বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান বই কিনে পাশে দাঁড়াতে পারে প্রকাশকদের

বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান বই কিনে পাশে দাঁড়াতে পারে প্রকাশকদের
লকডাউনে প্রায় ক্রেতাশূন্য বইমেলা। ছবি: ফোকাস বাংলা

লেখক-প্রকাশক-পাঠকদের প্রাণের উত্সব বইমেলা। এই উত্সবের আমেজকে এবার অনেকটাই মিইয়ে দিয়েছে মহামারি করোনা। অনিশ্চয়তার দোলাচলে মহামারির মধ্যেই বিলম্বে শুরু হয় একুশে বইমেলা। মধ্যে করোনার প্রাদুর্ভাব অনেকটা কমে এলেও আবার বাড়তে শুরু করায় শঙ্কা বাড়ছে। যে কোনো উত্সব, আয়োজনে শঙ্কা থাকলে সেটাকে সফল করা অনেকটা দুঃসাধ্য হয়ে পড়ে। সেই জায়গা থেকেই মনে হচ্ছিল বইমেলাটি ঠিক পূর্বের মতো তাল মিলিয়ে এগুতে পারছে না। বাংলাদেশের বৃহত্তর প্রকাশনাসমূহ এই সংশয়, শঙ্কা এবং আতঙ্ক থেকে বইয়ের প্রকাশনা কমিয়ে ফেলতে বাধ্য হয়েছে।

ঐতিহ্য করোনা প্রাদুর্ভাবের শুরু থেকে বর্তমান পর্যন্ত প্রকাশনা প্রায় স্বাভাবিক পর্যায়ে রেখেই এগিয়ে যাচ্ছে। বইমেলাকে কেন্দ্র করে এ বছর ঐতিহ্য প্রকাশ করতে চলেছে ৮১টি নতুন বই। যার সিংহভাগই চলে গেছে বইমেলায়। চার খণ্ড ঈশ্বরচন্দ্র রচনাবলী, সাত খণ্ড প্রমথ চৌধুরী রচনাবলী, মুক্তিযুদ্ধের ৫০ বছর ঐতিহ্য সুবর্ণ সংগ্রহ সিরিজের সাতটি বইসহ ৩৭ বিষয়ের ওপর বই প্রকাশ করতে চলেছে ঐতিহ্য।

সময়ের বাস্তবতায় অনেক প্রকাশক বই প্রকাশ বন্ধ করে দিয়েছে প্রায়। অনেকে মেলায় অংশগ্রহণও করেনি। তবে ঐতিহ্য চেষ্টা করেছে, সব প্রতিবন্ধকতাকে দূরে ঠেলে নিজেদের সর্বোচ্চ সামর্থ্য দিয়ে পাঠকের হাতের নাগালে বইকে পৌঁছে দিতে।

করোনা মহামারির কারণে বইমেলা চলছে সীমিত সময়। ব্যাংক, মার্কেট খোলা থাকলেও বইমেলা নিয়ে নানা নেতিবাচক মন্তব্যে অনেক পাঠককেই বইমেলায় আসতে নিরুত্সাহিত করে। আমরা চাই বইমেলা যেহেতু শুরু হয়েছে, শেষটাও যেন সময়মতোই হয়। বিশ্বদরবারে একটি অনুকরণীয় মেলা হিসেবেও হয়ত-বা স্বীকৃতি আদায় করা যেত যদি আমরা আরো বেশি সচেতন হতে পারতাম।

করোনার কারণে বেশির ভাগ প্রকাশক বিপুল ক্ষতির মধ্যেই এবার বইমেলায় অংশগ্রহণ করল। বইমেলায় এসেছিল গুদামজাত বইগুলো কিছুটা হলেও বিক্রি করে ক্যাশ-ক্যাপিটাল বৃদ্ধি করার উদ্দেশ্যে। কিন্তু তাও হলো না এবার বেশির ভাগ প্রকাশকের। বরং বইমেলার জন্য লগ্নিকৃত টাকাও উঠাতে ব্যর্থ হতে চলেছে সিংহভাগ প্রকাশনা সংস্থা। এই পরিস্থিতিতে প্রয়োজন প্রণোদনার, রাষ্ট্রের পাশাপাশি বিভিন্ন আর্থিক প্রতিষ্ঠানও এগিয়ে আসতে পারে প্রকাশকদের জন্য। চাইলে সিএসআরের অংশ হিসেবে হলেও বই ক্রয় করে ক্ষুদ্র ও মাঝারি প্রকাশকদের পাশে দাঁড়াতে পারে ক্ষতিগ্রস্ত এই সমাজ বিনির্মাণের হাতিয়ার বই কারিগরদের পাশে।

লেখক: প্রকাশক, ঐতিহ্য

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
আরও
আরও
x