পাঁচ মানব পাচারকারীকে ধরতে ইন্টারপোলের রেড নোটিশ

পাঁচ মানব পাচারকারীকে ধরতে ইন্টারপোলের রেড নোটিশ
আন্তর্জাতিক পুলিশ সংস্থা, ইন্টারপোল। ছবি: সংগৃহীত

অবৈধভাবে আমেরিকা ইউরোপ ও লিবিয়াসহ মধ্যপ্রাচ্যে মানবপাচারের সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে পাঁচ মানব পাচারকারীকে ফিরিয়ে আনতে রেড নোটিশ জারি করেছে ইন্টারন্যাশনাল ক্রিমিনাল পুলিশ অর্গানাইজেশন (ইন্টারপোল)। ওই পাঁচজন লিবিয়ায় মানবপাচারের সঙ্গে জড়িত বলে জানিয়েছে ইন্টারপোল। এদের মধ্যে তিনজন আগে থেকেই লিবিয়ায় অবস্থান করছেন। আর বাকি দু’জনের অবস্থান সম্পর্কে জানতে পারেনি আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী।

ইন্টারপোল বাংলাদেশ শাখার ন্যাশনাল সেন্ট্রাল ব্যুরোর (এনসিবি) সহকারী মহাপরিদর্শক (এআইজি) মহিউল ইসলাম বলেন, লিবিয়ায় মানবপাচারকারীদের মধ্যে পাঁচজনকে চিহ্নিত করা হয়েছে। গত বুধবার পাঁচজনকে ধরতে রেড নোটিশ জারি করা হয়েছে। এর মধ্যে তিনজনের অবস্থান সনাক্ত করা হয়েছে। বাকি দু’জনে অবস্থান এখনো খুঁজে পাওয়া যায়নি।

সূত্র জানায়, এর আগে গত ৬ নভেম্বর মিন্টু মিয়া নামে এক মানব পাচারকারীর নামে রেড নোটিশ জারি করে ইন্টারপোল।

আরো পড়ুনঃ ২৫ পৌরসভায় আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী ১০৫

গত ২৮ মে লিবিয়ায় মিজদাহ শহরে নৃশংস হত্যাকাণ্ডে ২৬ বাংলাদেশী নিহত এবং ১১ বাংলাদেশী মারাত্মকভাবে আহত হয়। বর্বরোচিত ওই ঘটনায় মূল উৎঘাটন করতে গিয়ে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী দেখেন, অবৈধভাবে ইউরোপে যাওয়ার জন্য বিভিন্ন দালাল চক্র ইউরোপে উন্নত জীবনের মিথ্যা প্রলোভন দেখিয়ে প্রতিনিয়ত অসহায় বাংলাদেশীদের অবৈধভাবে নৌপথ, গহীন জঙ্গল ও দুর্গম মরুপথ দিয়ে পাচার করে আসছিলো। এই অবৈধ অভিবাসীদের দুর্বলতার সুযোগ নিয়ে জিম্মি করে তাদের স্বজনদের কাছে মুক্তিপণ দাবী এবং অভিবাসীদের শারীরিক নির্যাতন করে আসছিল। নৃশংসতার পর হত্যার ঘটনা ঘটে। এরপরই টনক নড়ে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর।

এনসিবি’র সহকারী মহাপরিদর্শক (এআইজি) মহিউল ইসলাম বলেন, এবারই প্রথম বাংলাদেশি কোনো মানব পাচারকারীর বিরুদ্ধে রেড নোটিস জারি করা হয়েছে। যে ৫ জনের নামে রেড নোটিশ জারি করা হয়েছে, এর মধ্যে রয়েছেন তানজিলুর ওরফে তানজিলুম ওরফে তানজিদ। তানজিলুরের বাড়ি কিশোরগঞ্জের ভৈরব উপজেলার শ্রীনগর গ্রামে। তিনি আগে থেকেই লিবিয়ায় অবস্থান করছেন। একই উপজেলার লক্ষ্মীপুর গ্রামের জাফর ওরফে জাফর ইকবালের নামেও রেড নোটিশ জারি হয়েছে। তিনিও আগে থেকেই লিবিয়ায় অবস্থান করছেন। লিবিয়ায় আগে থেকে অবস্থান করা স্বপনের নামেও রেড নোটিশ জারি হয়েছে। তার বাড়িও একই উপজেলার শম্ভুপুরে। এছাড়া মাদারীপুর সদরের মধ্যাহাউসদি গ্রামের নজরুল মোল্লা এবং ঢাকার কামরাঙ্গীরচরের শাহাদাত হোসেন। এ ২ জনের অবস্থান এখনো জানা যায়নি।

ইত্তেফাক/এমএএম

Nogod
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত