বিশ্বকাপ ফুটবল | The Daily Ittefaq

হতাশ করলেন তারকারা

হতাশ করলেন তারকারা
সোহেল সারোয়ার চঞ্চল, রাশিয়া থেকে০৯ জুলাই, ২০১৮ ইং ১০:৪২ মিঃ
হতাশ করলেন তারকারা
বিশ্বকাপ ফুটবল শুরু হওয়ার আগে নেইমার, মেসি, রোনালদোর দিকে তাকিয়ে ছিল ফুটবল দুনিয়া। যারা ইউরোপের বিভিন্ন লিগের খেলা রাত জেগে দেখেন  তারা ধরে নিয়েছিলেন নেইমার ব্রাজিলকে টেনে তুলবেন, মেসি আর্জেন্টিনাকে তুলবেন, ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো তুলবেন পর্তুগালকে। আরেকজনের কথা বলতে হয়-সুয়ারেজ। তিনি টেনে তুলবেন উরুগুয়েকে। কিন্তু দুর্ভাগ্য যাদের দিকে তাকিয়ে ছিল ফুটবল দুনিয়া তারাই সবাইকে হতাশ করেছেন। কারো কারো পারফরম্যান্স লজ্জায় ফেলেছে।
 
ক্রোয়েশিয়ার কাছে হারের কারণে বাংলাদেশের আর্জেন্টিনার সমর্থক আত্মহত্যা করেছেন। পুরো আর্জেন্টিনাবাসী হতাশ হয়েছেন। মেসির খেলা দর্শকদের মনে লাগেনি। মেসি তার ম্যাজিক টাচ দিতে পারেননি। খেলাটা ঘুরিয়ে দেওয়ার যাদু দেখাতে পারেনি।
 
মেসি আর্জেন্টিনাকে ট্রফি দিতে পারলেন না। ম্যারাডোনা ১৯৮৬ বিশ্বকাপ ফুটবলের ট্রফি দিয়েছিলেন আর্জেন্টিনা। সেটাই রয়ে গেল এখনও শেষ ট্রফি। মেসিকে নিয়ে কতো স্বপ্ন আর্জেন্টাইনদের। মেসি পারবেন ম্যারাডোনার উত্তরসূরী হয়ে দেশকে আরেকবার বিশ্বকাপের বড় মঞ্চে ট্রফি তুলে ধরতে—এমন ভাবনায় বহুবার আশায় বুক বেঁধেছিলেন আর্জেন্টাইনরা। বার্সেলোনার জার্সি গায়ে মন মাতানো ফুটবল খেলে আর্জেন্টাইনদের স্বপ্ন দেখিয়েছেন মেসি। কিন্তু যখনই আর্জেন্টিনার হয়ে খেলতে নামেন তখনই বার্সার মেসিকে খুঁজে পাওয়া যায় না।  
 
অথচ চার বিশ্বকাপে নাম লেখানো হয়ে গেছে মেসির। ব্রাজিল বিশ্বকাপের পর রাশিয়া বিশ্বকাপ নিয়ে নতুন স্বপ্নে নিজেদের তরী ভাসিয়েছিল আর্জেন্টিনা। কিন্তু এবারও সেই ব্যর্থতার চাদরে ঢাকা পড়ল আর্জেন্টিনা। চার খেলায় মেসি গোল করেছেন ১টি। রাশিয়া বিশ্বকাপ থেকে মেসির আর্জেন্টিনাকে বিদায় নিতে হয়েছে অপরিচিত কোনো দলের মতো করে।
 
নেইমারের পথে হাঁটল ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো। স্পেনের সঙ্গে ৩-৩ গোলে ড্র করলেও বড় ম্যাচে হ্যাটট্রিক করেছিলেন ক্রিশ্চিয়ানো। বিশ্বকাপের নিজের প্রথম খেলা বলে কথা। দ্বিতীয় খেলায় মরক্কোর সঙ্গে ১-০ গোলে জিতল। সেখানেও রোনালদো গোল করলেন। গ্রুপের শেষ খেলায় ইরানের সঙ্গে ১-১ গোলে ড্র পর্তুগালের। গ্রুপ রানার্সআপ পর্তুগাল উরুগুয়ের কাছে হেরে বিদায় নিল। মেসির পর বিশ্বকাপের আরেক তারকা ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো খসে পড়ল সোচিতে। আর্জেন্টিনা এবং পর্তুগাল কোয়ার্টার ফাইনালেই উঠতে পারল না। নিজনি নভগোর্দোর মাঠে কোয়ার্টার ফাইনালে উরুগুয়ে হেরে গেল ফ্রান্সের কাছে। বার্সেলোনায় মেসির আরেক বন্ধুরও বিদায় হয়ে গেল সেই রাতে। এই বিদায়ের ক্ষত না সইতেই কাজানে বিদায় নিলেন নেইমার। বাংলাদেশের ফুটবল দর্শকদের চোখে যিনি বিশ্বকাপের সব শেষ প্রদীপ জ্বালিয়ে রেখেছিলেন। সেই নেইমারও চলে গেলেন ব্রাজিলকে নিয়ে। পাঁচবারের বিশ্বকাপ জয়ী ব্রাজিলকে নেইমার ষষ্ঠ ট্রফি এনে দেবেন—আর্জেন্টিনার মেসির প্রতি যেমন স্বপ্ন ছিল তেমনি ব্রাজিলের নেইমারকে নিয়েও স্বপ্নের ডালপালা ছড়িয়েছিল। সব স্বপ্নের গায়ে জল ঢেলে দিয়েছেন মেসি, নেইমাররা।
 
আবার চার বছর পর বিশ্বকাপের আসর বসবে কাতারে। ততদিন পর্যন্ত কজনের সক্ষমতা থাকবে, তা কে জানে। নাকি আর্জেন্টিনা-ব্রাজিলের নতুন কোনো ফুটবলার স্বপ্ন পূরণ করবেন, মেসি নেইমাররা যা পারেননি তা করে দিয়ে যাবেন। ফুটবল দুনিয়া সেই অপেক্ষায় থাকবে। বাংলাদেশের যারা রাত জেগে মেসি নেইমারদের ভালোবাসার ডালা নিয়ে বসে থাকেন তারাও অপেক্ষা করবেন নতুন কোনো মেসি নেইমারের সন্ধানে।
 
ইত্তেফাক/কেকে
এই পাতার আরো খবর -
সর্বশেষ
সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
২৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং
ফজর৪:৩৩
যোহর১১:৫১
আসর৪:১২
মাগরিব৫:৫৫
এশা৭:০৮
সূর্যোদয় - ৫:৪৮সূর্যাস্ত - ০৫:৫০