ডাক্তার-স্বাস্থ্যকর্মীদের জন্য বিনামূল্যে ‘ক্র্যাক প্লাটুন পরিবহন’

ডাক্তার-স্বাস্থ্যকর্মীদের জন্য বিনামূল্যে ‘ক্র্যাক প্লাটুন পরিবহন’
ডাক্তার-স্বাস্থ্যকর্মীদের জন্য বিনা খরচে ‘ক্র্যাক প্ল্যাটুন পরিবহন’।ছবি: ইত্তেফাক

দ্যা আর্থ সোসাইটির উদ্যোগে ও ডিবিএল ফার্মার পৃষ্ঠপোষকতায় ডাক্তার ও স্বাস্থ্যকর্মীদের জন্য বিনা খরচে ক্র্যাক প্লাটুন পরিবহন সেবার যাত্রা শুরু হয়েছে। আজ মঙ্গলবার (৩১ মার্চ) থেকে ডাক্তার, নার্স এবং স্বাস্থ্যকর্মীদের জন্য বিনা খরচে ঢাকা শহরে বিভিন্ন গন্তব্যে পৌঁছে দিতে এ ‘ক্র্যাক প্লাটুন পরিবহন সেবা’ শুরু হয়।

আজ পাইলটিং এবং সমন্বয়ের মাধ্যমে এটি শুরু হয়। তবে আগামীকাল ১ এপ্রিল থেকে এর আনুষ্ঠানিক যাত্রা শুরু হবে। প্রতিদিন সকাল ৮টা, দুপুর ২টা এবং রাত ৮টা–এই ৩ শিফটে ১৬টি রুটে সম্পূর্ণ ঢাকা শহরের বিভিন্ন প্রান্তের প্রায় ৪০টি হাসপাতাল থেকে ডাক্তাররা এ পরিবহন সেবাটি পাবেন।

উল্লেখিত সময়গুলো ছাড়াও ঢাকা শহরের ভেতরে যেকোনো জায়গায় সেবাদানকারীরা জরুরি প্রয়োজনে এ সেবাটি পাবেন। ১০টি মাইক্রোবাস এবং ৪টি বাস নিয়ে সেবাটি চালু হয়েছে এবং প্রয়োজন অনুযায়ী গাড়ির সংখ্যা আরও বাড়ানো হবে।

সাধারণ ছুটির সময়ে ডাক্তার এবং স্বাস্থ্যকর্মীদের পরিবহনজনিত সমস্যা লাঘব করতে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অনুমোদন ও তত্ত্বাবধানে, দ্যা আর্থ সোসাইটি এবং বন্ডস্টাইন টেকনোলজিসের উদ্যোগে, ডিবিএল ফার্মাসিউটিক্যালস লিমিটেডের পৃষ্ঠপোষকতায় এবং গ্লোবাল শেপারস ঢাকা হাবের সহায়তায় এবং স্বেচ্ছাসেবক ব্যবস্থাপনায় রয়েছে করোনা প্রতিরোধ সংঘ। সারা শহরে তাদের জন্য এ বিশেষ পরিবহন ব্যবস্থা করা হয়েছে। সেবাটি বিশেষজ্ঞদের পরামর্শমত যাত্রীদের মাঝে নির্দিষ্ট দূরত্ব বজায় রেখে এবং নির্দিষ্ট সময় পরপর জীবাণুমুক্ত করার মাধ্যমে পরিচালনা করা হবে।

১৯৭১ সালের মহান মুক্তিযুদ্ধের জনপ্রিয় গেরিলা সংগঠন ক্র্যাক প্লাটুনের নামের সাথে মিল রেখে এ সেবাটির নাম দেয়া হয়েছে ‘ক্র্যাক প্লাটুন পরিবহন সেবা’, যেহেতু ডাক্তার এবং স্বাস্থ্যকর্মীরা প্রত্যেকেই এই সময়ের একেকজন যোদ্ধা।

উদ্ভাবনী এ সেবাটি চালু করতে আজ স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালকের সভাপতিত্বে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরে একটি সমন্বয় সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভা শেষে ‘ক্র্যাক প্লাটুন পরিবহন সেবা’ এর উদ্বোধন করেন স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. আবুল কালাম আজাদ, স্বাধীনতা চিকিসৎক পরিষদের জ্যেষ্ঠ সহ সভাপতি ডা. জামাল উদ্দিন চৌধুরী।

আরো পড়ুন: করোনা পরিস্থিতিতে আর্তমানবতার সেবায় আহমদিয়া যুব সংগঠন

এছাড়াও উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন- ডিবিএল গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক এম এ জব্বার। আরো উপস্থিত ছিলেন দ্যা আর্থ সোসাইটির সহ প্রতিষ্ঠাতা মো. সাদেকুল আরেফিন নিবার্হী পরিচালক মোহাম্মদ মামুন মিয়া, বন্ডস্টাইন টেকনোলজিস এর পরিচালক যাফির শাফিক চৌধুরী।

এখন পর্যন্ত ২৫০ এর অধিক ডাক্তার এবং সেবাদানকারী এ সেবাটি পেতে রেজিস্ট্রেশন করেছেন। ঢাকায় কর্মরত ডাক্তার বা সেবাদানকারীরা উক্ত সেবাটি বিনামূল্যে ব্যবহার করতে চাইলে bit.ly/crackplatoontransport লিংকে গিয়ে রেজিস্ট্রেশন করতে পারবেন।

আর ডাক্তার বা সেবাদানকারীরা bit.ly/crackplatoonroutes লিংকে ঢুকে নিজেদের জন্য প্রযোজ্য রুটটি খুঁজে নিতে পারবেন। এছাড়া কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগের হটলাইন নম্বর ০৯৬৩৯৫৯৫৯৫৯ ব্যবহার করতে পারবেন।

ইত্তেফাক/এএএম

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত