মিলান ও দোহায় আটকে আছেন ৫৫ জন ইতালি প্রবাসী

মিলান ও দোহায় আটকে আছেন ৫৫ জন ইতালি প্রবাসী
[ছবি: সংগৃহীত]

ইতালির বাণিজ্যিক শহর মিলান ও কাতারের রাজধানী দোহায় ৫৫ জন ইতালিগামী বাংলাদেশীকে ইমিগ্রেশনে আটকে রেখেছে দুই দেশের ইমিগ্রেশন পুলিশ। ইতালি সরকারের নিয়ম না মেনে যাওয়ায় এসব প্রবাসীদের ইতালিতে প্রবেশের অনুমতি দেয়া হচ্ছেনা বলে জানা গেছে।

জানা যায়, করোনার কারণে দীর্ঘদিন ফ্লাইট বন্ধ থাকার পর ইতালি সরকার শর্তসাপেক্ষে বাংলাদেশে আটকে পড়া প্রবাসীদের ইতালিতে ফেরার সুযোগ দিলে শনিবার কাতার এয়ারওয়েজের একটি ফ্লাইট প্রবাসী বাংলাদেশীদের নিয়ে দেশটিতে পৌঁছায়। তবে ইতালির সরকারের নিয়ম মেনে ফ্লাইট পরিচালনা করায় সে ফ্লাইটের সবাই দেশটিতে প্রবেশের অনুমতি পায়।

তবে সোমবার দুপুরে এমিরেটস এয়ারলাইন্সের একটি ফ্লাইট বাংলাদেশ থেকে ইতালির মিলান শহরে গিয়ে পৌঁছালে সে ফ্লাইটের ১২ বাংলাদেশীকে বাদে অন্যান্য সকল বাংলাদেশীকে দেশটিতে প্রবেশের অনুমতি দেয়া হয়েছে। ইতালি সরকারের নিয়ম না মেনে দেশটিতে পাড়ি জমানোয় এই ১২ বাংলাদেশীকে দেশটিতে প্রবেশের অনুমতি না দিয়ে বাংলাদেশে ফেরত পাঠানোর প্রক্রিয়া শুরু করেছে মিলান ইমিগ্রেশন পুলিশ।

তবে এবিষয়ে মিলান ইমিগ্রেশনে আটকে পড়া এমিরেটস এয়ারলাইন্সের যাত্রী শিমুল জানিয়েছেন “এখানকার ইমিগ্রেশন পুলিশ বলছে, ‘ইতালির আইনানুযায়ী ফ্লাইট শিথিলতায় এই মুহূর্তে শুধুমাত্র যাদের দীর্ঘমেয়াদী পারমিট কার্ড আছে তারাই ইতালিতে প্রবেশ করতে পারবেন। তবে এই ফ্লাইটে ১২ জন বাংলাদেশীর দীর্ঘমেয়াদী পারমিট কার্ডের পরিবর্তে স্বল্পমেয়াদী পারমিট কার্ড থাকায় তারা এই মুহূর্তে ইতালিতে প্রবেশ করতে পারবেন না’।

এছাড়াও শিমুল আরো জানায়, মিলান ইমিগ্রেশন পুলিশ আমাদের আগামীকাল সকালে এমিরেটসের ফিরতি ফ্লাইটে বাংলাদেশে পাঠিয়ে দিবেন বলে জানিয়েছেন।

তবে এসব প্রবাসীদের যেন ইতালিতে প্রবেশ করতে দেয়া হয় এবিষয়ে ইতালির স্বরাষ্ট্রমন্ত্রণালয়ের সাথে টেলিফোনে আলাপ করছেন দেশটিতে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত আব্দুস সোবাহান সিকদার।

এদিকে, বাংলাদেশ থেকে ইতালিগামী যাত্রী নিয়ে সোমবার কাতার এয়ারওয়েজের একটি ফ্লাইট কাতারের রাজধানী দোহায় পৌঁছলে পরবর্তীতে ইতালির ফ্লাইটে উঠতে দেয়া হয়নি ৪৩ জন ইতালি প্রবাসীকে। তবে ফ্লাইটে যে-সকল বাংলাদেশীর দীর্ঘমেয়াদী পারমিট কার্ড ছিলো তারা বিনা বাধায় ইতালির ফ্লাইটে উঠতে পেরেছেন।

তবে এই স্বল্পমেয়াদী পারমিট কার্ডধারী ৪৩ জনকে কাল বাংলাদেশে ফেরত পাঠানো হবে বলে জানা গেছে। এদের মধ্যে একজন অন্তঃসত্ত্বা বাংলাদেশী নারীও রয়েছেন।

ইত্তেফাক/এমআর

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত