ঢাকা শুক্রবার, ২২ মার্চ ২০১৯, ৮ চৈত্র ১৪২৫
২৭ °সে

আয় কমেছে পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের

আয় কমেছে পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের
পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। ছবি: সংগৃহীত

আয় কমেছে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের। পাকিস্তানের আর্থিক অবস্থার সঙ্গে তাল মিলিয়ে গত তিন বছরে দেশটির প্রধানমন্ত্রীর আয়ও কমেছে। এমন তথ্যই প্রকাশ করেছেন পাকিস্তান ভিত্তিক সংবাদ মাধ্যম ডন। তবে প্রধানমন্ত্রীর আয় কমলেও বেড়েছে পাকিস্তান মুসলিম লিগ নওয়াজের (পিএমএলএন) সভাপতি শাহবাজ শরীফ ও পাকিস্তান পিপলস পার্টির (পিপিপি) সভাপতি বিলাওয়াল ভুট্টো জারদারি ও তার বাবা দলের সহ-সভাপতি আসিফ আলী জারদারির আয়।

ডনের ওই প্রতিবেদন থেকে জানা যায়,পাকিস্তান ক্রিকেট দলের সাবেক অধিনায়ক ইমরান খানের সম্পত্তির পরিমাণ ২০১৫ সালে পাকিস্তানি টাকার মূল্য অনুযায়ী ৩.৫৬ কোটি টাকা ছিল। তবে ২০১৬ সালে তা কমে ১.২৯ কোটি হয়ে যায়। এরপর ২০১৭ সালে এই সম্পত্তির পরিমাণ ৪৭ লাখে নেমে আসে। এই হিসেব অনুযায়ী গত তিন বছরে প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের সম্পত্তির পরিমাণ কমেছে ৩.০৯ কোটি টাকা। এদিকে ২০১৫ সালে ইসলামাবাদের আবাসিক ফ্ল্যাট বিক্রি করার জন্য ইমরান খানের আয় ১০ লাখ টাকার একটু বেশি ছিল। তাছাড়াও সে বছর বিদেশ থেকে তিনি ৯৮ লাখ টাকা পেয়েছিলেন। তবে ২০১৬ সালে তিনি বিদেশ থেকে ৭৪ লাখ টাকা পেলেও ব্যক্তিগত আয় কমে আসে।

অন্যদিকে, গত তিন বছর ধরে তার বিরোধী নেতা শাহবাজ শরিফের আয় ক্রমশ বৃদ্ধি পেয়েছে। ২০১৫ সালে তার আয় ৭৬ লাখ টাকা ছিল, যা বেড়ে ২০১৭ সালে প্রায় এক কোটি টাকা পার হয়েছে। ২০১৫ সালে সাবেক রাষ্ট্রপতি আসিফ আলি জরদারির আয় ছিল ১০.৫ কোটি টাকা। ২০১৬ সালে এই আয় বেড়ে ১১.৪ কোটি টাকা এবং ২০১৭ সালে ১৩.৪ কোটি টাকা হয়। এছাড়া তার কাছে ৭,৭৪৮ একর জমি রয়েছে।

আরও পড়ুন: বাংলাদেশ ও ভারত দ্রুতই এই অঞ্চলের বড় অর্থনৈতিক শক্তিতে পরিণত হবে: ড. সমীর সরন

উল্লেখ্য, বর্তমানে পাকিস্তান সরকারের উপর প্রায় ৭৮.৪৬ বিলিয়ন ডলারের বৈদেশিক ধার রয়েছে। এর বিপরীতে পাকিস্তানের কাছে প্রায় ৮.২ বিলিয়ন ডলারের বিদেশি মুদ্রা রয়েছে। এই পরিসংখ্যান পাকিস্তানের অর্থনীতির মূমুর্ষু অবস্থার দিকেই ইঙ্গিত করে।

ইত্তেফাক/জেডএইচডি

এই পাতার আরো খবর -
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
prayer-time
২২ মার্চ, ২০১৯
আর্কাইভ
বেটা
ভার্সন