ঢাকা মঙ্গলবার, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ২ আশ্বিন ১৪২৬
২৮ °সে


বাংলাদেশের উন্নয়নের গল্পে মুগ্ধ লেইডেন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা

বাংলাদেশের উন্নয়নের গল্পে মুগ্ধ লেইডেন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা
ছবি : সংগৃহীত

জনকূটনীতির অংশ হিসেবে দি হেগস্থ বাংলাদেশ দূতাবাস গত ২২শে আগস্ট নেদারল্যান্ডের বিখ্যাত লেইডেন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের স্বাগত জানায়। সফরকালে শিক্ষার্থীগণ নেদারল্যান্ডে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত শেখ মুহম্মদ বেলাল এবং দূতাবাসের অন্যান্য কর্মকর্তাগণের সঙ্গে মতবিনিময় করে বাংলাদেশের উন্নয়ন অগ্রযাত্রার বিভিন্ন বিষয়ে তাদের আগ্রহ প্রকাশ করে।

লেইডেন বিশ্ববিদ্যালয়ের ১৫ সদস্যের ছাত্র প্রতিনিধিদলে ফ্রান্স, মরক্কো, হাঙ্গেরি, বুলগেরিয়া, ইটালি, চেক রিপাবলিক, স্পেন, যুক্তরাষ্ট্র, ইন্দোনেশিয়া এবং নেদারল্যান্ডের শিক্ষার্থীরা অংশগ্রহণ করেন।

অনুষ্ঠানের শুরুতেই বাংলাদেশের উন্নয়ন অগ্রযাত্রার একটি ভিডিও প্রদর্শন করা হয়। ছাত্র প্রতিনিধিদল বাংলাদেশের উন্নয়ন অগ্রযাত্রায় বিস¥য় প্রকাশ করে। রাষ্ট্রদূত শেখ মুহম্মদ বেলাল বাংলাদেশের দূরদর্শী নেতৃত্বে কৌশলগত পরিকল্পনা যথা ভিশন-২০২১, ভিশন-২০৩০ তথা টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্য এবং ভিশন-২০৪১ উল্লেখপূর্বক শিক্ষার্থীগণকে বাংলাদেশের উন্নয়ন কর্মকাণ্ড এবং আন্তর্জাতিক শান্তি ও নিরাপত্তায় বাংলাদেশের অবদানের বর্ণনা দেন।

আরো পড়ুন: হবু স্ত্রীর কাছ থেকেও ঘুষ নিয়েছেন পুলিশ কর্মকর্তা!, ভিডিও ভাইরাল

বিশ্ব শান্তি রক্ষায় বাংলাদেশের শান্তিরক্ষী বাহিনীর অবদানের কথা উল্লেখ করে রাষ্ট্রদূত বেলাল বাংলাদেশের সশস্ত্র বাহিনীর নারী ও পুরুষ শান্তিরক্ষীদের বীরত্বময় ত্যাগের বিষয়ে শিক্ষার্থীদের দৃষ্টি আকর্ষণ করেন। বসনিয়া যুদ্ধে মাত্র ১২০০ বাংলাদেশি শান্তিরক্ষীর বিহাচ এলাকার জনগোষ্ঠির জীবন রক্ষার বিষয়ের দিকে আলোকপাত করে রাষ্ট্রদূত বেলাল বিশ্বের বিভিন্ন দেশে বাংলাদেশের শান্তিরক্ষী বাহিনীর অবদানের বিবরণ দেন।

একটি রক্তক্ষয়ী গণহত্যার মধ্য দিয়ে বাংলাদেশের জন্মের কথা উল্লেখ করে রাষ্ট্রদূত শিক্ষার্থীদের জাতিসংঘের তত্ত্বাবধানে যেকোন মানবিক ডাকে বাংলাদেশের সহানুভূতিশীলতার উপর দৃষ্টি আকর্ষণ করেন। এই মানিবকতার ডাকেই বাংলাদেশ মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্য থেকে প্রায় ১২ লক্ষ জোরপূর্বক বাস্তচ্যুত রোহিঙ্গাদের আশ্রয় প্রদান করছে। প্রায় ১৭ কোটি লোকের দেশের মধ্যে এই ১২ লক্ষ মানুষকে আশ্রয় প্রদান কোনভাবেই সহজ নয়। তা সত্ত্বেও, বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যাকে কিনা বিশ্ব সম্প্রদায় মানবতার মা হিসেবে অভিহিত করেছে, তার নেতৃত্বে বাংলাদেশ মানবিক দায়িত্বে এই বিশাল বাস্ত‘চ্যুত জনগোষ্ঠিকে আশ্রয় প্রদান করেছে।

বাংলাদেশের জাতীয় উন্নয়নে নারীদের ভূমিকা ‘নারীর ক্ষমতায়ন এবং সামাজিক সহিষ্ণুতা’ উপজীব্যের আলোকে আলোচনা করা হয়। বাংলাদেশ বদ্বীপ পরিকল্পনা ২১০০ নিয়েও আলোচনা করা হয়। শিক্ষার্থীরা নেদারল্যান্ড এবং বাংলাদেশ বদ্বীপের সাদৃশ্য এবং বৈসাদৃশ্য নিয়ে জানতেও আগ্রহ প্রকাশ করে। বাংলাদেশ বদ্বীপ পরিকল্পনা প্রনয়নে ডাচ সরকারের সহযোগিতার বিষয়টি উল্লেখ করে রাষ্ট্রদূত শিক্ষার্থীদের বাংলাদেশ বদ্বীপ পরিকল্পনা সম্পর্কে সম্যক ধারণা দেন এবং কিভাবে একজনের দোষে অন্যজন জলবায়ু পরিবর্তনে ভুক্তভোগী হয় তার উপর আলোকপাত করেন।

লেইডেন বিশ্ববিদ্যালয় ১৫৭৫ সালে প্রতিষ্ঠিত হয়। বিশ্বের বিভিন্ন দেশের প্রায় ৩০ হাজার শিক্ষার্থী এ বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যয়ন করে। বাৎসরিক ৬৫২ মিলিয়ন ইউরো বাজেট নিয়ে লেইডেন বিশ্ববিদ্যালয় নিজেকে ইউরোপের একটি অন্যতম বিশ্ববিদ্যালয় হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করেছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের ৬৫২ মিলিয়ন ইউরো বাজেটের মাত্র ৬৮ মিলিয়ন ইউরো টিউশন ফি থেকে আহরণ করা হয়। বাকী অর্থ সরকারের অনুদান এবং অন্যান্য প্রাতিষ্ঠানিক এবং ব্যবসায়ী প্রতিষ্ঠান থেকে অনুদান হিসেবে প্রাপ্ত হয়।

এ পর্যন্ত ১৬ জন নোবেলজয়ী ছাড়াও লেইডেন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী ছিলেন ফরাসী দার্শনিক, বিজ্ঞানী এবং গণিতজ্ঞ রেনে ডেসকার্টেস, বিশ্বখ্যাত ডাচ্ চিত্রশিল্পী রেমব্যান্ডট, বিখ্যাত আইনজ্ঞ হুগো গ্রোটিয়াস যিনি আন্তর্জাতিক আইনের গোড়াপত্তন করেছেন, ডাচ দার্শনিক, রাজনৈতিক চিন্তাবিদ বারুচ স্পিনোজা, ফরাসি-জার্মান লেখক ব্যারন দ্যা‘হলবাচ এবং গণিতজ্ঞ এবং বিজ্ঞানী ক্রিশ্চিয়ান হুইজেনসসহ অনেকে।

এই পাতার আরো খবর -
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
prayer-time
১৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৯
আর্কাইভ
বেটা
ভার্সন