৭৫ শতাংশ বিদেশ ফেরত হোম কোয়ারেন্টাইন মানেননি

৭৫ শতাংশ বিদেশ ফেরত হোম কোয়ারেন্টাইন মানেননি
গ্রামে যাওয়ার জন্য কমলাপুর স্টেশনে মানুষের ভিড়। ছবি : ফোকাস বাংলা

দেশের বেশিরভাগ মানুষ করোনাভাইরাস সম্পর্কে জেনেছেন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম থেকে এবং প্রায় ৩০ শতাংশ সংবাদমাধ্যম থেকে। প্রায় ৭৫ শতাংশ মানুষ দাবি করেছেন, তাদের আশেপাশের বিদেশ ফেরতদের যথাযথ হোম কোয়ারেন্টাইন মানতে দেখেননি। তাদেরকে জনসমাগমে বিভিন্ন সময়েই দেখতে পাওয়া যায়।

দেশের ৫,২৩৯ জন মানুষের ওপর পরিচালিত এক জনমত জরিপে এসব তথ্য উঠে এসেছে। রাজশাহী প্রকৌশল এবং প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের নগর ও অঞ্চল পরিকল্পনা বিভাগের অধ্যাপক মো. সাকিব জুবায়েরের নেতৃত্বে একদল শিক্ষার্থী গত ১৯ ও ২০ মার্চ ওই জরিপ পরিচালনা করেন। ‘বাংলাদেশে করোনা ছড়ানো প্রতিরোধে সামাজিক সচেতনতার ভূমিকা’ শিরোনামের ওই জরিপে অংশ নেয়া বেশিরভাগই ছিলেন ২০-২৯ বছর বয়সী।

জরিপের ফলাফলে দেখা যায়, প্রায় ৮৭ শতাংশ মানুষ দাবি করছেন যে, তাদের এলাকায় কোনো প্রকার ক্যাম্পেইন হয়নি। বাকিরা জানিয়েছেন, তাদের এলাকায় সপ্তাহে মাত্র ১-২ দিন ক্যাম্পেইন হয়েছে। ৬০ শতাংশ মানুষ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে করোনা নিয়ে ক্যাম্পেইন করছেন এবং প্রায় ২৭ শতাংশ মানুষের দাবি যে তারা কোনো প্রকার ক্যাম্পেইনের সঙ্গে যুক্ত নেই। এছাড়া শতকরা ৮৩ ভাগ মানুষ মাস্ক ব্যবহার করছেন এবং এর বেশিরভাগ সাধারণ কাপড়ে তৈরি। ২০ শতাংশ মানুষ আইইডিসিআর এর হটলাইন নাম্বার জানেন না।

দেশে প্রথম করোনা রোগী সনাক্ত করা হয় গত ৮ মার্চ। ওই জরিপে দেখা গেছে, অনেকেই ছুটি পেয়ে ভ্রমণে, আত্মীয়ের বাসায় বেড়াতে কিংবা বিভিন্ন জনসমাগমে গিয়েছেন। প্রায় অর্ধেকের মতো মানুষ তাদের বাসায় বাইরের কাউকে আসার অনুমতি দিচ্ছেন। জরিপে অংশগ্রহণকারীদের বেশিরভাগই বলছেন, করোনা ভাইরাস সনাক্তকরণে আরো বেশি পরীক্ষা করা হোক। সরকারি উদ্যোগে এলাকায় এলাকায় ক্যাম্পেইনের পরিমাণ করা হোক।

মহামারি করোনা নিয়ে এ জরিপ পরিচালনা দলে আরো ছিলেন- রাজশাহী প্রকৌশল এবং প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী মো. আবু সাদাত ও ফারহানা আফরোজ, বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের সাকিব শাহরিয়ার, খুলনা প্রকৌশল এবং প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের হিমেল আহমেদ।

ইত্তেফাক/এএম

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত