ঢাকা শনিবার, ০৪ এপ্রিল ২০২০, ২১ চৈত্র ১৪২৬
২৫ °সে

বইমেলায় উত্সর্গ

বইমেলায় উত্সর্গ
ছবি: ইত্তেফাক

মহান একুশের বইমেলা এলেই নিজের কিছু নতুন বই বের হয়। নতুন কিছু প্রিয় মানুষকে বই উত্সর্গ করি। আবার নিজেও কিছু বইয়ে উত্সর্গকৃত হই। মানে দু-একজন তরুণ লেখকরা আমাকে বই উত্সর্গ করে। তবে দুটির মধ্যেই কিঞ্চিত্ সমস্যা আছে। যেমন গত বছর বইমেলায় আমার প্রিয় এক দম্পতিকে উত্সর্গ করলাম, তারা সদ্য বিয়ে করেছে। তারাও খুশি হলো। কিন্তু এ বছর বইমেলায় গিয়ে শুনি তাদের ডিভোর্স হয়ে গেছে, দুজন দুজনের নামই শুনতে পারে না। এখন কি দুটো আলাদা বই লিখে তাদের আবার আলাদা আলাদা উত্সর্গ করা উচিত আমার?

কিংবা সেই ঘটনাটা (এটা অবশ্য এবারের একটা বইয়ে আমি লিখেছি। ইত্তেফাকের পাঠকদের জন্য আবার রিপ্লে করা যায়) আমার বড়ো ভাই হুমায়ূন আহমেদের ঘনিষ্ঠ এক বন্ধুকে বই উত্সর্গ করলাম। ভাবলাম তিনি খুশি হবেন, ওমা তিনি ক্ষিপ্ত হয়ে বই হাতে ছুটে এলেন—

এটা কি করেছিস ? আমার নামে বই উত্সর্গ করেছিস??

ইয়ে...কেন আপনি খুশি হননি?

খুশি হব মানে? আমার নামের বানান তো পুরাই ভুল!

এ্যাঁ তাই নাকি? ইয়ে...পরের এডিশনে নাহয় ঠিক করে দেব

আরে তুই কি হুমায়ূন আহমেদ নাকি যে তার বই আরেক এডিশন হবে?

সেটাও ঠিক আমি আমতা আমতা করি।

এত গেল নিজের বইয়ের উত্সর্গ কাহিনি। এবার শোনা যাক অন্যের বইয়ের উত্সর্গ কাহিনী। এক তরুণ এল আমার কাছে সে একটা উপন্যাস লিখেছে, তার প্রথম উপন্যাস। সে বেশ ভালোই লিখে। উপন্যাসটি সে তার প্রেমিকাকে উত্সর্গ করেছে (খুব সদ্যই তার প্রেম হয়েছে)। কিন্তু সমস্যা হয়েছে তার প্রেমিকার আগের প্রেমিকের কানে এই খবর পৌঁছে গেছে (এই প্রেমিক অবশ্য আগের প্রেমিকার কাছে ফের ফিরে আসার চিন্তা ভাবনা করছে) এবং সে তাকে হুঁশিয়ারি দিয়েছে। বইয়ে প্রেমিকার নাম উত্সর্গে থাকলে তার খবর আছে। সেই লেখক এসেছে আমার কাছে এখন সে কি করবে। উত্সর্গ বাদ দেবে ? না বই বের করার চিন্তাই বাদ দেবে?

আমি অবশ্য তাকে এখনো কোনো বুদ্ধি দিতে পারিনি।

আরেক তরুণ লেখক আমাকে জানাল সে এবারের বইমেলায় আমাকে তার একটি বই উত্সর্গ করবে আমার কোনো আপত্তি আছে কি না। আমি জানালাম কোনো আপত্তি নেই। তবে বইটি কি? উপন্যাস? গল্প না কবিতা?

সে জানাল বইয়ের নাম ‘বাংলা গালির বিশ্ব কোষ’

বইয়ের নাম শুনে আমি শিউরে উঠলাম। খুব টেনশনে আছি সত্যিই কি এই বই বের হবে? এবং সেখানে উত্সর্গে আমার নাম থাকবে?

তো বই মেলা এলে লেখক পাঠকদের এরকম নানান সব মিষ্টি মধুর ঝুট ঝামেলার ভেতর দিয়ে পার করতে হয়। তারপরও সময়টা কাটে চমত্কার। কারণ একটা ভালো বই হচ্ছে একটা আস্ত পৃথিবী, যার প্রথম পাতাটা পড়ে শুরু হলো আপনার জার্নি... বাক্যটা আমার না, পৃথিবীবিখ্যাত এক পর্যটকের। আর প্রতি বইমেলায়ই অনেক ভালো ভালো বই বের হয়, কোনো সন্দেহ নেই!

ইত্তেফাক/বিএএফ

এই পাতার আরো খবর -
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
icmab
facebook-recent-activity
prayer-time
০৪ এপ্রিল, ২০২০
আর্কাইভ
বেটা
ভার্সন