ঢাকা বুধবার, ১৭ জুলাই ২০১৯, ২ শ্রাবণ ১৪২৬
২৭ °সে


শ্রীলঙ্কায় হেরোইন ও কোকেন উদ্ধার; কলম্বোতে ৩ বাংলাদেশী আটক

শ্রীলঙ্কায় হেরোইন ও কোকেন উদ্ধার; কলম্বোতে ৩ বাংলাদেশী আটক
মাদক দ্রব্য। ছবি: ইন্টারনেট

শ্রীলঙ্কায় ২৭২ কেজি হেরোইন ও ৫ কেজি কোকেনসহ দুই জন বাংলাদেশি গ্রেফতারের ঘটনায় ঢাকার উত্তরা পশ্চিম থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। সিআইডি’র এএসপি মো: ইকবাল বাদী হয়ে দায়ের করা মামলায় মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রন অধিদপ্তরের হাতে আটক চয়েজ রহমানকে আসামী করা হয়েছে। এর আগে গত ৫ জানুয়ারি উত্তরা পশ্চিম থানার অধীন একটি বাড়ি থেকে চয়েজ রহমানকে আটক করে মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রন অধিদপ্তর। তাকে ৫৪ ধারায় আটকাদেশ দিয়ে কারাগারে পাঠানো হয়।

এদিকে, কলম্বোতে আটক দুই বাংলাদেশীর কাছ থেকে তথ্য নিয়ে ওই দেশের আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী তিন নারীকে আটক করেছে। আটককৃতরা সবাই বাংলাদেশী। তারা হলেন শাহীনা, রেহেনা ও তানিয়া। এই তিন নারী কলম্বোতে ওই মাদকের চালানটি পৌঁছে দিয়েছেন বলে তথ্য রয়েছে। দুই বছর ধরে অভিযুক্ত এই তিন নারী কলম্বোতে মাদক আনা নেয়ার কাজ করতেন। তারা কখনো ঢাকা থেকে সরাসরি কলম্বো আবার কখনো কুয়ালালামপুর থেকে কলম্বো হয়ে ঢাকায় আসা যাওয়া করেছেন। কলম্বোর অভিবাসন কর্তৃপক্ষের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী, শাহীনা আক্তার ২০১৭ সালের ৩০ মার্চ থেকে ২০১৮ সালের ১৬ ডিসেম্বর পর্যন্ত অন্তত ১০ বার শ্রীলঙ্কায় গেছেন। ১৯ মাসে তিনি মূলত শ্রীলঙ্কান এয়ারলাইন্স ও মালিন্দো এয়ারে তিনটি গন্তব্যে আসা-যাওয়া করেছেন। অন্যদিকে, কলম্বোতে মাদক উদ্ধারের বিষয়টি তদন্ত করতে ওই দেশ ৭ সদস্যের একটি বিশেষজ্ঞ দলকে পাঠানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। গত রবিবার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে অনুষ্ঠিত এক আন্তঃমন্ত্রণালয় সভায় এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।

মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রন অধিদপ্তরের অতিরিক্ত পরিচালক (গোয়েন্দা) নজরুল ইসলাম সিকদার বলেন, 'বিষয়টি তদন্ত করতে কলম্বোতে সরকারের ৭ সদস্যের দল যাওয়ার কথা। এ ব্যাপারে মন্ত্রনালয়ের আদেশ হাতে পেলেই আমরা যাওয়ার জন্য প্রস্তুতি নিব'।

কলম্বোতে গ্রেফতার হওয়া বগুড়ার জামাল উদ্দিন ও জয়পুরহাটের দেওয়ান রফিউল ইসলামের সঙ্গে ঢাকায় চয়েজ রহমানের যোগাযোগ ছিল কিনা এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, 'বিষয়টি তদন্ত করতে সিআইডি আটক ব্যক্তিকে জিজ্ঞাসাবাদ করেছে। সিআইডি তার মোবাইল ফোনের কললিস্ট যাচাই-বাছাই করেছে। যোগাযোগের বিষয়টি নিশ্চিত হওয়ার পরই শনিবার এ বিষয়ে উত্তরা পশ্চিম থানায় মামলা হয়েছে'।

সিআইডি’র অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (অর্গানাইজড ক্রাইম) রাজীব ফারহান বলেন, 'চয়েজ রহমানের সঙ্গে বেশ কয়েকজন ব্যক্তির যোগাযোগের তথ্য মিলেছে। তার সঙ্গে কলম্বোতে গ্রেফতার হওয়া দুই বাংলাদেশীর যোগাযোগ ছিল। এ কারণে কলম্বোর অপরাধের ঘটনার সঙ্গে সংশ্লিষ্টতার সূত্র ধরে উত্তরা পশ্চিম থানায় মামলা হয়েছে। এই মামলায় চয়েজ রহমানকে রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে'।

তিনি আরো জানান, 'চয়েজ রহমানের কাছ থেকে মোবাইল ও কম্পিউটার জব্দ করা হয়েছে। সেগুলো যাচাই-বাছাই করা হচ্ছে। জিজ্ঞাসাবাদে গ্রেফতার ব্যক্তি দাবি করেছেন, ওই চক্রের সঙ্গে এক সময় যোগাযোগ ছিল। তবে ২০১৬ সালের পর ওই চক্রের সঙ্গে তার যোগাযোগ নেই। তার কথাবার্তায় অসংলগ্নতা রয়েছে। তার সঙ্গে অন্তত একশ নারীর যোগাযোগ রয়েছে। ধারণা করা হচ্ছে মাদক পাচারের কাজে নারীদের ব্যবহার করতেন আটক ব্যক্তি'।

আরও পড়ুন: পাউবোর হাওরের ফসল রক্ষা বাধের উদ্বোধন করলেন পরিকল্পনা মন্ত্রী এম এ মান্নান

উল্লেখ্য, গত ৩১ ডিসেম্বর শ্রীলঙ্কার কলম্বোর মাউন্ট লাভিয়ানা এলাকার একটি বাড়িতে অভিযান চালিয়ে বগুড়ার জামাল উদ্দিন ও জয়পুরহাটের দেওয়ান রফিউল ইসলামকে ৯ কেজি হেরোইনসহ গ্রেফতার করে। তাদের দেওয়া তথ্য নিয়ে আরেকটি বাড়িতে অভিযান চালিয়ে ২৬৩ কেজি হেরোইন ও ৫ কেজি কোকেন উদ্ধার করে। এ নিয়ে বাংলাদেশ ও শ্রীলঙ্কার হাইকমিশন পর্যায়ে চিঠি চালাচালি হয়। বিষয়টি তদন্ত করতে ওই দেশ বাংলাদেশ হাইকমিশনারের কাছে বাংলাদেশ সরকারের সহযোগিতা চায়।

ইত্তেফাক/জেডএইচডি

এই পাতার আরো খবর -
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
prayer-time
১৭ জুলাই, ২০১৯
আর্কাইভ
বেটা
ভার্সন