টরন্টোর বাংলাদেশ কনস্যুলেটে বিজয় দিবস উদযাপন

টরন্টোর বাংলাদেশ কনস্যুলেটে বিজয় দিবস উদযাপন
বক্তব্য রাখছেন কনসাল জেনারেল নাঈম উদ্দিন আহমেদ। ছবি : সংগৃহীত

কানাডার টরন্টোতে বাংলাদেশ কনস্যুলেট জেনারেল যথাযথ মর্যাদায় বিজয় দিবস উদযাপন করেছে। কোভিড-১৯-এর কারণে লকডাউনের মধ্যেও বিজয় দিবসের এই অনুষ্ঠানটি সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে ও স্বাগতিক দেশের বিধি-বিধান পালন করে আয়োজন করা হয়েছে।

বাংলাদেশের জাতীয় পতাকা উত্তোলনের মাধ্যমে দিবসের কার্যক্রম শুরু হয়। অনুষ্ঠানে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর বিজয় দিবসের ভিডিও বার্তা প্রদর্শন, পররাষ্ট্রমন্ত্রী ও পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীর বাণী পাঠ, বঙ্গবন্ধু ও বাংলাদেশের উপর প্রামাণ্যচিত্র প্রদর্শন, বাংলাদেশের কনসাল জেনারেলের বক্তব্য ও বিশেষ দোয়া অনুষ্ঠিত হয়। ৫০-তম বিজয় দিবসে কনস্যুলেট জেনারেলে ‘বঙ্গবন্ধু কর্নার’ চালু করা হয়।

কনসাল জেনারেল নাঈম উদ্দিন আহমেদ তার বক্তব্যে বলেন, বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বলিষ্ঠ নেতৃত্বে বর্তমান সরকার বাংলাদেশকে ২০২১ সালের মধ্যে একটি মধ্যম-আয় ও ২০৪১ সালের মধ্যে উন্নত সমৃদ্ধশালী দেশে পরিণত করার লক্ষ্যে নিরলস কাজ করে যাচ্ছে। গত ১০ ডিসেম্বর বহুল প্রত্যাশিত পদ্মা বহুমুখী সেতুর সর্বশেষ স্প্যানটি স্থাপন করা হয়েছে।

তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধু যে সোনার বাংলার স্বপ্ন দেখেছিলেন, তার সুযোগ্য কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে সে ‘সোনার বাংলা’অর্জন সম্ভব- শুধু প্রয়োজন দলমত নির্বিশেষে স্বাধীনতার স্বপক্ষে একটি অসাম্প্রদায়িক মানসিকতা। প্রধানমন্ত্রীর বিজয় দিবসের ভাষণ উদ্ধৃত করে কনসাল জেনারেল বলেন, ঐতিহ্যগতভাবে বাংলাদেশ একটি অসাম্প্রদায়িক রাষ্ট্র- এ দেশ যেমন রবীন্দ্রনাথ, লালন শাহ ও জীবনানন্দের- তেমনি শাহজালাল (রঃ), শাহ পরান (রঃ) ও খান জাহান আলীর। ১৯৭১ সালে লাখো শহীদের আত্মত্যাগ ছিল একটি অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশের জন্য- ধর্মনিরপেক্ষ বাংলাদেশের মধ্যেই নিহিত আছে আমাদের কষ্টার্জিত স্বাধীনতার সার্থকতা।

ইত্তেফাক/ইউবি

Nogod
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত