ঢাকা শনিবার, ২৪ আগস্ট ২০১৯, ৯ ভাদ্র ১৪২৬
৩০ °সে


বর্ণিল আয়োজনে বাংলা নববর্ষ উদযাপন করেছে টোকিওস্থ বাংলাদেশ দূতাবাস

বর্ণিল আয়োজনে বাংলা নববর্ষ উদযাপন করেছে টোকিওস্থ বাংলাদেশ দূতাবাস
আগত অতিথিদের সাথে বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত।

আবহমানকাল থেকে নতুন উদ্দীপনা নিয়ে প্রতি বছর বাংলা নববর্ষ আসে বাঙ্গালীর জীবনে। বাংলা সংস্কৃতির অনন্য অনুষঙ্গ নববর্ষ মঙ্গল ও আনন্দের বারতা ছড়িয়ে দেয় সমগ্র বাংলাদেশসহ প্রবাসে অবস্থানকারী সকল বাংলাদেশী, এমনকি বিদেশিদের মাঝেও। জাপানও এর ব্যতিক্রম নয়। বাংলা নববর্ষ ১৪২৬ উপলক্ষে আজ (২০ এপ্রিল ২০১৯) শুক্রবার জাপানের টোকিওস্থ বাংলাদেশ দূতাবাস, বাংলাদেশ হাউসে বিদেশি বন্ধুদের সম্মানে নববর্ষ উদযাপন ও মধ্যাহ্ন ভোজনের আয়োজন করে।

অনুষ্ঠানে আমন্ত্রিত অতিথির মধ্যে উপস্থিত ছিলেন জাপানের সংসদ-সদস্য, জাপানে নিযুক্ত বিভিন্ন দেশের রাষ্ট্রদূত এবং আন্তর্জাতিক সংস্থার প্রতিনিধিগণ, জাপান সরকারের বিভিন্ন মন্ত্রণালয়য়ের উচ্চপদস্থ কর্মকর্তাবৃন্দ, জাপানের সুশীল সমাজের প্রতিনিধিগণ, গণমাধ্যম ব্যক্তিত্ব ও সুধীজন। অতিথিদের বাংলা নববর্ষের শুভেচ্ছা জানান জাপানে নিযুক্ত বাংলাদেশের মান্যবর রাষ্ট্রদূত রাবাব ফাতিমা। তিনি তাঁদের উত্তরীয় দিয়ে বরণ করে নেন। এছাড়া বিভিন্ন দেশের মহিলা অতিথিদের চুরি এবং টিপ পরিয়ে দেন রাষ্ট্রদূত ।

বাংলা নববর্ষ ১৪২৬ উদযাপন উপলক্ষে বাংলাদেশ দূতাবাস ভবনকে বাংলার ঐতিহ্যবাহী বর্ণিল সাঁজে সাজিয়ে তোলা হয়। সুদৃশ্য আল্পনার রঙ্গে রাঙ্গানো হয় অতিথিদের আগমন ও অভ্যর্থনা স্থান। দূতাবাসের দেয়ালে দেয়ালে শোভা পায় চিরায়ত বাংলায় নববর্ষ উদযাপনের অনন্য উপাদান নানান রঙের মুখোশ। বাঙ্গালী সংস্কৃতিতে মুগ্ধ কয়েকজন বিদেশি মহিলা রাষ্ট্রদূত পরম আনন্দে শাড়ী পরায় অংশ নেন, এছাড়া মেহিদি রঙ্গে বিদেশি বন্ধুদের হাত রঙিন করার ব্যবস্থা ছিলো। অনেকে তাঁদের হাতে বাংলাদেশি মেহেদী দিয়ে আল্পনা করিয়েছেন।

আরো পড়ুন: ভুলে বিজেপিকে ভোট, নিজের আঙ্গুল কেটে ফেললেন যুবক

আগত অতিথিগণ বাংলাদেশের আতিথেয়তা ও আকর্ষণীয় এই সাঁজে তাঁদের মুগ্ধতা ও উচ্ছ্বাস প্রকাশ করেন। তাঁদের চোখে ছিলো আনন্দ আর তৃপ্তির ঝিলিক। বিদেশি বন্ধুদের বাংলাদেশি ঐতিহ্যবাহী ও বাঙালিয়ানা খাবার দিয়ে আপ্যায়ন করা হয়।

ইত্তেফাক/এমআর

এই পাতার আরো খবর -
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
prayer-time
২৪ আগস্ট, ২০১৯
আর্কাইভ
বেটা
ভার্সন