বেটা ভার্সন
আজকের পত্রিকাই-পেপার ঢাকা শুক্রবার, ০৭ আগস্ট ২০২০, ২৩ শ্রাবণ ১৪২৭
২৯ °সে

ব্যাংকের চেকে ২৫ ধরনের স্বাক্ষর দিতেন সাহেদ

গ্রেফতার না হওয়া পর্যন্ত অভিযান চলবে :আইজিপি
ব্যাংকের চেকে ২৫ ধরনের স্বাক্ষর দিতেন সাহেদ
রিজেন্ট হাসপাতালের চেয়ারম্যান সাহেদ। ফাইল ছবি

করোনায় ভুয়া সার্টিফিকেট বিক্রির দায়ে অভিযুক্ত রিজেন্ট হাসপাতালের চেয়ারম্যান সাহেদের বিরুদ্ধে ব্যাংকের চেকে ২৫ ধরনের স্বাক্ষর দিয়ে প্রতারণার প্রমাণ পেয়েছে র‌্যাব। যেসব স্বাক্ষরের মাধ্যমে বিভিন্ন জায়গায় বিল পরিশোধ করতেন সাহেদ, তার মধ্যে একটি স্বাক্ষরের সঙ্গে অন্য স্বাক্ষরের কোনো মিল ছিল না। যার কারণে তার বিরুদ্ধে সারা দেশে ৫৬টি চেক প্রতারণার মামলাও হয়েছে। ট্রান্সকম গ্রুপকেও এমন একটি প্রতারণার চেক প্রদান করায় তার বিরুদ্ধে মামলা করে তারা।

এদিকে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের নির্দেশেই রিজেন্ট হাসপাতালের সঙ্গে করোনা পরীক্ষা করার চুক্তি করা হয়েছে। অন্যদিকে র‌্যাব জনিয়েছে, তাকে দু-একদিনের ভেতর গ্রেফতার করা হবে। পুলিশের আইজিপি ড. বেনজির আহমেদ বলেন, যতক্ষণ পর্যন্ত সাহেদ গ্রেফতার না হবে, ততক্ষণ পর্যন্ত অভিযান চলবে। এর আগে গত সোমবার উত্তরার রিজেন্ট হাসপাতালে অভিযান চালায় র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব)। গ্রেফতার করা হয় আট জনকে। এর পর গত মঙ্গলবার বিকালে হাসপাতালটির উত্তরা শাখা ও অফিস সিলগালা করে র্যাব। ঐ দিন রাতে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর রিজেন্টের গোটা স্বাস্থ্য কার্যক্রম বন্ধের নির্দেশ দেয়। এ পরিপ্রেক্ষিতে বুধবার হাসপাতালটির মিরপুর শাখা সিলগালা করে দেওয়া হয়।

এরই মধ্যে তার ব্যাংক হিসাব তলব করেছে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের বিএফআইইউ (বাংলাদেশ ফিন্যান্সিয়াল ইন্টেলিজেন্ট ইউনিট)। করোনা টেস্টের নামে ভুয়া রিপোর্ট দিয়ে টাকা হাতিয়ে নেওয়া ও ভূতুড়ে বিল ধরিয়ে দিয়ে রোগীদের কাছ থেকে জোর করে টাকা আদায়, মারধরসহ নানা অভিযোগে মঙ্গলবার রাতে হাসপাতালটির চেয়ারম্যান মো. সাহেদসহ ১৭ জনের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। এর মধ্যে সোমবার গ্রেফতার হওয়া আট জন রয়েছেন। সাহেদসহ ৯ জন এখনো পলাতক রয়েছেন।

ইত্তেফাক/এএম

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত