সৌদির বাংলাদেশ দূতাবাসে সশস্ত্র বাহিনী দিবস পালিত

সৌদির বাংলাদেশ দূতাবাসে সশস্ত্র বাহিনী দিবস পালিত
সশস্ত্র বাহিনী দিবস ‍উপলক্ষে বক্তব্য রাখছেন রাষ্ট্রদূত ড. মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারী।ছবি: ইত্তেফাক

সৌদি আরবের রিয়াদস্থ বাংলাদেশ দূতাবাসে যথাযথ মর্যাদায় সশস্ত্র বাহিনী দিবস-২০২০ পালিত হয়েছে। স্থানীয় সময় শনিবার সকালে দূতাবাসের অডিটোরিয়ামে এক আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়।

সভার শুরুতে দিবসটি উপলক্ষে প্রদত্ত রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর বাণী পাঠ করা হয়।

সৌদি আরবে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত ড. মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারী সশস্ত্র বাহিনী দিবস উপলক্ষে বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নেতৃত্বে সশস্ত্র বাহিনী ও বীর মুক্তিযোদ্ধাদের সংগ্রাম ও প্রতিরোধের মাধ্যমে আমরা মহান স্বাধীনতা অর্জন করতে সক্ষম হই। ১৯৭১ সালের এই দিনে বাংলাদেশের সেনা, নৌ ও বিমান বাহিনীর সম্মিলিত আক্রমণে পাক হানাদার বাহিনী দিশেহারা হয়ে পড়ে যা আমাদের বিজয় অর্জনকে ত্বরান্বিত করে।

এ সময় রাষ্ট্রদূত গভীর শ্রদ্ধায় স্মরণ করেন জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, মুক্তিযুদ্ধে ৩০ লক্ষ শহীদসহ সম্ভ্রম হারানো ২ লক্ষ মা-বোনদের। রাষ্ট্রদূত বলেন, আমাদের মহান মুক্তিযুদ্ধে সশস্ত্র বাহিনীর অবদান জাতি গভীর শ্রদ্ধায় স্মরণ করে।

রাষ্ট্রদূত ড. মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারী বিপিএম (বার) বলেন, সশস্ত্র বাহিনী বিশ্ব শান্তি রক্ষায় অনবদ্য ভূমিকা পালন করছে যা বাংলাদেশের জন্য অত্যন্ত গর্বের বিষয়। পৃথিবীর বিভিন্ন সংকট বহুল দেশে সশস্ত্র বাহিনীর শান্তিরক্ষীরা জাতিসংঘের শান্তি মিশনে সফলতার সাথে দায়িত্ব পালন করছে।

রাষ্ট্রদূত বলেন, বর্তমান সরকার সশস্ত্র বাহিনীর আধুনিকায়নে ফোর্সেস গোল-২০৩০ প্রণয়ন করেছে যা সশস্ত্র বাহিনীকে আরও দক্ষ, আধুনিক ও গতিশীল করবে।

দূতাবাসের ডিফেন্স এটাশে ব্রিগেডিয়ার জেনারেল সাঈদ সিদ্দিকী অনুষ্ঠানের উপস্থাপনা করেন। এ সময় সশস্ত্র বাহিনীর বিভিন্ন কার্যক্রম, ইতিহাস, ঐতিহ্য নিয়ে নির্মিত একটি তথ্যচিত্র প্রদর্শন করা হয়। এছাড়া জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, সশস্ত্র বাহিনীর সকল সদস্য ও দেশ, জাতির মঙ্গল কামনা করে বিশেষ দোয়া করা হয়।

আলোচনা অনুষ্ঠানে দূতাবাসের সকল কর্মকর্তা ও কর্মচারীরা উপস্থিত ছিলেন। এছাড়া সশস্ত্র বাহিনীর যে সকল কর্মকর্তা সৌদি আরবে প্রশিক্ষণ গ্রহণ করছেন তারাও অনুষ্ঠানে যোগ দেন।

ইত্তেফাক/এএএম

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত