‘অনেকটা ভালো’ আছেন ইউএনও ওয়াহিদা, নিউরোসায়েন্স থেকে মিরপুর সিআরপিতে ভর্তি

‘অনেকটা ভালো’ আছেন ইউএনও ওয়াহিদা, নিউরোসায়েন্স থেকে মিরপুর সিআরপিতে ভর্তি
দিনাজপুরের ঘোড়াঘাট উপজেলার সাবেক ইউএনও ওয়াহিদা খানম। ছবি : সংগৃহীত

প্রায় এক মাসের চিকিৎসায় অনেকটা সুস্থ হয়ে ওঠার পর দিনাজপুরের ঘোড়াঘাট উপজেলার সাবেক ইউএনও ওয়াহিদা খানমকে জাতীয় নিউরোসায়েন্স ইন্সটিটিউট ও হাসপাতাল থেকে ছুটি দিয়ে পাঠানো হয়েছে মিরপুর সিআরপিতে।

বৃহস্পতিবার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে নিউরোসায়েন্স হাসপাতাল থেকে ছেড়ে দেওয়া হয় ওয়াহিদাকে। এর পরপরই তাকে মিরপুর সিআরপিতে নিয়ে যাওয়া হয়। তার চিকিৎসায় গঠিত মেডিকেল বোর্ডের প্রধান জাতীয় নিউরোসায়েন্স ইন্সটিটিউট ও হাসপাতালের অধ্যাপক ডা. জাহেদ হোসেন সাংবাদিকদের বলেন, ওয়াহিদা খানমের শারীরিক অবস্থা এখন ‘ভালো’। এক মাস পর তাকে আবার হাসপাতালে গিয়ে দেখিয়ে যেতে বলেছেন চিকিৎসকরা। তিনি যখন প্রথম এখানে আসেন, তখন অপারেশন করার মত অবস্থায় ছিলেন না। আমরা তাকে অপারেশেন করার মতো অবস্থায় আনি। এরপর তার অস্ত্রোপচার হয়। অপারেশনের পর ডান দিক নাড়াতে পারছিলেন না। তবে এখন তিনি হাঁটতে পারছেন।

ওয়াহিদার শারীরিক অবস্থা এখন ‘ভালো’ হলেও তিনি শতভাগ সেরে ওঠেননি জানিয়ে ডা. জাহেদ হোসেন বলেন, এ কারণে তাকে আমরা সিআরপিতে পাঠিয়েছি ফিজিওথেরাপির জন্য। এখনও যে সমস্যা সামান্য আছে, সেটা দু’য়েক সপ্তাহের মধ্যে ঠিক হয়ে যাবে। তিনি সম্পূর্ণ সুস্থ হয়ে যাবেন। নিউরোসায়েন্স হাসপাতাল ছেড়ে যাওয়ার সময় সাংবাদিকদের সঙ্গে কোনো কথা বলেননি ওয়াহিদা খানম।

হাসপাতালের যুগ্ম পরিচালক অধ্যাপক ডা. বদরুল আলম বলেন, ওয়াহিদা খানমের একটা জটিল অপারেশন সুন্দরভাবে সম্পন্ন করা হয়েছে। এক মাসের মধ্যেই তিনি হেঁটে হাসপাতাল থেকে যেতে পারলেন। এটা নিউরোসার্জারিতে বিস্ময়কর না হলেও তার জন্য অনেক বড় পাওয়া।

প্রসঙ্গত, গত ২ সেপ্টেম্বর রাতে ঘোড়াঘাট উপজেলা পরিষদ চত্বরের ইউএনওর সরকারি বাসভবনে ঢুকে ওয়াহিদা খানম ও তার বাবা ওমর আলীর ওপর হামলা হয়। হাতুড়ি আঘাতে আহত বাবা-মেয়েকে প্রথমে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়। পরে ইউএনও ওয়াহিদাকে ঢাকায় ন্যাশনাল ইন্সটিটিউট অব নিউরোসায়েন্স ও হাসপাতালে আনা হয়।

ইত্তেফাক/ইউবি

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত