আমি কোটিনহোর খেলা দেখতে খুবই ভালোবাসি। সে খুবই দুর্দান্ত খেলে। সঠিক সময়ে সুবিধাজনক স্থানে থাকার বুদ্ধিমত্তাও আছে তার।’
 
আগামীকাল নকআউট পর্বে ব্রাজিলের প্রতিপক্ষ মেক্সিকো। সেই ম্যাচকে সামনে রেখে বারেতি লিখেছেন, ‘মেক্সিকোর বিপক্ষে জিততে হলে ব্রাজিলের অনেকরকম সমর্থন চাই। ভুলে গেলে চলবে না যে, মেক্সিকো কোনো সহজ প্রতিপক্ষ নয়। ওদের খেলোয়াড়দের ব্যক্তিগত সক্ষমতা ও দক্ষতার জায়গাগুলোও দারুণ। যেমন ওদের হার্ভিং লোজানো ও কার্লোস ভেলার মতো খেলোয়াড় আছে। ওরা এতটাই শক্তিশালী দল যে চাইলে জার্মানির মতো দলকে ১-০ গোলে হারিয়ে দিতে পারে। ফলে, পাঁচ বারের বিশ্বচ্যাম্পিয়ন ব্রাজিলকেও ওরা হারাতে পারে। ওদের বিপক্ষে জিততে হলে নেইমার, কোটিনহো ও ফিরমিনো এই ত্রয়ীর ওপর নির্ভর করতে হবে ব্রাজিলকে।’
 
জার্মানির আগেভাগে বিদায় নেওয়ার প্রসঙ্গেও লিখেছেন বারেতি। তিনি মনে করেন অতিচাপে ভেঙে পড়েই বিশ্ব চ্যাম্পিয়নের তকমা নিয়ে আসা দলটি বাদ পড়ল গ্রুপ পর্ব থেকেই।
 
তিনি লিখেছেন, ‘সব শেষে জার্মানির কথা বলতেই হয়। ওদের প্রতি কোনো শোক জানানোর ভাষা আমি খুঁজে পাচ্ছি না। বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন হয়ে এসেছিল, অথচ ছিটকে গেল প্রথম পর্ব থেকেই। আমার মনে হয়, জার্মানি অনেক বেশি মাত্রায় চাপ নিয়ে ফেলেছিল। আর একবার চাপে পড়ে গেলে ফুটবলে যে কোনো কিছুই ঘটতে পারে।’
 
ইত্তেফাক/মোস্তাফিজ
এই পাতার আরো খবর -
সর্বশেষ
সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
২০ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং
ফজর৪:৩২
যোহর১১:৫৩
আসর৪:১৬
মাগরিব৬:০১
এশা৭:১৩
সূর্যোদয় - ৫:৪৬সূর্যাস্ত - ০৫:৫৬