উচ্ছেদ নিয়ে লুকোচুরি

উত্তরায় রাজউকের প্লটে দোকান তুলে ভাড়া আদায় করে প্রভাবশালী চক্র
উচ্ছেদ নিয়ে লুকোচুরি
উচ্ছেদ অভিযান। ফাইল ছবি

উত্তরার ১৩ নম্বর সেক্টরে রাজউকের অবরাদ্দ প্লটে অবৈধভাবে দোকান তুলে লাখ লাখ টাকা ভাড়া আদায় করছে একটি চক্র। রাজউক বারবার দোকান গুঁড়িয়ে দিলেও সেখানে ফের নতুন করে দোকান তুলেছে তারা। এ যেন লুকোচুরি খেলা। জানা যায়, সোনারগাঁও জনপদ রোডের উভয় পাশে রাজউকের উত্তরা দ্বিতীয় প্রকল্পের খালি প্লটে এসব দোকান তোলা হয়। এসব প্লটের মধ্যে কিছু অবরাদ্দকৃত আবার কিছু প্লট নিয়ে চলছে মালিকের সঙ্গে রাজউকের মামলা। তবে তৃতীয় পক্ষ হিসেবে এসব প্লটে দোকান তুলে সেগুলো ভাড়া দিচ্ছেন স্থানীয় প্রভাবশালী কিছু ব্যক্তি।

সরেজমিনে দেখা যায়, মূলত ফার্নিচার মার্কেট ও হোটেলসহ বিভিন্ন স্থাপনা তোলা হয়েছে সেখানে। ফার্নিচার মার্কেটের ম্যানেজার জাকির হোসেন বলেন, তিনি ভাড়া তোলেন, তবে তা কে বা কারা নেয় বলতে নারাজ । ছালিমুল নামে একটি দোকানের মালিক জানান, তিনি ভাড়ায় দোকান নিয়েছেন। মাস শেষে ভাড়া দেন, এর বাইরে কিছু জানেন না। অবশ্য সরকারি জমি দখল করে দোকান বানানো হয়েছে বলে বিষয়টি স্বীকার করেন।

জানা গেছে , ফার্নিচার মার্কেটটি মূলত দেখভালের দায়িত্ব পালন করেন জজ মিয়া নামে এক ব্যক্তি। আর কবির হাসান নামে এক ব্যক্তিই তুলেছেন এ মার্কেট। তিনি নিজেকে যুবলীগের নেতা দাবি করেন। তবে স্থানীয় বাসিন্দারা জানান, যারা এটি দখল করে মার্কেট তুলেছেন ভাড়ার টাকা শুধু তারাই পাচ্ছেন, এমন নয়। ভাগ রাজউকের অসাধু কিছু কর্মকর্তা ও স্থানীয় দলীয় নেতাকর্মীর পকেটেও যায়।

সরকারি জমি দখল করে মার্কেট তোলার বিষয়ে কবির হাসান বলেন, তার বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগ সত্য নয়। তবে জমি নিয়ে মামলা আছে বলে জানান তিনি। এখানে তার নিজস্ব কোনো জমি আছে কিনা এমন প্রশ্ন করলে তিনি এ বিষয়ে কিছু বলতে রাজি হননি। এ বিষয়ে রাজউকের উত্তরা জোনের উপ-পরিচালক (ভূমি ও এস্টেট) আসাদুজ্জামান বিশ্বাস ইত্তেফাককে বলেন, রাজউক কয়েকবার সেখানে অভিযান চালিয়ে উচ্ছেদ করেছে। কিন্তু প্রভাবশালীরা সেখানে বারবার মার্কেট তুলছে। তবে এর সঙ্গে রাজউকের কোনো কর্মকর্তা জড়িত নয় বলে তিনি দাবি করেন।

ইত্তেফাক/এসআই

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত