ডিজিটালাইজেশনে এগিয়ে ঢাকা বিভাগ

নিশ্চিত করা হয়েছে শতভাগ ই-নথি ব্যবহার
ডিজিটালাইজেশনে এগিয়ে ঢাকা বিভাগ
[ফাইল ছবি]

বর্তমান সরকারের ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার উদ্যোগ বাস্তবায়নে বিভিন্ন সূচকে অন্যান্য বিভাগকে পেছনে ফেলে এগিয়ে গেছে ঢাকা বিভাগ। ইতিমধ্যে শতভাগ ই-নথি ব্যবহার নিশ্চিত করার মাধ্যমে অষ্টম অবস্থান থেকে শীর্ষ অবস্থানে উঠে এসেছে বিভাগটি। সেই সঙ্গে বিভিন্ন অ্যাপ ও প্রযুক্তি ব্যবহার করে দাফতরিক কার্যক্রমে গতি আনতে নানা উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।

ঢাকা বিভাগীয় কমিশনার অফিসের এক বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, মো. মোস্তাফিজুর রহমান ঢাকার বিভাগীয় কমিশনার হিসেবে যোগদান করার পর ই-নথিতে ঢাকা বিভাগের রেটিং বৃদ্ধিতে নানা উদ্যোগ নেন। সব শাখায় শতভাগ ই-নথির ব্যবহার নিশ্চিত করেন। কর্মকর্তা-কর্মচারীদের প্রশিক্ষণ প্রদান, প্রতি মাসে সেরা কর্মচারী বাছাইয়ের আয়োজনসহ নানা উদ্যোগ গ্রহণ করেন। ফলে ই-নথিতে ঢাকা বিভাগ অষ্টম অবস্থান থেকে পর্যায়ক্রমে বাংলাদেশে প্রথম স্থান অর্জন করেছে। অতিসম্প্রতি ঢাকা বিভাগীয় কমিশনার মোস্তাফিজুর রহমান দাফতরিক কাজে সরকারের সেবাকে সহজ ও দ্রুত করতে বিভিন্ন প্রযুক্তির উন্নয়ন ঘটিয়েছেন।

আরো পড়ুন : বরেণ্য অভিনেতা ও সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব আলী যাকেরের দাফন সম্পন্ন

যা শুধু ঢাকা বিভাগ নয়, সারা বাংলাদেশে বাস্তবায়ন করলে মানুষ ডিজিটাল বাংলাদেশের সর্বোচ্চ সুবিধা পাবে বলে জানানো হয়েছে। তিনি সামগ্রিক করোনা পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণে ‘মাঠ প্রশাসনে কোভিড-১৯ রিপোর্টিং সিস্টেম’, জেলা-উপজেলার বিভিন্ন প্রতিবেদন ব্যবস্থাপনা ও বিভাগীয় পর্যায় থেকে উপজেলা পর্যন্ত মনিটরিং জোরদার করতে ‘রিপোর্ট ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম’, সহজে ও স্বচ্ছতার সঙ্গে কর্মকর্তা-কর্মচারীদের পদায়ন ও বদলি ব্যবস্থাপনায় ‘অনলাইন শূন্যপদ ব্যবস্থাপনা সিস্টেম’, কাজ করতে গিয়ে কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বিভিন্ন চ্যালেঞ্জ ও তা উত্তরণের ঘটনাগুলো পরবর্তী কর্মীর কাজের সুবিধার্থে সংগ্রহে রাখতে ‘দাফতরিক স্মৃতিকোষ’ ও কর্মকর্তা-কর্মচারীদের মাধ্যমে বিনামূল্যে ও নিরাপদে বার্তা আদান-প্রদানে ‘বার্তা অ্যাপ’ চালু করেছেন। ইতিমধ্যে রিপোর্ট ম্যানেজমেন্ট সিস্টেমটি মন্ত্রীপরিষদ বিভাগ থেকে সব বিভাগে চালু করার নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। সব বিভাগের কোভিড-১৯ এর রিপোর্ট এই সিস্টেমের মাধ্যমে দেওয়া হচ্ছে।

এদিকে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবর্ষ ও আসন্ন বিজয় দিবস উপলক্ষে ই-জিনিয়াস হান্ট অ্যাপের মাধ্যমে সারা দেশ থেকে সৃজনশীল ও মেধাবী শিশু-কিশোরদের খুঁজে বের করা কর্মসূচিতে সার্বক্ষণিক সহযোগিতা দিয়ে যাচ্ছে ঢাকা বিভাগীয় কমিশনার অফিস। তথ্য ও যোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক অ্যাপটি উদ্বোধন করেন।

ইত্তেফাক/ইউবি

Nogod
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত