ঢাকা সোমবার, ১৮ মার্চ ২০১৯, ৪ চৈত্র ১৪২৫
২৪ °সে

হামলা থেকে বাঁচতে জাতিসংঘের দ্বারস্থ পাকিস্তান

হামলা থেকে বাঁচতে জাতিসংঘের দ্বারস্থ পাকিস্তান
শিগরিরই দুই দেশের মধ্যে শান্তি ফিরিয়ে আনার প্রয়োজনীয়তা দেখা দিয়েছে বলে উল্লেখ করেন পাকিস্তানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী। ছবি: সংগৃহীত।

কাশ্মীরের পুলওয়ামাতে হামলার জেরে পাকিস্তানের ওপর আক্রমণ চালাতে পারে ভারত। এমন আশঙ্কায় জাতিসংঘের দ্বারস্থ হয়েছে পাকিস্তান। ইতিমধ্যে দেশটি জাতসংঘের মহাসচিব বরাবর চিঠি পাঠিয়ে।

পাকিস্তানের পররাষ্ট্র মন্ত্রী শাহ মেহমুদ কুরেশি জাতিসংঘের মহাসচিব আন্তোনিও গুয়েতেরেসকে মঙ্গলবার একটি চিঠি দিয়েছেন। পাকিস্তানের পক্ষ থেকে চিঠিটি জাতিসংঘের সাধারণ ও নিরাপত্তা পরিষদের সব দেশকে দেয়ার অনুরোধ করা হয়েছে।

কাশ্মীরের পুলওয়ামা হামলায় পাকিস্তান সংশ্লিষ্ট থাকার যে অভিযোগ ভারত করছে, তা নিয়ে আলোচনা করতে ও দ্রুত ব্যবস্থা নেয়ার অনুরোধ করা হয়েছে পাকিস্তানের পক্ষ থেকে।

কুরেশি জাতিসংঘ মহাসচিবের উদ্দেশে লিখেছেন, ‘ভারত পাকিস্তানের বিরুদ্ধে সামরিক শক্তি ব্যবহারের যে হুমকি দিয়েছে, এতে করে এই অঞ্চলে শান্তি পরিস্থিতির অবনতি ঘটেছে। ফলে, আমরা জরুরি ভিত্তিতে জাতিসংঘের হস্তক্ষেপের প্রয়োজন বোধ করছি।

গত বৃহস্পতিবার কাশ্মীরের পুলওয়ামার অবন্তীপুরায় ভারতের কেন্দ্রীয় রিজার্ভ পুলিশ বাহিনীর (সিআরপিএফ) কনভয়ে বিচ্ছিন্নতাবাদীদের হামলায় ৪৪ জওয়ান নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন ৪০ জনেরও বেশি।

এরপর থেকে এ ইস্যু নিয়ে চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে পাকিস্তান ও ভারতের মধ্যে। এর জবাব হিসেবে হামলার ঠিক পরের দিন দু'দশক আগে দেওয়া মোস্ট ফেভার্ড নেশনের তকমা পাকিস্তানের থেকে ফিরিয়ে নিয়েছে ভারত। এছাড়া দেশটি পাকিস্তান থেকে আসা যে কোনও দ্রব্যের উপর ২০০ শতাংশ শুল্কারোপ করেছে।

আরো পড়ুন: কাশ্মীরের পুলওয়ামায় হামলা ‘ভয়াবহ’: ট্রাম্প​

এছাড়া ভারত সিন্ধু নদীর পানিবণ্টন চুক্তিকে পরিত্যক্ত ঘোষণা করার ইঙ্গিত দিয়েছে বলে উল্লেখ করেন কুরেশি। জাতিসংঘের মহাপরিচালককে সে কথা মনে করিয়ে পাকিস্তানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী লিখেছেন, ‘শিগরিরই দুই দেশের মধ্যে শান্তি ফিরিয়ে আনার প্রয়োজনীয়তা দেখা দিয়েছে। এ ব্যাপারে জাতিসংঘের পদক্ষেপ অত্যন্ত জরুরি বলে উল্লেখ করেন পাকিস্তানের এ পররাষ্ট্রমন্ত্রী। সূত্র: জি নিউজ, ফার্স্ট পোস্ট।

ইত্তেফাক/এসআর

এই পাতার আরো খবর -
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
prayer-time
১৮ মার্চ, ২০১৯
আর্কাইভ
বেটা
ভার্সন