ঢাকা শুক্রবার, ১৮ অক্টোবর ২০১৯, ২ কার্তিক ১৪২৬
৩০ °সে


জাপানে ‘সাওল হার্ট’ সেমিনার অনুষ্ঠিত

জাপানে ‘সাওল হার্ট’ সেমিনার অনুষ্ঠিত
টোকিওতে বিনা রিং, বিনা অপারেশনে হৃদরোগ চিকিৎসার সাওল হার্ট সেমিনার। ছবি: সংগৃহীত

জাপানের রাজধানী টোকিওতে বিনা রিং, বিনা অপারেশনে হৃদরোগ চিকিৎসার সাওল হার্ট সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়েছে। জাবাচী ইন্টারন্যাশনাল কো. লি. এর উদ্যোগে সোমবার দুপুর ২টার দিকে এ সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়।

সেমিনারে বাংলাদেশ সাংবাদিক লেখক ফোরাম (জাপান) এর সভাপতি ও নাট্যজন জুয়েল আহসান কামরুলের সঞ্চালনায় স্বাগত বক্তব্য দেন জাবাচীর ব্যবস্থাপনা পরিচালক মুকুল মোস্তাফিজ। প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ সাওল হার্ট সেন্টারের প্রতিষ্ঠাতা কবি মোহন রায়হান।

তিনি বলেন, জাপানের মত উন্নত দেশে প্রবাসী বাঙালিরা কঠোর পরিশ্রম করে নিজেদের ভাগ্য পরিবর্তন করেছেন কিম্বা অনেকে সেই সংগ্রামে ব্যস্ত আছেন কিন্তু দেশে তাদের প্রিয়জনেরা কেমন আছেন সেই চিন্তায় প্রায়ই মনকষ্টে থাকেন। বাংলাদেশের জীবন যাপন ও খাদ্যাভ্যাস মানুষকে নানা অসুখে আক্রান্ত করছে বিশেষত হার্ট, ডায়াবেটিস, ব্লাড প্রেশার, ক্যানসার মহামারিতে রূপ নিচ্ছে। সাওল হার্ট সেন্টার জাপান প্রবাসীদের স্বদেশে রেখে আসা স্বজনদের এইসব মহাঘাতক রোগ থেকে দূরে রাখার দায়িত্ব নিতে চায়। জনসচেতনতা সৃষ্টির লক্ষ্যে সাওল সারাদেশে ফ্রি হার্ট সেমিনার আয়োজন করে থাকে। আপনারা আপনাদের স্বজনদের সুস্থতার জন্য অনুগ্রহ করে এই সেমিনারে পাঠাবেন। আমরা বাংলাদেশে লাইফস্টাইল পরিবর্তন, বিনাতেলে রান্নার নিরাপদ খাদ্য ও স্বাস্থ্য আন্দোলন গড়ে তুলছি।’

আরো পড়ুন: মঠবাড়িয়ায় শিক্ষকের বেতের আঘাতে শিক্ষার্থীর চোখ নষ্টের আশংকা

সেমিনারে ডা. বিমল ছাজেড়ের হৃদরোগ প্রতিরোধ ও প্রতিকার বিষয়ক ভিডিও প্রদর্শন করা হয় এবং মোহন রায়হান উপস্থিত ব্যক্তিবর্গের বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দেন।

অনুষ্ঠানে শিক্ষক, চিকিৎসক, ব্যবসায়ী, চাকরিজীবীসহ বাঙালি ও জাপানী বিশিষ্ট নাগরিকগণ উপস্থিত ছিলেন। এছাড়া প্রত্যেকেই এই আয়োজনকে ‘মহৎ উদ্যোগ’ বলে উল্লেখ করেন এবং সাওলের স্বাস্থ্য-আন্দোলনের সঙ্গে একাত্ম ঘোষণা করেন এবং দেশ তাদের স্বজনদের সাওলে যাওয়ার জন্য বলবেন এবং জাপানেও সাওলকে ছড়িয়ে দেবার চেষ্টা করবেন বলে উল্লেখ করেন।

অনুষ্ঠানের বিশেষ আকর্ষণ ছিল বিনা তেলে মধ্যাহ্ন ভোজন। জাপান প্রবাসী খোদেজা আক্তার মুক্তা ও আবদুর রশীদ দম্পতি সাওল পদ্ধতিতে বিনাতেলে পোলাও রান্না করেন। খাবার খেয়ে সবাই বিস্ময় প্রকাশ এবং স্বাদের প্রশংসা করেন। তাদের সন্তান আজরিন কারিমা নাবা সবাইকে আবৃত্তি করে শোনান। অনুষ্ঠান আয়োজনে সার্বিক সহযোগিতা করেন ডা. তাজবীর আহমেদ সাজিদ।

ইত্তেফাক/বিএএফ

এই পাতার আরো খবর -
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
prayer-time
১৮ অক্টোবর, ২০১৯
আর্কাইভ
বেটা
ভার্সন