ঢাকা শুক্রবার, ১৯ জুলাই ২০১৯, ৪ শ্রাবণ ১৪২৬
৩৪ °সে


গ্রীসে বঙ্গবন্ধুর জন্মবার্ষিকী ও জাতীয় শিশু দিবস উদযাপিত

গ্রীসে বঙ্গবন্ধুর জন্মবার্ষিকী ও জাতীয় শিশু দিবস উদযাপিত
এথেন্সে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৯৯তম জন্মবার্ষিকী ও জাতীয় শিশু দিবস-২০১৯ পালন করা হয়। ছবি: সংগৃহীত

বাংলাদেশ দূতাবাস, এথেন্সে যথাযথ মর্যাদা ও ব্যাপক উৎসাহ-উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৯৯তম জন্মবার্ষিকী ও জাতীয় শিশু দিবস-২০১৯ পালন করেছে।

জাতির পিতার জন্মবার্ষিকী এবং জাতীয় শিশু দিবস-২০১৯ উপলক্ষে এ বছর দূতাবাসে বিভিন্ন কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়। এই কর্মসূচির অংশ হিসেবে ১৫ মার্চ ২০১৯ তারিখে দূতাবাস এবং এথেন্সের হালান্দ্রি সিটি কর্পোরেশনের যৌথ উদ্যোগে আয়োজিত হয় এক বিশেষ ব্রান্ডিং কর্মসূচি। কর্মসূচির উদ্বোধন করেন গ্রীসে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত মো. জসীম উদ্দিন।

গ্রীসের শিশু-কিশোরদের কাছে বাংলাদেশকে তুলে ধরতে প্রবাসী বাংলাদেশি শিশু-কিশোরদের অংশগ্রহণে আয়োজিত এই কর্মসূচির নাম দেয়া হয় “Bangladesh : A Country of Vibrant Culture and Heritage. Reaching Out Program for the Young Friends in Greece’’।

অনুষ্ঠানে নিউ হালান্দ্রি সিটি কর্পোরেশনে অবস্থিত স্কুলের প্রায় দেড় শতাধিক গ্রীক ছাত্র-ছাত্রী এবং এথেন্সে বসবাসরত বিপুল সংখ্যক প্রবাসী বাংলাদেশি শিশু কিশোর অংশ নেয়। পাশাপাশি শিশু-কিশোরদের জন্য চিত্রাঙ্কন ও রচনা প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়। এই প্রতিযোগিতা সমন্বয় করেন দূতাবাসের কাউন্সেলর ড. সৈয়দা ফারহানা নূর

চৌধুরী। আয়োজনে অত্যন্ত আনন্দমুখর পরিবেশে বিপুল সংখ্যক শিশু-কিশোর অংশগ্রহণ করে। এ উপলক্ষে দূতাবাস চত্বর বর্ণাঢ্য ব্যানার, ফেস্টুন, বেলুন দিয়ে সজ্জিত করা হয়।

১৭ মার্চ জাতির পিতার জন্মদিনের কর্মসূচির শুরুতে সমবেতভাবে জাতীয় সংগীত পরিবেশন করা হয়। এরপর গ্রীসে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত মো. জসীম উদ্দিন বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন। পুষ্পস্তবক অর্পণের সময় বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক, সাংস্কৃতিক, ব্যবসায়ী, জেলা ও বিভাগভিত্তিক আঞ্চলিক সংগঠন, নারী নেতৃবৃন্দ এবং সর্বস্তরের প্রবাসী বাংলাদেশিরা উপস্থিত ছিলেন।

গ্রীসে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত মো. জসীম উদ্দিন বক্তব্য দেন। ছবি: সংগৃহীত

পুষ্পস্তবক অর্পণের পর দূতাবাসে আগত শিশু-কিশোর ও অভ্যাগত অতিথিদের নিয়ে বঙ্গবন্ধুর শুভ জন্মদিনের কেক কাটা হয়। এরপর মহামান্য রাষ্ট্রপতি, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, মাননীয় পররাষ্ট্র মন্ত্রী ও মাননীয় পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী কর্তৃক প্রেরিত বাণী পাঠ করা হয়।

জাতির পিতার জীবন ও কর্মের উপর বিশেষ পাওয়ার পয়েন্ট উপস্থাপনা করেন দূতাবাসের কাউন্সেলর মো. খালেদ। দূতাবাসের প্রথম সচিব সুজন দেবনাথের সঞ্চালনায় বঙ্গবন্ধুর গৌরবময় জীবন এবং জাতীয় শিশু দিবসের উপর বিশেষ আলোচনা সভায় প্রবাসী বাংলাদেশিগণ জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের মহৎ কর্মজীবন এবং জাতীয় শিশু দিবসের ওপর বক্তব্য রাখেন।

আরো পড়ুন: ওবায়দুল কাদেরের বাইপাস সার্জারি বুধবার

রাষ্ট্রদূত জসীম উদ্দিন তাঁর বক্তব্যে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর ঐতিহাসিক নেতৃত্বের কথা স্মরণ করেন। তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়ার দৃপ্ত পদক্ষেপে তাঁর সুযোগ্য কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে এগিয়ে যাচ্ছে বাংলাদেশ। তিনি প্রবাসীদের ঐক্যবদ্ধ থেকে দেশ গড়ার কাজে আত্মনিয়োগ করার আহবান জানান।

প্রবাসে বেড়ে ওঠা শিশু কিশোরদের দেশের সংস্কৃতির সঙ্গে পরিচিত করানো এবং জাতির পিতার আদর্শে তাদের গড়ে তোলার উপরও রাষ্ট্রদূত গুরুত্ব আরোপ করেন।

শিশু-কিশোরদের চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা। ছবি: সংগৃহীত

দিবসটি উপলক্ষে শিশু-কিশোর ও স্থানীয় শিল্পীদের নিয়ে অনুষ্ঠিত হয় মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। প্রবাসী শিশু-কিশোর ঈশিকা খলিফা এবং শিহাব সর্দারে সঞ্চালনায় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে দূতাবাস পরিবারের শিশু-কিশোর এবং প্রবাসী শিশু-কিশোররা সংগীত, কবিতা ও নৃত্য পরিবেশন করেন। এরপর চিত্রাঙ্কন ও রচনা প্রতিযোগিতার বিজয়ীদের মাঝে পুরস্কার তুলে দেন রাষ্ট্রদূত এবং তাঁর সহধর্মিণী মিসেস শায়লা পারভীন।

গ্রীসে বসবাসরত বিপুল সংখ্যক প্রবাসী বাংলাদেশিদের জন্য বঙ্গবন্ধুর জন্মবার্ষিকীর এই অনুষ্ঠান সৃষ্টি করে এক মিলনমেলা। তাঁদের প্রাণবন্ত ও স্বতঃস্ফূর্ত অংশগ্রহণে দূতাবাসে একটি আনন্দময় পরিবেশ সৃষ্টি হয়।

ইত্তেফাক/মোস্তাফিজ

এই পাতার আরো খবর -
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
prayer-time
১৯ জুলাই, ২০১৯
আর্কাইভ
বেটা
ভার্সন