বিশ্বকাপ ফুটবল | The Daily Ittefaq

মেক্সিকোর বিরুদ্ধে ব্রাজিলের জয়ের পাঁচ কারণ

মেক্সিকোর বিরুদ্ধে ব্রাজিলের জয়ের পাঁচ কারণ
অনলাইন ডেস্ক০৩ জুলাই, ২০১৮ ইং ১৫:৪৬ মিঃ
মেক্সিকোর বিরুদ্ধে ব্রাজিলের জয়ের পাঁচ কারণ
রাশিয়ার সামারা স্টেডিয়ামে সোমবার লাতিন ফুটবলের সৌরভ ছড়িয়েছে ব্রাজিল। সাম্বা ছন্দের তালে মেক্সিকান ওয়েভকে ঠেকিয়ে দিয়েছে নেইমার-সিলভারা। টান টান ৯০ মিনিটে টিভির পর্দা থেকে চোখ ফেরানো ছিল দায়। শেষ পর্যন্ত ২-০ গোলে মেক্সিকোকে হারিয়ে কোয়ার্টার ফাইনালে উঠেছে সেলেসাওরা।
 
ব্রাজিলের এই হারানো ‘সাম্বা ছন্দ’ ফিরে আসায় স্বস্তিতে সেলেসাও ভক্তরা। দুঙ্গার ব্রাজিল থেকে যেন তিতের ব্রাজিলকে খুব সহজেই আলাদা করা যায়। রাশিয়া বিশ্বকাপ যত সামনে গড়িয়েছে ফুটবল বিশ্ব বুঁদ হয়েছে ব্রাজিলের ছন্দময় খেলাতে। মেক্সিকের বিপক্ষের ম্যাচেও ব্রাজিল ছিল স্পষ্ট ফেবারিট। আর এ জয়ের পেছনে ছিল পাঁচটি কারণ।
 
দুরন্ত গতি: ম্যাচের প্রথম ২০ মিনিট ব্রাজিলের খেলা ছিল অগোছালো। কিন্তু সময় যত গড়িয়েছে ধাতস্থ হয়েছে নেইমার, কুতিনহোরা। ব্রাজিলীয় গতির বিরুদ্ধে প্রথমার্ধে লড়াই চালালেও সময় যতই এগিয়েছে, ততই পিছিয়ে পড়েছে মেক্সিকো। ম্যাচের দ্বিতীয়ার্ধে দুই দলের মধ্যে পার্থক্য গড়ে দিয়েছিল এই গতি আর ছন্দ।
 
নেতা নেইমার: চলতি বিশ্বকাপের শুরু থেকেই শরীরে ছোঁয়া লাগলেই মাঠে পড়ে যায়, হালকা চোট পেলেই অভিনয় করে পুরো মাঠে অস্থিরতা ছড়াতে ওস্তাদ, অতিরিক্ত ডাইভ প্রবণতায় আক্রান্ত, খেলার চেয়ে চুলের স্টাইল নিয়ে ব্যস্ত বেশী এমনি অনেক সমালোচনায় মিডিয়া ছিল সরগরম। কিন্তু, মেক্সিকোর বিরুদ্ধে ম্যাচেই সব সমালোচনার জবাব দিলেন নেইমার। শুধু নিজে গোল করলেন না, গোল করালেনও। ব্রাজিলের আক্রমণের নেতৃত্বও দিলেন। নেইমার, কুতিনহো, উইলিয়ানরা বারবার আক্রমণের ত্রাস ছড়িয়েছে মেক্সিকোর ডিবক্সে। গতি, ড্রিবলিং, বডিডজ, ওয়ান-টু-ওয়ান পাস খেলার মধ্যদিয়ে লাতিন ফুটবলের সৌরভ ছড়িয়ে দেন নেইমার।
 
গতিময় উইলিয়ান: মেক্সিকোর বিরুদ্ধে অসাধারণ ম্যাচ উপহার দিলেন উইলিয়ান। দুই দলের মধ্যে পার্থক্য গড়ে দেওয়ার ক্ষেত্রে উইলিয়ান একটা বড় ভূমিকা নিলেন। উইলিয়ানের গতিময় ফুটবল নেইমারের কাজটা অনেক সহজ করে দিয়েছিল মেক্সিকোর বিরুদ্ধে। ম্যাচের ৫১ মিনিটে উইলিয়ান ও নেইমারের ওয়ান টু ওয়ানেই প্রথম গোলের দেখা পায় সেলেসাওরা। উইলিয়ানের পারফরমেন্স নিয়ে চমৎকার বিশ্লেষণ করেছেন ব্রাজিলের সহকারী কোচ সিলভিনো বলেন, ‘উইলিয়ানের খেলা চিরকাল দর্শনীয়। তবে দলে আমরা বলতাম নিজের খেলার টেকনিক্যাল দিকটায় ওকে নজর দিতে হবে। দ্বিতীয়ার্ধে ওর খেলায় সেই চমকটাই ছিল যা দেখে আমরা সবাই অবাক হয়ে গিয়েছি।’
 
অ্যালিসন প্রাচীর : এ দিনের ম্যাচে বড় ফ্যাক্টর হয়ে উঠছিলেন ব্রাজিলের গোলকিপার অ্যালিসন। অসাধারণ দক্ষতায় মেক্সিকোর বেশ কয়েকটা জোরাল আক্রমণ রুখে দিয়েছেন। সিলভা, মিরান্ডাদের ইস্পাত দৃঢ় দেয়াল টপকে যদিও তাকে খুব বেশি পরীক্ষায় ফেলতে পারেনি মেক্সিকান আক্রমণভাগ।
 
সলিড ডিফেন্স: ফুটবলে একটা অমর বানী আছে। সেটি হল, ‘ভালো স্ট্রাইকার তোমাকে ম্যাচ জেতাবে কিন্তু সলিড ডিফেন্স তোমাকে টুর্নামেন্ট জেতাবে।’ ব্রাজিল কোচ তিতের মূলমন্ত্রও তাই। গোলকিপারের পাশাপাশি প্রশংসা করতেই হবে ব্রাজিলের ডিফেন্সের। যে ভাবে মেক্সিকোর আক্রমণকে পাল্টা আক্রমণে পরিণত করলেন তারা, তাতে অনেক সুবিধা হয়ে যায় ব্রাজিলেরই। থিয়াগো সিলভার নেতৃত্বে ব্রাজিলের ডিফেন্স চোয়ালবদ্ধ হয়ে লড়ে গেছে মিরান্ডা, ফিলিপ লুইজ, ফ্যাগনার। মেক্সিকান ওয়েভ যেন সিলভাদের প্রতিরোধের দেয়ালে এসে বারবার খেই হারিয়েছে।
 
ইত্তেফাক/রেজা
 
এই পাতার আরো খবর -
সর্বশেষ
সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
১৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং
ফজর৪:৩০
যোহর১১:৫৩
আসর৪:১৭
মাগরিব৬:০২
এশা৭:১৫
সূর্যোদয় - ৫:৪৬সূর্যাস্ত - ০৫:৫৭