ঢাকা শুক্রবার, ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ১৫ ফাল্গুন ১৪২৬
২০ °সে

প্রিয়জনের হাতে প্রেমের পঙিক্তমালা

প্রিয়জনের হাতে প্রেমের পঙিক্তমালা
ছবি: সংগৃহীত

সারা ঢাকা শহরের মানুষ যেন এসে জড়ো হয়েছিলেন বইমেলা প্রাঙ্গণে। পহেলা ফাল্গুন বিশ্ব ভালোবাসা দিবস আর সাপ্তাহিক ছুটি সব এক হয়ে যাওয়ায় মানুষের বাঁধভাঙা জোয়ার এসে স্পর্শ করেছিল বইমেলাকে। হাতে ফুল পরনে হলুদ লাল শাড়ি আর ছেলেরা পাঞ্জাবির পরে রঙিন করে তুলেছিলেন বইমেলাকে।

ভালোবাসা আর বই—এ যেন একই সূত্রে গাঁথা। যে কথা মুখে বলা যায় না প্রিয়জনকে। সে কথাই যেন কবি বলে দেন প্রেমিকের হয়ে। সে জন্যই বইয়ের আশ্রয় নেওয়া। বসন্ত উদ্যাপন আর ভালোবাসার স্পর্শে বর্ণিল হয়ে উঠেছিল অমর একুশে বইমেলা। তরুণ-তরুণীরা হাত ধরে বললো : ‘ভালোবাসি’। গোলাপ ছিল কারো হাতে, কারো হাতে ছিল না কোনো ফুল, হাতে ছিল বই। প্রেমের পংক্তিমালা দিয়ে উদ্যাপন করলেন ভালোবাসার দিনটি। গতকাল বিশ্ব ভালোবাসা দিবসের জোয়ারে ভেসে অনেকেই এসেছিলেন বইমেলা প্রাঙ্গণে। শুধু বইমেলা কেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় চত্বর, প্রতিটি রাস্তায় লাল শাড়ি আর লাল পাঞ্জাবি পরে ঘুরে বেড়িয়েছেন অনেকেই।দুপুরের পর থেকে মেলায় লোকসমাগম বাড়তে থাকে। বিকালের পর এত বড়ো বইমেলাকেও নিতান্তই ছোটো মনে হচ্ছিল। এত মানুষ মেলায় প্রবেশ করেছিল যে কোথাও এক দণ্ড দাঁড়িয়ে থেকে আড্ডা দেওয়ার সুযোগ পাওয়া যায়নি। মানুষের স্রোত বয়ে গেছে মেলার এ প্রান্ত থেকে অন্য প্রান্তে। গতকাল মেলায় এসেছিলেন দুই জনপ্রিয় কথাসাহিত্যিক ইমদাদুল হক মিলন ও আনিসুল হক। পাঠকদের অটোগ্রাফ দিতে ব্যস্ত ছিলেন তারা।

শুক্রবার অমর একুশে গ্রন্থমেলা ঘুরে দেখা যায়, সকালে শিশুপ্রহর ছিল খুদে পাঠকের কলকাকলিতে ভরা। ওরা এসেছিল মা-বাবার হাত ধরে। সিসিমপুরের হালুম, ইকরি, টুকটুকির সঙ্গে চমত্কার একটা সময় কাটিয়ে ছুটেছে বই কিনতে। কেউবা কিনেছে ডাইনোসরের বই, কেউবা ছবি আঁকার। আবার কেউ কেউ গল্পের।

নতুন বই

গতকাল মেলায় নতুন বই এসেছে ৩৬৯টি। এর মধ্যে উল্লেখযোগ্য হচ্ছে :বাংলা একাডেমি এনেছে আসাদ চৌধুরীর গ্রন্থ ‘সংগ্রামী নায়ক বঙ্গবন্ধু’, গ্রন্থকুটির এনেছে কবি হাবীবুল্লাহ সিরাজীর ‘আমার পাণ্ডব’, শিশু গ্রন্থ কুটির এনেছে ‘একে চন্দ্র দুয়ে পক্ষ’, অনুপম প্রকাশনী এনেছে মুহম্মদ জাফর ইকবালের ‘ছোট একটা নেংটি ইঁদুর’, আনিসুল হকের ‘আমার সোনার বাংলা আমি তোমায় ভালোবাসি’, কথা প্রকাশ এনেছে ইমদাদুল হক মিলনের ‘বাড়িটায় কে যেন থাকে’, সালেক খোকনের ‘দেশে বেড়াই’, আগামী প্রকাশনী এনেছে মোহাম্মদ হাননানের ‘শতাব্দীর বঙ্গবন্ধু’, দ্বৈ প্রকাশ এনেছে সেলিনা হোসেনের ‘কাকতাড়ুয়া’, নির্মলেন্দু গুণের ‘নির্বাচিত ছড়া’, ফরিদুর রেজা সাগরের ‘মুক্তিযুদ্ধের কিশোর গল্প’, আলী ইমামের ‘বিজ্ঞানের কল্পকাহিনি’ প্রভৃতি।

মূলমঞ্চের আয়োজন

শুক্রবার বিকালে গ্রন্থমেলার মূলমঞ্চে অনুষ্ঠিত হয় আসাদ চৌধুরী রচিত ‘সংগ্রামী নায়ক বঙ্গবন্ধ’ু শীর্ষক আলোচনা অনুষ্ঠান। প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন শোয়াইব জিবরান। আলোচনায় অংশগ্রহণ করেন আনিসুর রহমান এবং নূরুন্নাহার মুক্তা। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন অধ্যাপক খুরশীদা বেগম।

কবিকণ্ঠে কবিতা পাঠ করেন কবি কাজল বন্দ্যোপাধ্যায়, সাজ্জাদ আরেফিন, তারিক সুজাত এবং সুহিতা সুলতানা। আবৃত্তি পরিবেশন করেন আবৃত্তিশিল্পী আহ্কাম উল্লাহ, সায়েরা হাবীব এবং নাজনীন নাজ। সংগীত পরিবেশন করেন কণ্ঠশিল্পী খুরশিদ আলম, তানভীর সজীব আলম, তানজিনা করিম স্বরলিপি, মুর্শিদ আনোয়ার, রাজিয়া সুলতানা এবং শরণ বড়ুয়া।

শুক্রবার লেখক বলছি অনুষ্ঠানে নিজেদের নতুন বই নিয়ে আলোচনা করেন ফরিদ কবির, মাহবুব আজীজ, আফরোজা সোমা এবং চৌধুরী শহীদ কাদের।

ইত্তেফাক/কেকে

এই পাতার আরো খবর -
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
icmab
facebook-recent-activity
prayer-time
২৮ ফেব্রুয়ারি, ২০২০
আর্কাইভ
বেটা
ভার্সন